05092021রবি
শিরোনাম:
নিউজফ্ল্যাশ ডেস্ক: মুম্বই: মারাত্মক দুর্ঘটনার হাত থেকে বাঁচলো নাগপুর-হায়দরাবাদগামী এয়ার অ্যাম্বুল্যান্স (Air Ambulance)। যান্ত্রিক ত্রুটির কারণে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সটিকে মুম্বইয়ে জরুরি অবতরণ (Emergency Landing) করতে হয়। বিমানটির এমার্জেন্সি ল্যান্ডিং করে মারাত্মক বিপদ থেকে বাঁচান পাইলট। জেট সার্ভ এভিয়েশন পরিচালিত C-90 VT-JIL বিমান সফলভাবে মুম্বই বিমান বন্দরে অবতরণ করে। জানা গিয়েছে, নাগপুর থেকে হায়দরাবাদ যাচ্ছিল বিমানটি। তাতে ছিলেন একজন রোগী ও একজন চিকিৎসক। কিন্তু আকাশে ওড়ার পরই বিমানটির যন্ত্রাংশে ত্রুটি আছে বুঝতে পারেন বিমান চালক। বিমানের একটি চাকা খুলে মাটিতে পড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে চালক সিদ্ধান্ত নেন সেটিকে এমার্জেন্সি ল্যান্ডিং (Emergency Landing) করবেন। পরিকল্পনা মতো, মুম্বই বিমানবন্দরে সেটিকে ল্যান্ডিং করা হয়। জানা গিয়েছে, রোগী, চিকিৎসক ও বিমানকর্মীরা সকলেই নিরাপদে ও সুরক্ষিত আছেন। তবে অবতরণ খুব সহজ ছিল না। ল্যান্ডিং গিয়ার ব্যবহার না করে বেলি ল্যান্ডিংয়ের পরিকল্পনা করেছিলেন বিমান চালক। অর্থাৎ বিমানের চাকা ভিতরে না ঢুকিয়েই তাকে মাটিতে নামিয়ে আনা। সেই কারণে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে রানওয়েতে ফোমের বন্দোবস্ত করেছিলেন বিমানবন্দরের কর্মীরা। যাতে কোনও ভাবেই বিমানটিতে আগুন ধরে যায়। বিমানচালক কেশরী সিং জানিয়েছেন, ‘‘যখন দেখলাম বিমানটির চাকা খুলে পড়ে গিয়েছে, তখন বুঝেছিলাম নামতে হলে অনেকটা জ্বালানি পোড়াতে হবে। আমি বেলি ল্যান্ডিংয়ের পক্ষে ছিলাম। তবে জানতাম না রানওয়ের কোনও ক্ষতি হবে কিনা। অবশেষে সব কিছু ঠিক ভাবে মেটায় এবার স্বস্তি পাওয়া গেল।’’ বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন বেলি ল্যান্ডিং বেশ ঝুঁকিপূর্ণ হলেও বিমান চালক অত্যন্ত তৎপরতার সঙ্গে কাজটি করছেন এবং সবাইকে নিরাপদে বিমান থেকে বার করা সম্ভব হয়েছে। বিমানটিতে দুই ক্রু সদস্য, একজন রোগী, তার আত্মীয় এবং একজন চিকিৎসক ছিলেন। বৃহস্পতিবার রাত নয়টায় বিমানটি বিমানবন্দরে অবতরণ করেছে।
নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক: অভ্যন্তরীণ রুটে সীমিত পরিসরে ফের চালু হচ্ছে ফ্লাইট। কক্সবাজার ছাড়া অন্য অভ্যন্তরীণ রুটে আগামীকাল বুধবার থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে ফ্লাইট চলাচল শুরু হচ্ছে। বিমানবন্দরে সামাজিক দূরত্ব বাজায় রাখার পাশাপাশি কেবিন ক্রু ও যাত্রীদের মাস্ক, গ্লাভস, ফেসশিল্ড পরতে হবে। এ ছাড়া উড়োজাহাজের পেছনের এক সারি সিট খালি লাখতে হবে। আজ মঙ্গলবার রাতে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) গ্রুপ ক্যাপ্টেন চৌধুরী জিয়া উল কবির স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত আদেশ জারি করা হয়েছে। তবে রাতে সার্কুলার জারি করে সকালে যাত্রীদের ‘কঠোর লকডাউন’ মধ্যে বিমানবন্দরে আসা-যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে। যদিও দেশের বিমান সংস্থাগুলো বেবিচকের ‘গ্রীন সিগনাল’ পেয়ে আগেই প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। তারা বলছে, বেবিচকের নিদের্শনা মেনে ফ্লাইট চালু করতে তাদের কোন অসুবিধা হবে না। যদিও সর্বাত্মক লকডাউনের মেয়াদ আরো এক সপ্তাহ বাড়ানোর সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে সোমবার অপর এক আদেশে আন্তর্জাতিক ও অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চলাচলে বিধিনিষেধও সাত দিন বাড়ানো হয়েছে। তবে এই সময় প্রবাসীদের জন্য বিশেষ ফ্লাইট এবং অনুমতি নিয়ে কার্গো উড়োজাহাজ, বিশেষ বা চাটার্ড ফ্লাইট, এয়ার অ্যাম্বুলেন্স চলাচল করতে পারবে। একইসঙ্গে প্রবাসীদের আনা-নেয়ার জন্য সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, সিঙ্গাপুর, কাতার ও ওমানে বিশেষ ফ্লাইটগুলো আগের মতোই চলবে বলেও জানানো হয়। বেবিচক সূত্র জানিয়েছে, অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে। একইসঙ্গে পূর্নদ্দোমে ফ্লাইট চালানোর অনুমতি দেওয়া হবে না। ফলে সবগুলো গন্তব্যে সক্ষমতার চেয়ে কম কম যাত্রী পরিবহন করতে হবে বিমান সংস্থাগুলোকে। এর আগে, 'কঠোর লকডাউন’ শুরু হওয়ায় গত ৫ এপ্রিল থেকে দেশের সব অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট স্থগিত রাখার ঘোষণা দেয় বেবিচক। ১৬ দিন বন্ধ থাকার পর আবার ফ্লাইট চালু হচ্ছে। এতে দেশের বিমান সংস্থাগুলো বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে। জানতে চাইলে বেবিচকের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান মঙ্গলবার সন্ধ্যায় কালের কণ্ঠকে বলেন, বুধবার থেকে সীমিত পরিসরে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চালু হচ্ছে। কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি বাস্তবায়ন করা হবে। বিমান সংস্থাগুলো আপাতত তিন ভাগের এক ভাগ ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারবে। পাঁচটি আন্তর্জাতিক রুটের যাত্রীরাও এসব অভ্যন্তরীণ ফ্লাইটে নিজ নিজ গন্তব্যে যেতে পারবে। এতো কম সময়ের ব্যবধানে ফ্লাইট চালু করে যাত্রীদের জানতে এবং বিমানবন্দরে পৌঁছতে অসুবিধা হবে কি না জানতে চাইলে বেবিচক চেয়ারম্যান বলেন, আমরা ফ্লাইট চালুর সুযোগ করে দিচ্ছি। এখন এয়ারলাইনগুলো যাত্রীদের জানাবে। হয়তো বুধবার থেকে সবাই ফ্লাইট চালু করবে না, আর করলেও কেউ কেউ হয়তো দুপরের পর চালু করবে। জানতে চাইলে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নভো এয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মফিজুর রহমান কালের কণ্ঠকে বলেন, আমরা মৌখিকভাবে জেনেছি, লিখিত নিদের্শনা হয়তো পেয়ে যাব। আমাদের সিডিউলের তিনভাগের এক ভাগ ফ্লাইট পরিচালনা করতে পারব। এ ছাড়া স্বাস্থ্যবিধিসহ অন্যান্য নিয়মকানুন আগের মতোই থাকবে বলে জেনেছি। ফ্লাইট চালুর ব্যাপারে আমরা প্রস্তুত আছি। লকডাউনের ভেতরে যাত্রীরা কিভাবে বিমানবন্দর থেকে আসা-যাওয়া ও গন্তব্যে পৌঁছবে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আন অফিসিয়ালি তো মানুষের চলাফেরা চলছে। তাছাড়া বিমানযাত্রীদের ছাড় দেওয়ার কথা। করোনার প্রথম ঢেউয়ে গত বছর ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটিতে টানা ফ্লাইট বন্ধ ছিল। এতে বড় ধরনের আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়ে এয়ারলাইনসগুলো। গত ১৬ দিনের বন্ধে সেই ক্ষতি আরো বাড়ল বলে জানালেন বেসরকারি ইউএস-বাংলা এডারলাইন্সের জেনারেল ম্যানেজার (পাবলিক রিলেশনস) মো. কামরুল ইসলাম। মঙ্গলবার তিনি কালের কণ্ঠকে বলেন, ১৬ দিনের লকডাউনে আমাদের অনেক ক্ষতি হয়েছে। আমরা জিরো রেভিনিউ নিয়ে এই ১৬ দিন পার করলাম। ফ্লাইট চালুর প্রস্তুতি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যাত্রীরা অনলাইনের মাধ্যমে জেনে যাবে। অনেক টিকেট যাত্রীরা আগেই কিনে রেখেছেন। তারা হয়তো রিশিডিউল করে নেবেন। প্রথম দিন হয়তো কিছুটা অসুবিধা হতে পারে। আমরা ফ্লাইট শুরু করে দেব। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনস : বুধবার থেকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, যশোর, সৈয়দপুর ও বরিশাল রুটে ইউএস-বাংলার ফ্লাইট পরিচালনা করবে। রাজধানী ঢাকা থেকে চট্টগ্রামে তিনটি, সিলেটে দুটি, যশোরে দুটি, সৈয়দপুরে দুটি ও বরিশালে একটি ফ্লাইট পরিচালনা শুরু করতে যাচ্ছে। ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স ৭টি ব্র্যান্ডনিউ এটিআর ৭২-৬০০ ও তিনটি ড্যাশ ৮-কিউ৪০০ এয়ারক্রাফট দিয়ে অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইটগুলো পরিচালনা করবে। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে সকাল ১০ টা, দুপুর ২টা১৫ মিনিট ও বিকাল ৫টা ২০মিনিটে এবং চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে সকাল ১১টা ২৫ মিনিট, দুপুর ৩টা ৪০ মিনিট ও সন্ধ্যা ৭ টায়। ঢাকা থেকে সিলেটের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে সকাল ৮ টা, সন্ধ্যা ৭টা এবং সিলেট থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে সকাল ৯টা ২০ মিনিট ও রাত ৮টা ২০মিনিটে। ঢাকা থেকে সৈয়দপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে সকাল ১০ টা ১৫ মিনিট ও বিকাল ৫টা ১৫মিনিটে এবং সৈয়দপুর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে সকাল ১১টা ৪৫ মিনিট ও সন্ধ্যা ৭ টায়। ঢাকা থেকে যশোরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে সকাল ৯ টা ও বিকাল ৫টা ৩০মিনিটে এবং যশোর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে সকাল ১০টা ১৫ মিনিট ও সন্ধ্যা ৭ টায়। ঢাকা থেকে বরিশালের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে সকাল ৯টা ৩৫ মিনিটে এবং বরিশাল থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে। ঢাকা থেকে চট্টগ্রামের ওয়ান ওয়ের জন্য নূন্যতম ভাড়া সকল প্রকার ট্যাক্স ও সারচার্জ সহ তিন হাজার ৪৯৯ টাকা ও রিটার্ন ভাড়া ছয় হাজার ৮৯৮টাকা। এ ছাড়া ঢাকা থেকে সৈয়দপুর, সিলেট, যশোর ও বরিশালে নূন্যতম ভাড়া ওয়ান ওয়ের জন্য তিন হাজার ৩৯৯টাকা আর রিটার্ন ভাা ছয় হাজার ৬৯৮ টাকা। নভোএয়ার : বুধবার থেকে নভোএয়ার চট্টগ্রামে তিনটি, সিলেটে, যশোর ও সৈয়দপুরে দুটি করে এবং বরিশালে একটি ফ্লাইট পরিচালনা করবে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস: বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস বৃহস্পতিবার থেকে ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম, সিলেট, বরিশাল, যশোর ও সৈয়দপুরে ফ্লাইট পরিচালনা করবে।
নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক: সৌদিগামী যেসব যাত্রীরা গত ১৪ এপ্রিল থেকে ফ্লাইট মিস করেছেন তাদের জন্য আগামী রবিবার (১৮ এপ্রিল) থেকে সৌদি এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট চালু করা হবে। শনিবার (১৭ এপ্রিল) দুপুর ২টার দিকে সৌদি এয়ারলাইন্সের প্রধান শাখার ম্যানেজার জাহিদুল আমিন প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন। জাহিদুল আমিন বলেন, ‘১৪ থেকে ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত যারা যারা ফ্লাইট মিস করেছেন বা যেতে পারেননি তাদের প্রত্যেককে সৌদি আরবে পাঠানোর ব্যবস্থা করা হবে। আগামীকাল রবিবার থেকে ১৪ তারিখের যাত্রীদের ফ্লাইট শুরু হবে। এরপর পর্যায়ক্রমে ১৫ এপ্রিলের টিকিট সোমবার (১৯ এপ্রিল), ১৬ এপ্রিলের টিকিট মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল), ১৭ এপ্রিলের টিকিট বুধবার (২১ এপ্রিল) এবং ১৮ এপ্রিলের টিকিট বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) দেওয়া হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘১৯ থেকে ২২ এপ্রিল পর্যন্ত ফ্লাইটের সৌদি যাত্রীদের পরবর্তীতে তারিখ জানানো হবে।’ জানা গেছে, লকডাউনের কারণে বিভিন্ন বিশেষ ফ্লাইটের ১৪টির মধ্যে ৭টিই বাতিল করা হয়েছে। এরআগে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেছেন, প্রবাসী কর্মীদের বিষয়টি মাথায় রেখেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হচ্ছে।
নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক: মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল এবং নুজহাত চৌধুরী দম্পতির ২৫ তম বিবাহ বার্ষিকী আজ। অত্যন্ত মানবিক এবং মিষ্টি এই দম্পতির দুজনেই পেশাগত জীবনে অত্যন্ত সফল। অধ্যাপক ডা. মামুন আল মাহতাব (স্বপ্নীল) তিনি চেয়ারম্যান, লিভার বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় এবং শহীদ বুদ্ধিজীবি কন্যা অধ্যাপক ডা. নুজহাত চৌধুরী, অধ্যাপক চক্ষু বিজ্ঞান বিভাগ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ অপথ্যালমোলজি সোসাইটির বিনোদন সম্পাদক এবং একাডেমি অব অপথ্যালমোলজির কোষাধ্যক্ষ। সম্প্রতি বাংলাদেশ এর সদস্য সচিব। উল্লেখ্য করোনাকালীন সময়ে নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালন ও বিশেষ সেবার জন্য ‘পাওয়ার কাপল‘ অ্যাওয়ার্ড পান এই অতি গুনি চিকিৎসক দম্পতি মামুন আল মাহতাব স্বপ্নীল ও নুজহাত চৌধুরী শম্পা। ২৫ তম বিবাহ বার্ষিকীতে নিউজফ্ল্যাশ ২৪ বিডি ডটকম পরিবারের পক্ষ থেকে তাদেরকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।
নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক: করোনাভাইরাসের সংক্রমণ উদ্বেগজনক হারে বাড়তে থাকায় আগামী সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে সারাদেশে এক সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করছে সরকার। সারাদেশে যাত্রীবাহী নৌযান ও যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল বন্ধ ঘোষণার পর এবার অভ্যন্তরীণ সব রুটের ফ্লাইট বন্ধ ঘোষণা করেছেন বেবিচক। শনিবার (৩ এপ্রিল) লকডাউনে অভ্যন্তরীণ সব রুটের ফ্লাইট বন্ধ থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) বেবিচকের জনসংযোগ কর্মকর্তা কামরুজ্জামান সোহেল। এসময় তিনি বলেন, লকডাউনের সময় অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বন্ধ থাকবে মর্মে সিদ্ধান্ত হয়েছে। সরকার থেকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। এখনো প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়নি। সরকারের লকডাউন বিধির ওপর ভিত্তি করে বিমান কর্তৃপক্ষ নোটিশ জারি করবে। করোনা পরিস্থিতির ক্রমাগত অবনতি হওয়ায় আগামী সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে এক সপ্তাহের জন্য সারাদেশে লকডাউন ঘোষণা করছে সরকার। শনিবার (৩ এপ্রিল) এ তথ্য জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ওবায়দুল কাদের বলেন, আগামী সোমবার (৫ এপ্রিল) থেকে ১২ এপ্রিল পর্যন্ত সারাদেশে লকডাউন ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। লকডাউনের সময় শপিং মল ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া সবাইকে ঘরে থাকতে হবে। গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। তবে জরুরি সেবা দেয় এমন প্রতিষ্ঠান খোলা থাকবে। শিল্প-কলকারখানা খোলা থাকবে।
নিউজফ্ল্যাশ ডেস্ক: করোনার অভিঘাতে ইংল্যান্ড ছাড়া পুরো ইউরোপ এবং বিশ্বের অন্যান্য অঞ্চলের ১২টি দেশ থেকে বাংলাদেশে যাত্রী পরিবহন দুই সপ্তাহের জন্য নিষিদ্ধ করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। আজ বৃহস্পতিবার (১ এপ্রিল) সকালে এক বিজ্ঞপ্তিতে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) জানিয়েছে, ইউরোপের বাইরের অন্তত ১২টি দেশ থেকে কেউ বাংলাদেশ প্রবেশ করতে পারবে না। সেই ১২ দেশের মধ্যে রয়েছে আর্জেন্টিনা, বাহরাইন, ব্রাজিল, চিলি, জর্ডান, কুয়েত, লেবানন, পেরু, কাতার, দক্ষিণ আফ্রিকা, তুরস্ক ও উরুগুয়ে। বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের সব দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের যোগাযোগ বন্ধ থাকবে। যুক্তরাজ্য ছাড়া ইউরোপের কোনো দেশ থেকেই সরাসরি বাংলাদেশে আসা যাবে না। আগামী শনিবার (৩ এপ্রিল) থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হয়ে বলবৎ থাকবে ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত। গত বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা সংক্রমণ শনাক্ত হওয়ার পর ১৮ মার্চ প্রথম মৃত্যুর ঘটনা ঘটে। এরপর টানা কয়েক মাস করোনার তাণ্ডব চলে। গত ডিসেম্বরের মাঝামাঝি সময় থেকে পরিস্থিতি ক্রমে শিথিল হয়ে আসছিল। কিন্তু হঠাৎ করেই গত দু-তিন সপ্তাহ ধরে করোনায় সংক্রমণ ও মৃত্যু ব্যাপকভাবে বেড়ে যায়।
আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি: সুবর্ণ জয়ন্তী ও বাংলাদেশ স্বল্লোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ হওয়ায় আমতলী উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কবুতর রেসিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটা থেকে এ কবুতর রেসিং অনুষ্ঠিত হয়। এতে আমতলী কবুতর ক্লাব সভাপতি মোঃ হাজী সেলিমের কবুতর প্রথম হয়। সুবর্ণ জয়ন্তী ও বাংলাদেশ স্বল্লোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণ হওয়ায় আমতলী উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে কবুতর রেসিং প্রতিযোগীতার আয়োজন করে। রোববার সকালে অনুষ্ঠানিকভাকে সমুদ্র সৈকত কুয়াকাটা থেকে ২০ জোড়া কবুতর ছাড়া হয়। চিহিৃত করতে কবুতরের পাখায় কবুতর ক্লাবের সিল দেয়া হয়। ২০ জোড়া কবুতরের মধ্যে আমতলী কবুতর ক্লাব সভাপতি মোঃ গাজী সেলিমের কবুতর ১৪ মিনিট ৩০ সেকেন্ডে এসে প্রথম, আলমগীর মৃধার কবুতর ১৫ মিনিটে ৫৫ সেকেন্ড এসে দ্বিতীয় এবং এনায়েত হোসেন কবুতর ১৬ মিনিটে ৫৫ সেকেন্ডে আমতলীতে এসে তৃতীয় হয়। এ কবুতর রেসিং বিচারক ছিলেন আমতলী উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা অভিজিত কুমার মোদক। আমতলী উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা অভিজিত কুমার মোদক বলেন, সীল দেয়া ২০ জোড়া কবুতর কুয়াকাটা থেকে ছাড়া হয়েছে। ওই ৩০ জোড়ার মধ্যে সেলিমের কবুতর প্রথম, আলমগীর মৃধা কবুতর দ্বিতীয় এবং এনায়েত করিমের কবুতর তৃতীয় হয়েছে। ইউএনও মোঃ আসাদুজ্জামান বলেন, সুবর্ণ জয়ন্তী ও বাংলাদেশ স্বল্লোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে রুপান্তিত হওয়ায় আমতলীতে কবুতর রেসিং প্রতিযোগীতার আয়োজন করেছি। মনোমুগ্ধকর এ আয়োজন এই প্রথম আমতলীতে অনুষ্ঠিত হয়। তিনি আরো বলেন, সুবর্ণ জয়ন্তীর দিনটি স্বরনীয় করে রাখার জন্য এ কবুতর রেসিং’র আয়োজন।
নিউজফ্ল্যাশ ডেস্ক: নয়াদিল্লি: মাস্ক না পরার জন্য় তাঁকে নিরাপত্তা রক্ষীদের হাতে তুলে দেওয়া হল ইন্ডিগো বিমানের এক যাত্রীকে। বেঙ্গুালুরু থেকে কলকাতাগামী ওই বিমানে সওয়ার হয়েছিলেন তিনি। সরকারি সূত্রে খবর, বারবার বলা সত্ত্বেও ওই ব্যক্তি কোনও মতেই মাস্ক পরছিলেন না। তাই বিমানবন্দরে নামার পর তাঁকে নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। ডায়রেক্টর জেনারেল অফ সিভিল অ্যাভিয়েশন (DGCA) গত শনিবার জানিয়েছিলেন, বিমানে যাত্রীদের মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক। মাস্ক না পারলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নেওয়াপ কথাও বলা হয়েছিল। সেই মতো ওই যাত্রীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ইন্ডিগোর 6E938 বেঙ্গালুরু-কলকাতা বিমানে শনিবার ওঠেন ওই যাত্রী। ফ্লাইট ক্রু বারবার বলা সত্ত্বেও তিনি মাস্ক পরেননি। তাই কলকাতা বিমানবন্দরে বিমান নামার পরই তাঁকে নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে তুলে দেওয়া হয়। এই সপ্তাহের গোড়ার দিকে গোয়া-মুম্বই বিমানের ২ জন যাত্রীকে করোনা বিধি না মানার কারণে বিমানে উঠতে দেয়নি এয়ার এশিয়া। গত শনিবার DGCA-র তরফে যে নির্দেশিকা জারি করা হয়েছিলেন সেখানে লেখা ছিল যে , “যদি কোনও যাত্রী বিমানের মধ্যে সঠিকভাবে মাস্ক না পরেন, সামাজিক দূরত্ববিধি ও অন্যান্য করোনাবিধি যদি না মানেন তাহলে ওই যাত্রীকে অবাঞ্চিত যাত্রী হিসাবে বিবেচনা করা হবে। বিমানবন্দরে থাকা সিআইএসএফ বা পুলিশের নজরে কোভিড বিধি না মানার বিষয়টি নজরে এলে তাঁরা সংশ্লিষ্ট যাত্রীকে সতর্ক করবেন। তাঁদের সতর্ক বার্তা না মানলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ” নির্দেশিকায় এও বলা ছিল, যাত্রীরা “ব্যতিক্রমী” পরিস্থিতি বাদে নাকের নীচে তাদের মাস্ক সরাতে পারবেন না। বিমানবন্দরগুলোতে মোতায়েন করা নিরাপত্তা কর্মীদের নিশ্চিত করতে হবে যাত্রীরা প্রত্যেকে COVID-19 বিধি মেনে চলছেন। করোনা ভাইরাসের জেরে দেশব্যাপী লকডাউন ঘোষণার পরে সমস্ত যাত্রীদের জন্য বিমান চলাচল নিষিদ্ধ করেছিল কেন্দ্রীয় সরকার। তবে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের অনুমোদনের পরে গত বছরের ২৫মে থেকে ‘গ্রেড পদ্ধতিতে’ ফ্লাইটগুলি আবার শুরু হয়েছিল। তারপর থেকে, বেসামরিক বিমান চলাচল মন্ত্রক এবং ডিজিসিএ মাস্ক ব্যবহার বাধ্যতামূলক এবং বিমানবন্দর টার্মিনাল এবং বিমানের অভ্যন্তরে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার বিষয়ে বিস্তৃত প্রোটোকল প্রকাশ করেছে। এদিকে দেশজুড়ে ক্রমশই বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। এর মধ্য়ে সবচেয়ে বেশি করোনা ছড়িয়েছে মহারাষ্ট্রে। এই রাজ্যে আছড়ে পড়েছে করোনার সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ। হু-হু করে রাজ্যজুড়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। করোনা মোকাবিলায় ইতিমধ্যেই রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় কড়া সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার। জেলাগুলিতে কোথাও সম্পূর্ণ লকডাউন কোথাওবা আংশিক লকডাউন করে সংক্রমণে লাগাম টানার চেষ্টা করছে উদ্ধব ঠাকরের প্রশাসন। তবে এতকিছুতেও করোনার সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়া এড়ানো যাচ্ছে না। মহারাষ্ট্রের পাশাপাশি বেঙ্গালুরু সহ কর্নাটকের একাধিক শহরে বাড়ছে করোনা পরিস্থিতি। এই অবস্থায় মাস্ক ছাড়া বেঙ্গালুরু থেকেই বিমানে ওঠা যাত্রী মাস্ক ব্যবহার করলেন না।
নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক: মুজিব শতবর্ষ ও ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে নারী নির্মাতাদের নির্মিত চলচ্চিত্র নিয়ে বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম মুভমেন্টের আয়োজনে ও জয়িতা ফাউন্ডেশনের পৃষ্ঠপোষকতায় রাজধানীতে শুরু হচ্ছে ৩ দিনব্যাপী জয়িতা চলচ্চিত্র উৎসব ২০২১। ৬ মার্চ শনিবার সকল ১১ টায় শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত ও নৃত্যশালা মিলনায়তনে উৎসবের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা , এম পি। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জয়িতা ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফরোজা খান ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। এস এস কমিউনিকেশনের পরিকল্পনা ও সার্বিক ব্যবস্থাপনায় ৩ দিনব্যাপী এ উৎসবে প্রদর্শিত হবে কোহিনুর আক্তার সুচন্দার হাজার বছর ধরে , নারগিস আক্তারের মেঘলা আকাশ , সামিয়া জামানের রানী কুঠির বাকি ইতিহাস , মৌসুমীর কখনো মেঘ কখনো বৃষ্টি , শাহনেওয়াজ কাকলীর উত্তরের সুর ও নানজিবা খানের দা ওয়ান্টেড টুইন। জয়িতা চলচ্চিত্র উৎসব ২০২১-এ মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকছে চ্যানেল আই , জয়যাত্রা টেলিভিশন ও টেলিপ্রেস। উৎসবটিতে সহ -পৃষ্ঠপোষকতায় থাকছে ডায়মন্ড ওয়ার্ল্ড ও এয়ারলাইন্স পার্টনার ইউ বাংলা এয়ারলাইন্স। বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম মুভমেন্টের সভাপতি দিলদার হোসেন জানান , নারী চলচ্চিত্র নির্মাতাদের নির্মিত ছবি নিয়ে জয়িতা চলচ্চিত্র উৎসবটি প্রয়াত কথা সাহিত্যিক রাবেয়া খাতুনকে উৎসর্গ করা হয়েছে। ৮ মার্চ পর্যন্ত স্বাস্থ্যবিধি মেনে দর্শনার্থীদের জন্য প্রতিদিন দুপুর ৩ টা থেকে রাত ৯ টা পর্যন্ত চলবে এ উৎসব।
বুধবার, 24 ফেব্রুয়ারী 2021 19:30

দেশে পৌঁছেছে "আকাশ তরী"

নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক: বাংলাদেশ ও কানাডা সরকারের মধ্যে জিটুজি ভিত্তিতে ক্রয় করা ৩টি ড্যাশ-৮ উড়োজাহাজের ২য় উড়োজাহাজ আজ বিকেল ৫ টা ৪৫ মিনিটে দেশে পৌঁছেছে।গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই উড়োজাহাজের নাম রেখেছেন ‘‘আকাশ তরী’’। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী এমপি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উপস্থিত থেকে উড়োজাহাজটি গ্রহণ করেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোকাম্মেল হোসেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের চেয়ারম্যান মোঃ সাজ্জাদুল হাসান, বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মোঃ মফিদুর রহমান ও বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মোকাব্বির হোসেন প্রমূখ। উড়োজাহাজটি গ্রহণের পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী এমপি জানান- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরকে আধুনিকায়ন করার জন্য কাজ করছেন। তার অংশ হিসেবেই নতুন উড়োজাহাজ "আকাশ তরী" আজ দেশে এসেছে। আগামী ৪ মার্চ তৃতীয় ড্যাশ-৮ উড়োজাহাজটি দেশে এসে পৌঁছাবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধানে ইতোমধ্যেই বিমানের বহরে সম্পূর্ণ নতুন ও অত্যাধুনিক ১৩টি নিজস্ব উড়োজাহাজ যুক্ত হয়েছে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বহরে এই ড্যাশ- ৮ উড়োজাহাজগুলো যুক্ত হওয়ার ফলে বিমান তার অভ্যন্তরীণ ও স্বল্প দূরত্বের আন্তর্জাতিক রুট গুলোতে ফ্লাইট ফ্রিকোয়েন্সি বৃদ্ধি করবে। একই সাথে যাত্রীদের আরো উন্নত ইন-ফ্লাইট সেবা প্রদান করা সম্ভব হবে। কানাডার বিখ্যাত এয়ারক্রাফট নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডি হ্যাভিল্যান্ড নির্মিত অত্যাধুনিক নতুন ড্যাশ ৮-৪০০ চুয়াত্তর সিট সম্বলিত উড়োজাহাজ। পরিবেশবান্ধব এবং অত্যাধুনিক সুযোগ-সুবিধা সমৃদ্ধ এ উড়োজাহাজে রয়েছে হেপা (HEPA) ফিল্টার প্রযুক্তি যা মাত্র ৪ মিনিটেই ব্যাকটেরিয়া, ভাইরাসসহ অন্যান্য জীবাণু ধ্বংসের মাধ্যমে উড়োজাহাজের অভ্যন্তরের বাতাসকে সম্পূর্ণ বিশুদ্ধ করে যা সম্মানিত যাত্রীগণের যাত্রাকে করে তোলে অধিক সতেজ ও নিরাপদ। এছাড়াও এ উড়োজাহাজে বেশি লেগস্পেস, এল ই ডি লাইটিং এবং প্রশস্ত জানালা থাকার কারনে ভ্রমণ হয়ে উঠবে অধিক আরামদায়ক ও আনন্দময়। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের নতুন উড়োজাহাজটি বহরে যুক্ত হওয়ার পর উড়োজাহাজের সংখ্যা হবে ২০টি । তন্মধ্যে ১৫ টি নিজস্ব এবং ৫টি লীজ। নিজস্ব ১৫টির মধ্যে বোয়িং৭৭৭-৩০০ ইআর ৪টি, বোয়িং ৭৮৭-৮ ৪টি, বোয়িং ৭৮৭-৯ ২টি, বোয়িং ৭৩৭ ২টি এবং ড্যাশ-৮ ৩টি।

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা