10212021বৃহঃ
শিরোনাম:
রবিবার, 16 মে 2021 20:39

মহাকাশে ইতিহাস তৈরী করল চিন! মঙ্গলে পৌঁছাল জুরং রোভার

  ছয় চাকাযুক্ত জুরং রোভার মঙ্গলের ইউটোপিয়া প্লানিটিয়ায় মিশন চালু করবে। ছয় চাকাযুক্ত জুরং রোভার মঙ্গলের ইউটোপিয়া প্লানিটিয়ায় মিশন চালু করবে।
নিউজফ্ল্যাশ ডেস্ক: বেজিং: চাঁদের (Planet Mars) পিঠে জুরং রোভারকে (Zhurong Rover) নামিয়ে ইতিহাস তৈরী করল চিন। সে দেশের সরকারি গণমাধ্যম এই তথ্য দিয়েছে। ছয় চাকাযুক্ত জুরং রোভার মঙ্গলের ইউটোপিয়া প্লানিটিয়ায় মিশন চালু করবে। যা গ্রহের উত্তর গোলার্ধে অবস্থিত একটি বিশাল ভূখণ্ড। রোভারটি মঙ্গল গ্রহে অবতরণের জন্য প্রটেক্টিভ ক্যাপসুল, একটি প্যারাসুট এবং একটি রকেট প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করেছিল। মঙ্গলে রোভার অবতরণ বেজিংয়ের একটি বড় জয়, কারণ মঙ্গল গ্রহের প্রতিকূল পরিবেশে অবতরণ করা খুব চ্যালেঞ্জের। আমেরিকা একমাত্র দেশ যা এখনও পর্যন্ত মঙ্গল গ্রহে সফলভাবে অবতরণ করেছে। এই অবতরণের পরে চীন মঙ্গলে রোভার অবতরণকারী দ্বিতীয় দেশ হিসাবে নিজের স্থান তৈরী করল। জুরং এর অর্থ ‘গড অফ ফায়ার’।রোভারটিকে তাইওয়ান-১(Tianwen-1)অর্বিটারের মাধ্যমে মঙ্গল গ্রহে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। ফেব্রুয়ারি মাস থেকে এটি মঙ্গলের কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করছে। ঠিক কোন জায়গায় রোভারটিকে নামানো হবে তা জানতে প্রায় আড়াই মাস ধরে ইউটোপিয়া প্লানিটিয়া অঞ্চলে জরিপ চালিয়েছিল চীন। এছাড়াও, অবতরণের জন্য নিরাপদ স্থান খুঁজতে ইউটোপিয়া প্লানিটিয়ার বিভিন্ন অঞ্চলের উচ্চ-রেজোলিউশন ছবি তুলেছিল। এই সমস্ত মিশনের লক্ষ্য ছিল যতদূর সম্ভব একটি নিরাপদ জায়গা সন্ধান করা, যাতে রোভারটিকে মঙ্গলে পাথুড়ে ভূখণ্ড থেকে রক্ষা করা যায়। পৃথিবী থেকে মঙ্গল গ্রহের দূরত্ব ৩২ কোটি কিলোমিটার। এর অর্থ মঙ্গল গ্রহ থেকে যে কোনও বার্তা পৃথিবীতে পৌঁছাতে ১৮ মিনিট সময় নেয়। এমন পরিস্থিতিতে, জুরং রোভারটিকে মঙ্গলে পৌঁছানোর প্রতিটি পদক্ষেপ স্বাধীনভাবে দিতে হয়েছিল।গ্রহের বায়ুমণ্ডলে প্রবেশ, অবতরণ কৌশল ঠিক একই ছিল। পূর্বনির্ধারিত সময়ে অ্যারোশেলের অভ্যন্তরে যে রোভারটি তালাবদ্ধ ছিল তা তাইওয়ান-১ কক্ষপথ থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল এবং তারপরেই পৃষ্ঠের দিকে যেতে শুরু করে। মঙ্গল গ্রহের দিকে যাওয়ার সময়, অ্যারোশেল ক্যাপসুলটিকে প্রচন্ড তাপের সম্মুখীন হতে হয়। সেইকারণে এর গতি হ্রাস করতে হয়। তারপরে একটি প্যারাসুট খোলে এবং সেটি রোভারের গতি নিয়ন্ত্রণ করে অবতরণের জায়গায় নিয়ে যেতে শুরু করে। তারপর রোভারটি ধীরে ধীরে মঙ্গলের পৃষ্ঠে অবতরণ করে। অ্যারোশেলের ভিতরে থেকে বেরিয়ে আসে। এটি একটি কঠিন চ্যালেঞ্জ।তবে চীন আবার মহাকাশ শক্তিতে নিজেদের ক্ষমতা প্রমান করল। বেইজিং এর আগে চাঁদে দুটি রোভার অবতরণ করেছে।
পড়া হয়েছে 136 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: রবিবার, 16 মে 2021 20:43

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা