08122020বুধ
শুক্রবার, 10 জুলাই 2020 19:06

করোনায় ২৪ ঘন্টায় আরও ৩৭ জনের মৃত্যু

বিশেষ প্রতিনিধি : দেশে করোনায় গত ২৪ ঘন্টায় আরও ৩৭ জন মারা গেছেন। এ পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ২৭৫ জনের। আজ শুক্রবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত নিয়মিত অনলাইন হেলথ বুলেটিনে অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা এসব তথ্য জানান। অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় হাসপাতাল এবং বাসায় সুস্থ হয়েছেন ১ হাজার ৮৬২ জন। গতকালের চেয়ে আজ ১ হাজার ৮৪৪ জন কম সুস্থ হয়েছেন। গতকাল সুস্থ হয়েছিলেন ৩ হাজার ৭০৬ জন। এ পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ৮৬ হাজার ৪০৬ জন। তিনি জানান, আজ শনাক্ত বিবেচনায় সুস্থতার হার ৪৮ দশমিক ৪২ শতাংশ। আগের দিন এই হার ছিল ৪৮ দশমিক ১৭ শতাংশ। আগের দিনের চেয়ে আজ সুস্থতার হার শূন্য দশমিক ২৫ শতাংশ বেশি। অতিরিক্ত মহাপরিচালক জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ১৩ হাজার ৪৮৮ জনের নমুনা পরীক্ষায় ২ হাজার ৯৪৯ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। গতকালের চেয়ে আজ ৪১১ জন কম শনাক্ত হয়েছেন। গতকাল ১৫ হাজার ৬৩২ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্ত হয়েছিলেন ৩ হাজার ৩৬০ জন। তিনি জানান, দেশে এ পর্যন্ত মোট ৯ লাখ ১৮ হাজার ২৭২ জনের নমুনা পরীক্ষায় ১ লাখ ৭৮ হাজার ৪৪৩ জনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মোট পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ১৯ দশমিক ৪৩ শতাংশ। গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা পরীক্ষার বিবেচনায় শনাক্তের হার ২১ দশমিক ৮৬ শতাংশ। আগের দিন এ হার ছিল ২১ দশমিক ৪৯ শতাংশ। আগের দিনের চেয়ে আজ শনাক্তের হার শূন্য দশমিক ৪ শতাংশ বেশি। ডা. নাসিমা সুলতানা জানান, ‘করোনাভাইরাস শনাক্তে গত ২৪ ঘন্টায় নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে ১৪ হাজার ৩৭৭ জনের। আগের দিন সংগ্রহ করা হয়েছিল ১৫ হাজার ৮৬২ জনের। গতকালের চেয়ে আজ ১ হাজার ৫ ৪৮৫টি নমুনা কম সংগ্রহ করা হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় দেশের ৭৭টি পরীক্ষাগারে নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ১৩ হাজার ৪৮৮ জনের। আগের দিন নমুনা পরীক্ষা হয়েছিল ১৫ হাজার ৬৩২ জনের। গত ২৪ ঘন্টায় আগের দিনের চেয়ে ২ হাজার ১৪৪টি কম নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তিনি জানান, মৃত্যুবরণকারীদের মধ্যে পুরুষ ২৯ জন এবং নারী আট জন। এ পর্যন্ত মারা গেছেন পুরুষ ১ হাজার ৭৯৯ জন এবং নারী ৪৭৬ জন; এদের মধ্যে শতাংশ বিবেচনায় পুরুষ ৭৯ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ এবং নারী ২০ দশমিক ৯২ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় ২৩ জন হাসপাতালে এবং ১৪ জন বাড়িতে মারা গেছেন। নাসিমা সুলতানা জানান, এ পর্যন্ত বিভাগওয়ারী ঢাকা বিভাগে ৫০ দশমিক ১১ শতাংশ, চট্টগ্রাম বিভাগে ২৬ দশমিক ৪৬ শতাংশ, রাজশাহী বিভাগে ৫ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ, খুলনা বিভাগে ৪ দশমিক শূন্য ৯২ শতাংশ, বরিশাল বিভাগে ৩ দশমিক ৬০ শতাংশ, সিলেট বিভাগে ৪ দশমিক ৩৫ শতাংশ, রংপুর বিভাগে ৩ দশমিক ১২ শতাংশ এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ২ দশমিক ৪২ শতাংশ লোক মারা গেছেন।
পড়া হয়েছে 34 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: শনিবার, 11 জুলাই 2020 20:02

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা