সোমবার, ৩০শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শেখ হাসিনার সবচেয়ে ক্ষমতাধর নারীদের ফোর্বস তালিকায় ৪২তম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯তম বার্ষিক ফোর্বস তালিকায় বিশ্বের ১০০ সবচেয়ে ক্ষমতাধর নারীর তালিকায় ৪২তম স্থানে রয়েছেন। তিনি ফোর্বসের আগের বছরের তালিকায় ৪৩ তম স্থানে ছিলেন। প্রধানমন্ত্রী রাজনৈতিক ও নীতি বিশেষ বিভাগে ২২ জনের মধ্যে ১১তম স্থানে রয়েছেন।

ইউক্রেন যুদ্ধের সময় এবং পাশাপাশি কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবিলা নেতৃত্বদানের জন্য ইউরোপীয় কমিশনের সভাপতি উরসুলা ভন ডের লিয়েন বিশ্বের ১০০ জন সবচেয়ে ক্ষমতাধর নারীর ১৯তম বার্ষিক ফোর্বস তালিকায় শীর্ষে রয়েছেন।
এই বছরের তালিকায় বিক্ষোভকারীদের প্রতিনিধিত্ব করছেন জিনা মাসা আমিনী, সেপ্টেম্বরে যার মৃত্যু অভূতপূর্ব নারী নেতৃত্বাধীন বিপ্লবের জন্ম দিয়েছে।
বাকি নারীদের মধ্যে ৩৯ জন সিইও, ১০ জন রাষ্ট্রপ্রধান এবং ১১ জন বিলিয়নিয়ার যাদের সম্মিলিত মূলধন ১১৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার।
ভন ডের লিয়েনের প্রভাব অনন্য, তালিকার অন্য কেউ ৪৫০ মিলিয়ন মানুষের জন্য নীতি প্রণয়ন করেন না, তবে একটি মুক্ত ও গণতান্ত্রিক সমাজের প্রতি তার প্রতিশ্রুতি তা নয়।

তিনি ২০২২ সালের সবচেয়ে বড় গল্পের একটি মুখ: নারীরা গণতন্ত্রের জন্য স্থির সংকল্প হিসেবে কাজ করছেন।
অর্থ, মিডিয়া, প্রভাব এবং প্রভাবের ক্ষেত্র তালিকার চারটি প্রধান বিভাগে নির্ধারিত হয়েছে।

ফোর্বসের মতে, রাজনৈতিক নেতাদের জন্য তারা মোট গার্হস্থ্য পণ্য এবং জনসংখ্যার পরিমাপ করেছে; কর্পোরেট নেতাদের জন্য রাজস্ব এবং কর্মচারী গণনা এবং গণমাধ্যম উল্লেখ করে এবং সবার কাছে পৌঁছায়। ফলাফলটি এমন নারীদের একটি সংগ্রহ যারা স্থিতাবস্থার বিরুদ্ধে লড়াই করছে।

বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে দীর্ঘ মেয়াদী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বর্তমানে তার চতুর্থ মেয়াদে দায়িত্ব পালন করছেন।
তিনি চতুর্থ মেয়াদে জয়ী হয়েছেন, যা তার টানা তৃতীয় মেয়াদও। তার দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ৩০০টি সংসদীয় আসনের মধ্যে ২৮৮টি আসনে জয়ী হয়।

শেখ হাসিনা খাদ্য নিরাপত্তা এবং শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসেবা প্রাপ্তির মতো বিষয়গুলোতে ফোকাস করার পরিকল্পনা করেছেন।
শেখ হাসিনার জন্য চলমান সংগ্রাম বাংলাদেশে একটি দৃঢ় গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ