02272020বৃহঃ
বুধবার, 12 ফেব্রুয়ারী 2020 06:41

এখন প্যারোলেও খালেদার মুক্তি চায় পরিবার

ফাইল ছবি ফাইল ছবি
নিউজ ফ্ল্যাশ প্রতিবেদক চিকিৎসার স্বার্থে মানবিক দিক বিবেচনা করে এখন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি চেয়েছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার সঙ্গে গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে সাক্ষাৎ শেষে তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে সরকারের প্রতি এই আহ্বান জানানো হয়েছে। খালেদা জিয়ার সেজো বোন সেলিমা ইসলাম পরিবারের পক্ষে এই দাবি তুলে ধরে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আজকে তার (খালেদা জিয়া) শরীর খুবই খারাপ। শ্বাসকষ্টে ভুগছে। একদম কথাই বলতে পারছে না। সরকারকে বলছি এটা বিবেচনা করুন। তার এই শারীরিক অবস্থা, শ্বাসকষ্ট, বয়স তাদের (সরকার) বিবেচনা করা উচিত। মানবিক দিক বিবেচনা করে তাকে মুক্তি বা জামিন দেওয়া উচিত। সরকারের কাছে আমরা তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবি জানাচ্ছি। অন্তত উন্নত চিকিৎসা যাতে করাতে পারি সেই সুযোগটুকু দেওয়া হোক।’ সেলিমা ইসলাম বলেন, ‘সে (খালেদা জিয়া) পাঁচ মিনিটও দাঁড়াতে পারছে না। বেড থেকে সামান্য দূরত্বের বাথরুমে যেতেও তার ২০ মিনিট সময় লেগে যাচ্ছে। বাঁ হাত সম্পূর্ণ বেঁকে গেছে। এখন ডান হাতটাও বেঁকে যাচ্ছে। সে খেতে পারছে না, খেলেই বমি হয়ে যাচ্ছে। জ্বর আছে গায়ে, শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা। এ অবস্থায় তার উন্নত চিকিৎসা খুবই প্রয়োজন। এই মুহূর্তে উন্নত চিকিৎসা না দেওয়া গেলে তার শারীরিক অবস্থা যে কী হবে আমরা বুঝতে পারছি না।’ পরিবারের পক্ষ থেকে সরকারের কাছে এ ব্যাপারে কোনো আবেদন করা হয়েছে কি না জানতে চাইলে সেলিমা ইসলাম বলেন, ‘আমরা এখনো কারো কাছে আবেদন করিনি। কিন্তু আমরা জাতির কাছে, দেশবাসীর কাছে আবেদন জানাচ্ছি; আপনারা সবাই তার জন্য দোয়া করবেন এবং সে যেন মুক্তি পায় সেই চেষ্টাও আপনারা করবেন।’ বিএসএমএমইউয়ের ভাইস চ্যান্সেলরের কাছে পরিবারের পক্ষ থেকে আপনার ভাই একটি আবেদন দিয়েছেন, সেটি কী—সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সেলিমা ইসলাম বলেন, ‘এটা খালেদা জিয়ার মুক্তি, নিঃশর্ত মুক্তি। তাকে তো মিথ্যা একটা মামলায় সাজা দেওয়া হয়েছে। আজ দুই বছর ধরে সে অন্তরিন। তার শারীরিক অবস্থা ভালো নয়। সে যে অবস্থায় এসেছিল (কারাগারে), এখন তো সেই অবস্থায় নেই। সে আগে হেঁটে চলে বেড়াত। আর এখন তো সে পাঁচ মিনিটও দাঁড়াতে পারছে না। এখানে ডাক্তাররা যে চিকিৎসা দিচ্ছেন, তাতে কোনো উন্নতি হচ্ছে না। ডায়াবেটিস কোনোভাবেই নিয়ন্ত্রণে আসছে না। আজও তার ফাস্টিং সুগার ছিল ১৪-১৫।’ গতকাল বিকেল সাড়ে ৩টায় খালেদা জিয়ার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে যান পাঁচ স্বজন—সেজো বোন সেলিমা ইসলাম, ছোট ভাইয়ের স্ত্রী কানিজ ফাতিমা, তাঁর ছেলে অভিক এস্কান্দার, তারেক রহমানের স্ত্রীর বড় বোন শাহিনা জামান খান বিন্দু ও কোকোর শাশুড়ি ফাতিমা রেজা। প্রায় ঘণ্টাখানেক সেখানে অবস্থান করেন তাঁরা।
পড়া হয়েছে 20 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: বুধবার, 12 ফেব্রুয়ারী 2020 06:54

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা