রবিবার, ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

৪৫ বছর পর ঢাকায় ফের দূতাবাস খুলল আর্জেন্টিনা

আর্জেন্টিনা ৪৫ বছর পর ঢাকায় পুনরায় দূতাবাস খুলেছে। আজ সোমবার আর্জেিন্টন সরকার এ দূতাবাস খুলে। দক্ষিন এশিয়ায় বাংলাদেশের ভৌগলিক কৌশলগত অবস্থানের পাশাপাশি, অর্থনৈতিকভাবে টেকসই একটি বিশাল অভ্যন্তরীণ বাজারের গুরুত্ব বিবেচনায় নিয়ে, বুয়েন্স এয়ার্স বাংলাদেশে ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে চাইছে।

সফররত আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্র, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ও উপাসনা মন্ত্রী সান্তিয়াগো আন্দ্রেস ক্যাফিয়েরো রাজধানীর বনানীতে আর্জেন্টিনার নতুন দূতাবাস উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ও বিপুল সংখ্যক সাংবাদকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘এটা বাংলাদেশ ও আর্জেন্টিনার সম্পর্ক উন্নয়নের প্রথম ধাপ।’ সর্বশেষ ফিফা বিশ্বকাপ চলাকালে আর্জেন্টিনা ফুটবল দলকে ব্যাপকভাবে সমর্থন দেয়ায় তিনি তার দেশের পক্ষ থেকে বাংলাদেশের জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘এটি আমাদের দুই দেশের জন্য এক আনন্দঘন মূহুর্ত।’ আর্জেন্টিনার ফুটবলের প্রতি বাংলাদেশী জনগণের ভালবাসার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, বাংলাদেশ ও আর্জেন্টিনার মধ্যে শুধুমাত্র কূটনৈতিক সম্পর্কই নয়, একটি আবেগের সম্পর্কও বিদ্যমান’।
১৯৭৮ সালে বাংলাদেশের তৎকালীন ক্ষমতাসীন সামরিক জান্তা সরকার আর্জেন্টিনার ঢাকাস্থ দূতাবাস বন্ধ করে দিয়েছিল। এরপর থেকে, আর্জেন্টিনায় ভ্রমণের জন্য ভিসার মতো কূটনৈতিক কার্যক্রমগুলো ভারতের দিল্লীতে অবস্থিত আর্জেন্টিনার দূতাবাস থেকে করা হতো।
আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, তারা দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের সম্ভাবনা কাজে লাগাতে চায়, বিশেষত বাণিজ্য ক্ষেত্রে। বাংলাদেশে বহুমুখী বাণিজ্যের ব্যাপক সম্ভাবনা রয়েছে।

ক্যাফিয়েরো ও আর্জেন্টিনার প্রেসিডেন্ট অ্যাবার্তো ফার্নান্দেজ স্বাক্ষরিত আর্জেন্টিনার ডিক্রিতে বলা হয়, ‘আর্জেন্টিনা রাজনৈতিক, কৌশলগত ও বাণিজ্যিক কারনে দেশের পররাষ্ট্র নীতি-নির্দেশনা অনুযায়ী, গনপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশে পুনরায় দূতাবাস খোলাকে সুবিধাজনক ও উপযুক্ত বিবেচনা করছে’।

মিশনটি উদ্বোধনের পর, রাষ্ট্রীয় অতিথিশালা যমুনায় পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. মোমেনের সাথে সান্তিয়াগো আন্দ্রেস ক্যাফিয়েরোর দ্বিপক্ষীয় বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় তাদের মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ ইস্যু নিয়ে আলোচনা হয়।

এরপর, দু’দেশের মধ্যে কয়েকটি চুক্তিতে স্বাক্ষরের কথা রয়েছে তাদের। চুক্তি স্বাক্ষরশেষে, আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্র মন্ত্রীর সম্মানে মোমেন একটি নৈশ্যভোজেরও আয়োজন করেছেন। আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রী তিন দিনের সরকারি সফরে আজ সকালে বাংলাদেশে পৌঁছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের বিআইপি লাউঞ্জে আর্জেন্টিনার পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

মঙ্গলবার, আর্জেন্টিনার মন্ত্রী ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে পুষ্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে বাংলাদেশের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানাবেন। এছাড়াও তিনি এ দিন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাত করবেন। ক্যাফিয়েরো বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির সাথেও সাক্ষাৎ করবেন।

গত ফুটবল বিশ্বকাপে বাংলাদেশী সমর্থকরা আর্জেন্টিনা দলকে যেবাবে সমর্থন দিয়েছিল ও দলটির প্রতি যে ব্যাপক ভালবাসা ও উন্মাদনা দেখিয়েছিল- তার পরিপ্রেক্ষিতে আজেন্টিনার মন্ত্রী বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে) পরিদর্শনেও যাবেন।

আর্জেন্টাইন পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এই দূতাবাস ও এর কনস্যুলার সেকশন পুনরায় খোলার মাধ্যমে বুয়েন্স এয়ার্স দুদেশের মধ্যেকার এই দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কে, মূলত বাণিজ্যিক সম্ভাবনা কাজে লাগাতে চায়। কারণ এখানে বহুমুখী বাণিজ্যের ব্যাপক সুযোগ রয়েছে।

দক্ষিণ আমেরিকার দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বাংলাদেশে এটাই প্রথম সফর।
২০২২ সালে আর্জেন্টিনার সাথে বাংলাদেশের দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ৭৬৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ