01282021বৃহঃ
শুক্রবার, 11 ডিসেম্বর 2020 20:05

বিয়ের পরেও যৌনতায় অনীহা, বড় সংকটে ভুগছে ভারতের বন্ধু দেশ

নিউজফ্ল্যাশ ডেস্ক: টোকিও: বর্তমানে ভারতের সঙ্গে জাপানের বেশ সুসম্পর্কই বজায় রয়েছে। প্রকৃতপক্ষে চিন ও পাকিস্তান ছাড়া বিশ্বের বহু দেশের সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক বেশ মধুর। তবে এবার এক সংকটের মুখে জাপান। অদূর ভবিষ্যতেই বাচ্চা সংকটে পড়তে চলেছে টাইম পাংচুয়াল এশিয়ার এই দেশ। একটি সমীক্ষা জানাচ্ছে, এমনিতেই জাপানে বিপুল সংখ্যক মানুষ আজীবন অবিবাহিত থাকে। অন্যদিকে বিয়ে করার পরেও মানুষ যৌনতা থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে নিচ্ছে বলে একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে। এসব কারণে জাপানে বাচ্চাদের জন্মহারও হ্রাস পাচ্ছে। একটি রিপোর্ট বলছে, সারা জীবন অবিবাহিত থাকতে চান এমন মানুষের সংখ্যা জাপানে দিনে দিনে বাড়ছে। এই কারণে জাপানের জনসংখ্যায় বার্ধক্যের সংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। এই পরিস্থিতি উদ্বেগজনক এবং দেশের একটি বড় সংকট হিসাবে দেখা হচ্ছে। এমনকি এটি দেশের অর্থনীতিতেও প্রভাব ফেলছে। মারিকো নামের এক মহিলা জানিয়েছেন, সে তাদের এক বন্ধুকে নিয়ে চিন্তিত। কারণ তার বন্ধু একটি সন্তান চায়, কিন্তু তার স্বামী যৌনতায় ইচ্ছা প্রকাশ করে না। মারিকো নিজেও স্বামী, সন্তান চান, কিন্তু এখনও মন মতো সঙ্গী তিনি খুঁজে পাননি। চুও বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মাসাহিরো ইয়ামাদা জানিয়েছেন, সম্ভবত জাপানের ২৫ শতাংশ যুবক অবিবাহিত থাকবে। রিপোর্ট মোতাবেক, জাপানে সিঙ্গল মানুষের সংখ্যা গত তিন দশকে উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে। জাপানে সাধারণ রেওয়াজ রয়েছে যে মেয়েরা গৃহ কর্মে নিপুণা হবে ও পুরুষেরা অর্থ উপার্জন করবে। কিন্তু দেশের অর্থনীতির মন্দার জেরে বর্তমানে মহিলারাও ভালো আয়ের পার্টনার পাচ্ছেন না। অন্যদিকে দেশের প্রচুর লোক অতিরিক্ত কাজের চাপের ফলে অবিবাহিত থাকেন বলে উঠে এসেছে। ২০১৫ সালের একটি রিপোর্ট বলছে জাপানে ১৯৯২ সালের তুলনায় সিঙ্গল মহিলার সংখ্যা বেড়েছে ২২ লক্ষ ও সেখানে পুরুষের সংখ্যা বেড়েছে ১৭ লক্ষ। অন্যদিকে বর্তমানে জাপানের মোট জনসংখ্যা সাড়ে ১২ কোটি। পাঁচ বছর আগে এক সমীক্ষায় আরও জানা গিয়েছে যে, জাপানের প্রতি চারজন মহিলার মধ্যে একজন ও প্রতি তিনজনের মধ্যে একজন পুরুষ ৩০ পার করার পরেও বিয়ে করেননি। এই অর্ধেক লোক সম্পর্কের প্রতি আগ্রহী ছিলেন না।
পড়া হয়েছে 80 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: শুক্রবার, 11 ডিসেম্বর 2020 20:12