04052020রবি
শিরোনাম:
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক অঙ্গরাজ্যে আরও ৬৩০ জনের করোনাভাইরাসে মৃত্যু হয়েছে। যা একদিনে সবচেয়ে বেশি সংখ্যক মৃত্যুর রেকর্ড। এতে মৃতের মোট সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৩,৫৬৫ জনে। সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে নিউ ইয়র্ক সিটিতে। এই রাজ্যে এখন মোট আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখ ১৩ হাজারের বেশি, যা পুরো ইতালিতে আক্রান্তের প্রায় সমান হিসাবে। নিউ ইয়র্কের গভর্নর অ্যান্ড্রু কুওমো বলেছেন যে, এই সংক্রমণ চার থেকে ১৪ দিনের মধ্যে শীর্ষ পর্যায়ে পৌঁছাতে পারে। "আমার মনের একটা অংশ শীর্ষে যেতে চাইছে এবং বলছে চলুন মোকাবিলা করি। আবার মনের আরেক অংশ বলছে যে, আমরা যে শীর্ষে নেই এটাই ভাল। কারণ আমরা এখনও প্রস্তুত নই,"…
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: ইকুয়েডরের সবচেয়ে জনবহুল শহর গুয়াইয়াকিলে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে মানুষজন শুধুমাত্র জনাকীর্ণ হাসপাতাল মারা যাচ্ছে তা নয়, এখানে মানুষকে রাস্তায় মরে পড়ে থাকতে দেখা গেছে। বিবিসি বাংলা এ খবর দিয়েছে। কোভিড-১৯ এর কারণে বাড়িতে যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদের মরদেহগুলো সরিয়ে নিতেও কয়েকদিন সময় লেগে যাচ্ছে। কারণ মরদেহ সরিয়ে নেয়ার তালিকা আর এর জন্য অপেক্ষা দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে। গুয়াইয়াস প্রদেশে করোনাভাইরাসের কারণে পহেলা এপ্রিল পর্যন্ত ৬০ জনের মৃত্যু হয়েছে। পুরো ল্যাটিন অ্যামেরিকার সবগুলো দেশ মিলিয়ওে এই পরিমাণ মানুষ মারা যায়নি করোনাভাইরাসে। ভাইরাস শনাক্ত হয়েছে ১৯৩৭ জনের মধ্যে। প্রদেশটির রাজধানী গুয়াইয়াকিলেই মোট আক্রান্তের ৭০% রোগীর বসবাস। এটি বিশ্বের শীর্ষস্থানীয়…
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: করোনার ভয়াল থাবায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিনিয়ত বেড়েই চলছে মৃত্যুর সংখ্যা। প্রতিদিনই হচ্ছে মৃত্যুর রেকর্ড। গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাষ্ট্রে করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ১৪৮০ জন। জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিবেদনে এমনটি বলা হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বেশি মৃত্যু হয়েছে নিউ ইয়র্কে। রাজ্যটিতে এ পর্যন্ত মারা গেছেন ২ হাজার ৯৩৫ জন। যা নাইন ইলেভেনের টুইন টাওয়ারে সন্ত্রাসী হামলায় মৃতের সংখ্যাকে ছাড়িয়ে গেছে। ওই হামলায় নিউ ইয়র্কে ২ হাজার ৭শ জন নিহত হয়েছিলেন। যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭৭ হাজার ১৬১ জন। মারা গেছেন ৭ হাজার ৪০৬ জন।
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: ইতালির পর করোনার থাবায় লণ্ডভণ্ড ইউরোপের আরেক দেশ স্পেন। আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েই চলেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৮৬৪ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। একদিনে এই রেকর্ডসংখ্যক করোনা রোগীর মৃত্যুর মধ্য দিয়ে স্পেনে মৃতের সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়েছে। করোনায় প্রাণহানি ও অসুস্থদের হিসাব রাখা আন্তর্জাতিক সংস্থা ওয়ার্ল্ডওমিটারের দেয়া পরিসংখ্যান অনুযায়ী, স্পেনে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১০ হাজার ২৩৮ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন ১০ হাজার ৩ জন। সুস্থ্ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ২৬ হাজার ৭৪৩ জন। ভাইরাসটি প্রতিরোধে ইতিমধ্যে দেশটি লকডাউন করা হয়েছে। লকডাউন ভেঙে রাস্তায় বের হলে ধরপাকড়ের শিকার হচ্ছেন নাগরিকরা। জরিমানাও…
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: করোনাভাইরাস সংকট "ভাল হওয়ার আগেই পরিস্থিতি আরও খারাপ হবে" বলে সতর্ক করেছেন ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। শনিবার যুক্তরাজ্যের প্রতিটি পরিবারকে চিঠি পাঠিয়ে তিনি এই বার্তা দেন। বিবিসি বাংলা। ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ঠেকাতে প্রয়োজনে কঠোর বিধিনিষেধ আরোপ করা হতে পারে বলে তিনি ওই চিঠিতে জানিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের স্বাস্থ্য পরীক্ষায় কোভিড -১৯ ধরা পরার পর থেকে তিনি নিজেকে সবার থেকে আলাদা করে রেখেছেন। ওই চিঠির সাথে প্রত্যেক ব্রিটিশ নাগরিককে, বাড়ি ছেড়ে যাওয়ার বিষয়ে বিস্তারিত সরকারি নিয়মকানুন এবং স্বাস্থ্য সংক্রান্ত তথ্য সম্বলিত লিফলেটও দেয়া হয়েছে। সরকারী পরামর্শের স্পষ্টতা নিয়ে সমালোচনার পর এই পদক্ষেপ নেয়া হয়। ব্রিটেনে শনিবার আরও ২৬০ জন…
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে সহায়তার প্রস্তাব দিয়েছেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। এরই মধ্যে করোনার উৎপত্তি নিয়ে আবারও শুরু হয়েছে দেশ দুটির মধ্যে কাঁদা ছোঁড়াছুড়ি। যুক্তরাষ্ট্রের ইউরোপীয় মিত্র দেশ স্পেন, ইতালি ও ফ্রান্স ছাড়াও এশিয়ায় সবচেয়ে বড় মিত্র জাপান এখন করোনাভাইরাস নিয়ন্ত্রণে চীনের দিকে ঝুঁকে পড়ায় নতুন করে এ বিতর্কের জন্ম হয়েছে। খবর ফক্স নিউজ ও রয়টার্সের। যুক্তরাষ্ট্রের দাবি, চীন থেকে ছড়িয়েছে করোনাভাইরাস, এ ভাইরাসকে পুঁজি করে ব্যবসা শুরু করেছে চীন। আর চীনের দাবি, মার্কিন সেনাদের গবেষণাগার থেকে উহানে ছড়িয়েছে প্রাণঘাতী এ ভাইরাস। অর্থ, ওষুধ, নার্স ও চিকিৎসক দিয়ে ইউরোপসহ বিশ্বে অন্য যে কোন মহাদেশে…
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: বিশ্বে মহামারি আকারে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত ২৭ হাজার ৩৬০ জন মারা গেছেন। এ ভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ৫ লাখ ৯৭ হাজার জন। সুস্থ হয়েছেন ১ লাখ ৩১ হাজার মানুষ। শনিবার যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে এমনটি বলা হয়েছে। জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, করোনা ভাইরাসে ইতালিতে একদিনে ৯১৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে ইতালিতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৯ হাজার ১৩৪ জনে দাঁড়িয়েছে। আর আক্রান্ত হয়েছেন ৮৬ হাজারের বেশি মানুষ। যুক্তরাষ্ট্রেও করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ছাড়িয়েছে। দেশটিতে এ পর্যন্ত করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৪ হাজার জন। মারা গেছেন ১৭…
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। এই মূহুর্তে তিনি সেলফ আইসোলেশনে রয়েছেন। কিন্তু করোনায় আক্রান্ত হলেও সেলফ আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় কার্যক্রম চালিয়ে যাবেন বলে জানান তিনি। বিবিসি।
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক: বিশ্বের যে কোনো দেশের চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রে এখন করোনাভাইরাস আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেশি। সেখানে এখন পর্যন্ত ৮৩,৫০০ জনেরও বেশি মানুষের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। জন্স হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের সবশেষ তথ্য অনুযায়ী আক্রান্তের সংখ্যার হিসেবে চীন (৮১,৭২৮ জন) এবং ইতালিকে (৮০,৫৮৯) ছাড়িয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বিবিসি বাংলা। তবে ভাইরাসের প্রকোপে যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যুর সংখ্যা এই দুই দেশের তুলনায় কম। যুক্তরাষ্ট্রে ভাইরাসের কারণে এ পর্যন্ত মারা গেছেন প্রায় ১২০০ জন। যেখানে চীনে করোনাভাইরাসে মোট মৃত্যু হয়েছে ৩,২৯১ জনের এবং ও ইতালিতে মারা গেছেন ৮,২১৫ জন। হোয়াইট হাউজ কী প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছে? বৃহস্পতিবার বিকালে হোয়াইট হাউজে সংবাদ সম্মেলনের সময় যুক্তরাষ্ট্রের করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যা নিয়ে প্রশ্ন…
বুধবার, 25 মার্চ 2020 20:40

মক্কা-মদিনায় কারফিউ জারি

নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক : করোনাভাইরাসের বিস্তার প্রতিরোধে সৌদি আরবে আন্তঃপ্রদেশীয় যাতায়াত অনির্দিষ্ট কালের জন্যে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আর বৃহস্পতিবার (২৭ মার্চ) মক্কা, মদিনা ও রিয়াদে বিকাল ৩ টা থেকে সকাল ছয়টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করা হয়েছে। সৌদিতে গত রবিবার সন্ধ্যা ৭টা থেকে চলছে রাত্রিকালীন ২১ দিনের কারফিউ। এ আইন অমান্যকারীদের করা হচ্ছে ১০ হাজার সৌদি রিয়াল জরিমানা ও গ্রেপ্তার। এখন পর্যন্ত সাড়ে সাতশ’র বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে সৌদিতে। সেই সঙ্গে প্রথম একজন মারা গেছেন বলে নিশ্চিত করেছেন দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক : করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে ভারতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ঘোষণা করা দেশব্যাপী লকডাউন শুরু হয়েছে আজ থেকে। মধ্যরাতে শুরু হওয়া এই লকডাউন চলবে টানা ২১ দিন। বিবিসি বাংলা। টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে মিস্টার মোদী বলেছেন, "বাড়ির বাইরে ঘোরাফেরার উপর সম্পূর্ণ নিষেধাজ্ঞা থাকবে।" তার এই ঘোষণার পর পরই দেশটিতে শুরু হয় কেনাকাটার হিড়িক। রাজধানী দিল্লীসহ অন্য শহরগুলোতে ফার্মেসি ও সুপারমার্কেটের বাইরে লাইন ধরে দাঁড়িয়ে ওষুধ আর নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য কিনতে দেখা গেছে মানুষকে। তবে লকডাউন ঘোষণার পর এক টুইটার বার্তায় জনগণকে আতঙ্কিত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তিনি লিখেছেন, "প্রয়োজনীয় জিনিস এবং ওষুধ পর্যাপ্ত পরিমাণে রয়েছে। এগুলো নিশ্চিত…

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা