বুধবার, ১৯শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বিশ্বের মানুষ বাংলাদেশকে চেনে বঙ্গবন্ধুর নামে: পর্যটন প্রতিমন্ত্রী

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী এমপি বলেছেন, বিশ্বের মানুষ বাংলাদেশকে চেনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ অভিন্ন সত্ত্বা। তাই বাংলাদেশের পর্যটনকে বিশ্বের কাছে তুলে ধরার জন্য এদেশের কান্ট্রি ব্র্যান্ড নেইম নির্বাচন করা হয়েছে “মুজিব’স বাংলাদেশ”।

রাজধানীর হোটেল ইন্টারকন্টিনেন্টালে রোববার দুপুরে এক স্মারকগ্রন্থের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। “মুজিবের বাংলাদেশ” শীর্ষক এ স্মারকগ্রন্থ প্রকাশ করেছে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু বাঙালির স্বাধীকার আন্দোলনের প্রতিটি পর্যায়ে নেতৃত্ব দিয়ে বাঙালি জাতিকে ধাপে ধাপে স্বাধীনতার জন্য প্রস্তুত করেছেন। তিনি শুধু নেতৃত্বই দেননি, একই সাথে যুদ্ধের ময়দানে নেতৃত্ব দেয়ার জন্যও জাতিকে প্রস্তুত করেছেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের দিয়েছেন স্বাধীন দেশ আর তাঁর সুযোগ্য কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা পেয়েছি স্বনির্ভর বাংলাদেশ। বাংলাদেশের উন্নয়নে যে স্বপ্ন বঙ্গবন্ধু দেখেছিলেন তা এখন বাস্তবায়ন হচ্ছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। তাঁর নেতৃত্বেই আমরা স্বল্পোন্নত দেশ হতে উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত হয়েছি। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, নির্ধারিত সময়ের আগেই আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত ও স্মার্ট বাংলাদেশে পরিণত হবো।

অনুষ্ঠানে মূখ্য আলোচক ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর প্রাক্তন মূখ্য সচিব ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটির প্রধান সমন্বয়ক ড. কামাল আবদুল নাসের চৌধুরী।

তিনি বলেন, কোনো কোনো মানুষ একটা জাতির প্রতীক হয়ে ওঠেন এবং তার পরিচয়েই দেশ পরিচিতি পায়। বঙ্গবন্ধু এমনই একজন। দীর্ঘদিনের আন্দোলন ও সংগ্রামের মধ্য দিয়ে তিনি বাঙালি জাতির প্রতীক হয়ে উঠেছিলেন।

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেনের সভাপতিত্বে
প্রকাশনা অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বিমানের সাবেক চেয়ারম্যান সাজ্জাদুল হাসান, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের বর্তমান চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল উদ্দিন, কথাসাহিত্যিক ও প্রথম আলোর ব্যবস্থাপনা সম্পাদক আনিসুল হক, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এ এইচ এম গোলাম কিবরিয়া, বিমানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা শফিউল আজিম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম ও হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সন্তোষ কুমার দেব প্রমূখ।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ