07052020রবি
শিরোনাম:
রবিবার, 28 জুন 2020 20:10

পাক অধিকৃত কাশ্মীরে বাড়ছে চিনা বিমানের আনাগোনা

নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: নয়াদিল্লি : গত সপ্তাহেই ভারতের রাডারে ধরা পড়েছিল চিনা বায়ুসেনার গতিবিধি। পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর জুড়ে চিনা বায়ুসেনার আনাগোনা সন্দেহ বাড়ায় ভারতের। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের স্কার্দুতে অবতরণ করে চিনা বায়ুসেনার বিমান। তারপর থেকেই লাদাখে চিনা বায়ুসেনার নজরদারি বাড়ার ঘটনায় বিশেষ পাক যোগ খুঁজে পাচ্ছে নয়াদিল্লি। ফলে গোটা পরিস্থিতির দিকে কড়া নজর রেখেছে ভারত। জাতীয় সংবাদমাধ্যমগুলি জানাচ্ছে স্কার্দুতে খুব নিয়ন্ত্রিত গতিবিধি নজরে এসেছে ভারতীয় রাডারের মাধ্যমে। এর প্রেক্ষিতে, বিভিন্ন এয়ারবেসে ভারতীয় বায়ুসেনাও তৎপরতা বাড়িয়েছে। সেনাবাহিনীতেও একেবারে হাই-অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে। পাকিস্তান সীমান্তে ক্রমশ সেনা বাড়ানো হচ্ছে বলেও ভারতীয় সেনা সূত্রে জানা গিয়েছে। ভারত-পাক সেক্টরে সেনাকে সর্বোচ্চ অ্যালার্টে রাখা হয়েছে বলে জানা যাচ্ছে। সীমান্তে বায়ুসেনার যুদ্ধবিমানগুলিকে ওড়ানো হচ্ছে। এদিকে, দফায় দফায় আলোচনার পর লাদাখের গানওয়াল সীমান্ত থেকে পিছু হটেছে চিনের সেনাবাহিনী। কিন্তু স্যাটেলাইট অন্য কথা বলছে। স্যাটেলাইটে ধরা ছবিতে দেখা গিয়েছে যে, লাদাখ সীমান্ত ঘেঁষে ব্যাপক ভাবে নির্মান কাজ চালাচ্ছে চিনের বাহিনী। এমনকি গানওয়াল নদীর পর্যন্ত আটকে দেওয়া হয়েছে বলে ইতিমধ্যে চিনের সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে চাঞ্চল্যকর অভিযোগ সামনে এসেছে। এখানেই শেষ নয়, সামনে আসছে একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য। জানা যাচ্ছে, করাচি বন্দরে চিনের ০৯৩-শ্যাং নিউক্লিয়ার সাবমেরিন। লাহোরে জে-১১ যুদ্ধবিমান মোতায়েন করা হয়েছে। এমনটাই বিস্ফোরক তথ্য সামনে এসেছে। সামরিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, পাকিস্তানকে সরাসরি লালফৌজের সমরঘাঁটিতে পরিণত করে ফেলেছে চিন। আর তা করে ভারতের বিরুদ্ধে একেবারে যুদ্ধের প্রস্তুতি চিনের সেনাবাহিনী। প্যাট্রল পয়েন্ট ১৪-তে ভারতীয় সেনাই এতদিন ধরে টহল দিয়ে এসেছে। এবার সেই পয়েন্টের রাস্তা বন্ধ হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। কারণ, স্ট্র্যাটেজিক ওয়াই নালা ঘিরে রেখেছে চিনের সেনা। ওই জায়গাতেই বাঁক নিয়েছে গালওয়ান নদী। কোলকাতা২৪।
পড়া হয়েছে 13 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: রবিবার, 28 জুন 2020 20:22

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা