সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

পরকীয়ার কারণে মাকে হত্যা করেন এমপিকন্যা

সাবেক এমপি ও আওয়ামী লীগের প্রয়াত নেতা সামসুদ্দোহা খান মজলিশের স্ত্রী সেলিমা খান হত্যায় জড়িত সন্দেহে তার মেয়েসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পিবিআই জানায়, মেয়ের প্রেমিকের হাতেই ‘খুন হয়েছিলেন’ সেলিমা খান।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকালে রাজধানীর ধানমন্ডির কার্যালয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) প্রধান অতিরিক্ত আইজিপি বনজ কুমার মজুমদার এ তথ্য জানান।

গ্রেপ্তার তিনজন হলেন প্রয়াত এমপির মেয়ে শামীমা খান মজলিশ পপি (৫৭), তার ‘প্রেমিক’ ইলেকট্রিক মিস্ত্রী সুবল কুমার রায়ক (৫০) এবং এমপির বাসার গৃহকর্মী আরতি সরকার (৫৮)।

পিবিআই প্রধান জানান, হত্যাকারী সুবলের সঙ্গে মেয়ে শামীমার প্রেমের সম্পর্কে বাধা দেওয়ায় খুন হন সেলিনা খান মজলিস। হত্যার পর আত্মহত্যা হিসেবে প্রচারের চেষ্টা করেছিলেন আসামিরা।

বনজ কুমার মজুমদার বলেন, মা ও মেয়ের সঙ্গে পারিবারিক সম্পত্তি নিয়ে ঝগড়াবিবাদও প্রায় সময় লেগে থাকতো। এ ঘটনায় জড়িত বাকি আসামিদের গ্রেপ্তারে অভিযান চলছে।

উল্লেখ্য, ১৩ বছর আগে সাভার দক্ষিণ পাড়া এলাকায় নির্মমভাবে খুন হন সাবেক এমপি শামসুদ্দোহা খানের স্ত্রী সেলিমা খান মজলিস। এ ঘটনায় মামলা হলে প্রথমে সাভার থানা পুলিশ তদন্ত করে। পরে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় সিআইডিকে। দীর্ঘ তদন্ত শেষেও মামলার কুলকিনার করতে পারেনি সংস্থাটি।

গত ৩০ মে সাভার থেকে প্রধান হত্যাকারী সুবল কুমার রায়কে গ্রেপ্তার করে পিবিআই। তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, গ্রেপ্তার করা হয় হত্যায় জড়িত আরও দুই আসামিকে, যাদের মধ্যে একজন নিহতের মেয়ে শামীমা খান মজলিস।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ