সোমবার, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

সমাজমাধ্যমই কি অভিনেতার সাফল্যের একমাত্র মাপকাঠি?

ইনস্টাগ্রামে জাহ্নবীর অনুরাগীর সংখ্যা ২ কোটি ছাড়িয়েছে।

ইদানীং বলিউডে সমাজমাধ্যমের অনুরাগীর সংখ্যার ভিত্তিতে মাপা হচ্ছে অভিনেতার স্টারডমকে। বিষয়টা পছন্দ নয় জাহ্নবীর।

যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে ছবির প্রচারের অবিচ্ছেদ্য অংশ হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়া। সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে জাহ্নবী কপূরকে সমাজমাধ্যম এবং স্টারডম নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল। প্রশ্নের উত্তরে শ্রীদেবী কন্যা মন খুলে কথা বলেছেন।

জাহ্নবীর মতে, সমাজমাধ্যমে তাঁর অনুরাগীর সংখ্যা কোনও ভাবেই অভিনেত্রীর ভাবমূর্তির সঙ্গে যুক্ত নয়। অভিনেত্রীর কথায়, ‘‘আমাকে অনেকেই বলেছেন যে, সোশ্যাল মিডিয়ায় আমার কার্যকলাপ নাকি অনেককেই ধাঁধায় ফেলে দেয়।’’ এই প্রসঙ্গেই জাহ্নবী বলেছেন, ‘‘সমাজমাধ্যম যদি শুধুই নিজের ছবি বিক্রির জায়গা হয়, তা হলে সেটা করতে গেলে হিসেবনিকেশের প্রয়োজন এবং আমার জন্য বেশ কঠিন। আমি আমার পছন্দের ছবিই করব।’’ তা হলে সমাজমাধ্যম? সেটা যে বিজ্ঞাপনের প্রচারের জন্যই তিনি ব্যবহার করেন, সে কথাও স্পষ্ট করেছেন জাহ্নবী।

ইনস্টাগ্রামে জাহ্নবীর অনুরাগীর সংখ্যা ২ কোটি ছাড়িয়েছে। জাহ্নবী বলেন, ‘‘এঁরা প্রত্যেকে যদি ‘মিলি’ ছবিটা দেখতে প্রেক্ষাগৃহে আসতেন, তা হলে ছবিটা সুপারহিট হতো। তাই দুটো জিনিসকে গুলিয়ে ফেলা উচিত নয়।’’ সমাজমাধ্যমের প্রতি জাহ্নবীর নিজস্ব দৃষ্টিভঙ্গি রয়েছে। অভিনেত্রীর মতে, সমাজমাধ্যমে প্রভাবী হলে হয়তো একটু প্রচারের আলোয় আসা যায়। কিন্তু কোনও তারকার স্টারডকে ইনস্টাগ্রামের অনুরাগী সংখ্যার মাপকাঠিতে বিচার করা ঠিক নয়।

এই বছর ‘মিলি’ ছাড়াও ‘গুড লাক জেরি’ ছবিতে দর্শক জাহ্নবীকে দেখেছেন। আগামী বছর অভিনেত্রীর বেশ কয়েকটি ছবি মুক্তি পাওয়ার কথা।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ