বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

‘প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনায় দেশের এভিয়েশন সেক্টর আন্তর্জাতিক মানে বিকশিত হচ্ছে’

বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মোঃ মাহবুব আলী এমপি বলেছেন,
দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি দেশের এভিয়েশন শিল্পেও ব্যাপক পরিবর্তন এসেছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্ব ও দিকনির্দেশনায় দেশের এভিয়েশন সেক্টর আন্তর্জাতিক মানে বিকশিত হচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীতে একটি হোটেলে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের আয়োজনে Cooperative Development of Operational Safety and Continuing airworthiness Programme, South Asia এর ৩০ তম স্টিয়ারিং কমিটির মিটিং এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির মধ্য দিয়ে দেশের বিমান যোগাযোগের পরিধি বাড়ছে। সারাদেশে বিমান পরিকাঠামোর সময়োপযোগী সম্প্রসারণ, যাত্রীসেবা বৃদ্ধি, প্রযুক্তিগত ও জন দক্ষতা উন্নয়ন এবং নিরাপদ ও সুষ্ঠু বিমান চলাচল নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ চলছে। আর এই সকল কার্যক্রমেরই লক্ষ্য হলো দেশকে একটি প্রধান এভিয়েশন হাব এবং আকর্ষণীয় পর্যটন গন্তব্যে রূপান্তর করা।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ২০৩০ সালের মধ্যে এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চল বৃহত্তম বিমান পরিবহন বাজার হয়ে উঠবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই সুযোগকে গ্রহণ করার জন্য বাংলাদেশে এভিয়েশন শিল্পের প্রবৃদ্ধির জন্য বর্তমান সরকার বেশ কিছু নীতি প্রবর্তন করেছে এবং আইনগত সংস্কার করেছে।

দক্ষিণ এশিয়ার ৮ দেশের সিভিল এভিয়েশন প্রধানদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত স্টিয়ারিং কমিটির বৈঠকের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোকাম্মেল হোসেন, বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মোঃ মফিদুর রহমান, আন্তর্জাতিক বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার এশিয়া প্যাসিফিক অঞ্চলের পরিচালক তাও মা প্রমূখ।

উল্লেখ্য, উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে প্রতিমন্ত্রী আকস্মিকভাবে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। এ সময় প্রতিমন্ত্রী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের গ্রাউন্ড সার্ভিস ইকুইপমেন্ট ডিভিশনের বিভিন্ন কার্যক্রম দেখেন এবং যাত্রীসেবার মান উন্নয়নে বিভিন্ন নির্দেশনা প্রদান করেন। পরিদর্শন কালে বেসামরিক বিয়োগ পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোকাম্মেল হোসেন, বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শফিউল আজিম এবং হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন কামরুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ