বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শেখ কামাল ২য় বাংলাদেশ যুব গেমস জেলা পর্যায়ের খেলা শুরু কাল

‘বুকে হাত রেখে, বিজয়ের বেশে, ছুঁয়ে দেব আসমান’ এই স্লোগান নিয়ে বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের (বিওএ) আয়োজনে দেশব্যাপী চলছে ‘শেখ কামাল ২য় বাংলাদেশ যুব গেমস ২০২৩’। আগামীকাল থেকে গেমসের দ্বিতীয় পর্ব অর্থাৎ আন্তঃজেলা পর্যায়ের খেলা শুরু হচ্ছে।

গত ২-১০ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত আন্ত:উপজেলা পর্যায় থেকে উন্নীত তরুণ-তরুণীরা (অনুর্ধ্ব-১৭) আন্ত:জেলা পর্বে অংশ নিচ্ছেন। এ পর্বের খেলা চলবে ২২ জানুয়ারি পর্যন্ত। এরপর ২৬ ফেব্রুয়ারি থেকে ৪ মার্চ ঢাকায় চুড়ান্ত পর্যায়ের খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

আগামীকাল সকাল ১০টায় চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে আন্তঃজেলা পর্যায়ের খেলার উদ্বোধন করা হবে। চট্টগ্রাম বিভাগের ১১টি জেলার প্রায় ৭০০ ক্রীড়াবিদ ১০টি ইভেন্টে অংশ নিচ্ছেন। প্রথম দিন এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে অ্যাথলেটিকস, সাগরিকা মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে হ্যান্ডবল (তরুণ), ১৭ থেকে ১৯ জানুয়ারি ফেনীর ভাষা সৈনিক শহীদ আবদুস সালাম স্টেডিয়ামে ফুটবল (তরুণ ও তরুণী), সাগরিকা মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে কাবাডি (তরুণ ও তরুণী), ২০ জানুয়ারি এমএ আজিজ স্টেডিয়াম জিমনেসিয়ামে তায়কোয়ানডো, ১৯ থেকে ২০ জানুয়ারি বান্দরবান জেলা জিমনেসিয়ামে কারাতে, এমএ আজিজ স্টেডিয়াম জিমনেসিয়ামে ১৯ থেকে ২১ জানুয়ারি দাবা (তরুণ-তরুণী) এবং ২১ থেকে ২২ জানুয়ারি ব্যাডমিন্টন (তরুণ-তরুণী) খেলা অনুষ্ঠিত হবে।

গোপালগঞ্জে সুইমিং অ্যান্ড জিমনেসিয়াম কমপ্লেক্সে জেলা পর্বের প্রথম দিন তিনটি ইভেন্টের খেলা রয়েছে। কাবাডি, দাবা ও ব্যাডমিন্টন ইভেন্টে লড়বেন তরুণ ও তরুণীরা। নীলফামারীর শেখ কামাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ফুটবল খেলা (তরুণ ও তরুণী)। বরিশালে শহীদ আবদুর রব সেরনিয়াবাত আউটার স্টেডিয়ামে ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হবে। একই স্টেডিয়ামের জিমনেসিয়ামে কাবাডি, ব্যাডমিন্টন ও কারাতে ইভেন্টের খেলা অনুষ্ঠিত হবে। যশোরের আমেনা খাতুন ক্রিকেট প্যাভিলিয়নে অনুষ্ঠিত হবে দাবা । খুলনা বিভাগীয় মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সের সুইমিং পুলে সুইমিং ইভেন্ট অনুষ্ঠিত হবে।

রাজশাহীর তিনটি ভেন্যুতে আন্তঃজেলা পর্যায়ের খেলা অনুষ্ঠিত হবে। রাজশাহী জেলা স্টেডিয়ামে তরুণ বিভাগের ৬টি এবং তরুণী বিভাগের ৭টি দল নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে ফুটবল। স্টেডিয়াম সংলগ্ন সুইমিং পুলে অনুষ্ঠিত হবে সাঁতার ইভেন্ট। শারীরিক শিক্ষা কলেজ মাঠে অনুষ্ঠিত হবে অ্যাথলেটিকস ইভেন্ট। পাবনা জিমনেসিয়ামে কারাতে এবং জয়পুরহাট স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে কাবাডি ও দাবা ইভেন্টের খেলা।

এর আগে ২০১৮ সালে প্রথমবার যুব গেমস সফলভাবে আয়োজন করে বিওএ। গত আসরে ২১টি ডিসিপ্লিনে প্রায় ৫০ হাজার ক্রীড়াবিদ, প্রশিক্ষক ও সংগঠক অংশ নিয়েছিলেন। এবার আরও তিনটি- সাইক্লিং, রাগবি ও জিমন্যাস্টিকস ডিসিপ্লিন অন্তুর্ভুক্ত হয়েছে। মোট ২৪টি ডিসিপ্লিনে ৫০ হাজারের বেশি ক্রীড়াবিদ অংশ নিচ্ছেন।

উল্লেখ্য,গত ২৩ ডিসেম্বর ঢাকা সেনানিবাসের আর্মি মাল্টিপারপাস কমপ্লেক্সে সেনাবাহিনী প্রধান ও বিওএ সভাপতি জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ গেমসের লোগো ও মাসকট উন্মোচন করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২৬ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় ঢাকা আর্মি স্টেডিয়ামে গেমসের চুড়ান্ত পর্বের উদ্বোধন করবেন করবেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ