বুধবার, ৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

নিজের সন্তান পরিচয়ে রোহিঙ্গা কিশোর পাচার চেষ্টা, নারীসহ গ্রেপ্তার ৩

মায়ানমার থেকে বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গারা নানা উপায়ে বিভিন্ন দেশে পালিয়ে যাচ্ছেন। এবার বাংলাদেশি নারীর সন্তান পরিচয়ে দুই রোহিঙ্গা কিশোরকে মালয়েশিয়ায় পাচারকালে দুই নারীসহ তিনজনকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের ইমিগ্রেশন থেকে গোয়েন্দা সংস্থার গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ইমিগ্রেশন পুলিশ আটক করেছে। এ সময় দুই রোহিঙ্গা কিশোর-কিশোরীকে হেফাজতে নিয়েছে বিমানবন্দর থানা-পুলিশ।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন-শাহিন আক্তার, তাসনুভা জেরিন ও মোহাম্মাদ তুষার। আটক রোহিঙ্গা কিশোর-কিশোরীর নাম-তুষার হোসেন ও তানিশা হোসেন।

মঙ্গলবার (২৪ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পাচার চক্রের তিনজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা মঙ্গলবার ১টা শ্রীলঙ্কান এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইট মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুর যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। আজ বুধবার বিমানবন্দরে কর্তব্যরত পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) কর্মকর্তারা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, নিজের সন্তান পরিচয় দিয়ে গ্রেপ্তার শাহিনা আক্তার এই রোহিঙ্গাদের নিজের সন্তান পরিচয়ে জন্মনিবন্ধন তৈরি করেন। সেই জন্মনিবন্ধন ব্যবহার করে তারা পাসপোর্ট তৈরি করেছেন। যা ব্যবহার করে তাদের মালয়েশিয়ায় পাচারের চেষ্টা করা হচ্ছিল।

পরে গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে তাদের বিমানবন্দরের ইমিগ্রেশন এলাকা থেকে আটক করে পাসপোর্ট ও বোর্ডিং পাস জব্দ করা হয়। পরে কর্তব্যরত পুলিশ কর্মকর্তাদের জিজ্ঞাসাবাদে সন্তান পরিচয়ে রোহিঙ্গাদের পাচারের বিষয়টি স্বীকার করেন গ্রেপ্তারকৃতরা।

গ্রেপ্তার শাহিন আক্তার ও তাসনুভা জেরিন মা মেয়ে। শাহিন রোহিঙ্গাদের নিজের সন্তান ও তাসনুভা নিজের ভাই বোন পরিচয় দেন। আর তাদের কাজে সহযোগিতা করছিলেন চক্রের সদস্য মোহাম্মাদ তুষার।

মানবপাচার চক্রের তিনজনকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে। আর রোহিঙ্গা দুই কিশোর-কিশোরীকে বিমানবন্দর থানায় রাখা হয়েছে। তাদের বিষয়ে আইনানুগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানা গেছে।
.

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ