06012020সোম
শনিবার, 04 এপ্রিল 2020 19:53

বরিশালে ক্ষুধার্ত কুকুরের পাশে মানবিক তরুন দল

বরিশাল ব্যুরো করোনাভাইরাসের প্রভাব মোকাবেলায় ২৬ মার্চ থেকে বরিশাল নগরীর সকল হোটেল-রেস্তোরা বন্ধ রয়েছে। এ অবস্থায় কর্মহীন শ্রমজীবি এবং নিন্ম আয়ের মানুষের পাশে খাদ্যসহায়তা দিচ্ছেন বরিশাল সদর আসনের সংসদ সদস্য ও পাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক শামিম, সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ, বাসদ এবং প্রশাসনসহ বিভিন্ন সংগঠন। ব্যক্তি উদ্যেগেও দেয়া হচ্ছে খাদ্যসহায়তা। কিন্ত গত ১০ দিন ধরে চরম খাদ্যসংকটে পড়েছে নগরীর শত শত বেওয়ারিশ কুকুর। নগরীর বিএম কলেজ এলাকার বাসিন্দা তম্ময় দাস জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধায় নতুন বাজার থেকে পাউরুটি ও কলা কিনে নেটের ব্যাগে নিয়ে বাসায় ফিরছিলেন এক বৃদ্ধ। কয়েকটি কুকুর রুটির লোভে ওই ব্যক্তির পিছু নিলে তিনি বাধ্যহন ক্ষুধার্ত কুকুরগুলোকে তার পাউরুটি খেতে দিতে। এ দৃশ্য তম্ময় দাসের মনে দাগ কাটে। ওই রাতেই তম্ময় ঘনিষ্ট কয়েকজন তরুনের সঙ্গে ঘটনাটি আলোচনা করে সিদ্ধান্ত নেন যে পরদিন শুক্রবার থেকে নগরীর অভূক্ত বেওয়ারিশ কুকুরগুলোকে তারা খাবার দেয়া শুরু করবেন। তম্ময় দাসের এ উদ্যেগে সামিল হন নতুন বাজার এলাকার তরুন ব্যবসায়ী স্বপন দে, বিএম কলেজ এলাকার সুমন হাওলাদার, কাউনিয়ার সুমন খানসহ আরও ৮/১০ জন তরুন। শুক্রবার বিকালে তম্ময়, স্বপন দে সহ ওই তরুনরা নগরীর বিএম কলেজ, নতুন বাজার, কাউনিয়া, সোবাহান মিয়ারপুল, মধু মিয়ারপুল, নথুল্লাবাদ, হাসপাতাল রোড এলাকায় ঘুরে ঘুরে বেওয়ারিশ কুকুরদের খাবার দেন। মুরগীর মাংস দিয়ে রান্না করা খিচুরী দেয়া কুকুরগুলোকে। গতকাল শনিবার মানবিক ওই তরুন দল নগরীর সদর রোড, নতুন বাজার, মুন্সীর গ্রেজসহ ১০টি স্পটে বেওয়ারিশ কুকুরদের খিচুরী ও বিস্কুট খেতে দেন। ব্যতিক্রমি এ উদ্যেগ প্রসঙ্গে স্বপন দে বলেন, বেওয়ারিশ কুকুরগুলো ক্ষুধায় কাতর হয়ে পড়েছে। এ কারনে কুকুরগুলো কোন মানুষ খাদ্যসামগ্রী নিয়ে গেলে তাদের পিছু নেয়। স্বপন দে বলেন, কুকুরগুলোর ক্ষুধার্ত মুখ দেখলে মন ভরাক্রান্ত হয়। তাই তারা কুকুরগুলোকে খাবার দেয়ার উদ্যেগ নিয়েছেন।
পড়া হয়েছে 32 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: শনিবার, 04 এপ্রিল 2020 19:58