বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

তেল-গ্যাসের মূল্য ধার্য করতে পারবে সরকার আইনের সংশোধনী মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

বিইআরসির পাশাপাশি তেল, গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য ধার্য করতে পারবে সরকার। এমন বিধান রেখে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (সংশোধন) অধ্যাদেশের সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এরফলে বিশেষ পরিস্থিতিতে সরকার চাইলে প্রয়োজনে ট্যারিফ বা মূল্য নির্ধারণ করতে পারবে। এছাড়া বাংলাদেশ-লুক্সেমবার্গ রুটে সরাসরি বিমান চলাচল করবে

আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে তার কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভা বৈঠকে এ সংক্রান্ত প্রস্তাবের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়ছেন।

মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (সংশোধন) অধ্যাদেশে ছোট একটি সংশোধন নিয়ে আসা হয়েছে। বিশেষ পরিস্থিতিতে প্রয়োজনে সরকার চাইলে ট্যারিফ নির্ধারণ করতে পারবে। এলক্ষ্যে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (সংশোধন) অধ্যাদেশে ২০২২ এর খসড়া নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে সরকার। বিদ্যমান আইনে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির দাম বিইআরসি ৯০দিন সময় নিয়ে নির্ধারণ করে। বিশেষ পরিস্থিতিতে সরকারও যেন তা নির্ধারণ করতে পারে এজন্যই প্রস্তাবিত এ সংশোধনী মন্ত্রিসভা অনুমোদন করে।

বেসরকারিভাবে জ্বালানী আমদানির চিন্তা: মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, ফুয়েলসহ অন্যান্য এনার্জি বেসরকারিভাবে আমদানির ব্যবস্থা করা যায় কি না, তা নিয়ে মন্ত্রিসভা বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। সেক্ষেত্রে দুটি অপশন- বেসরকারি আমদানিকারকেরা আমদানি করে নিজেরাই বাজারে বিক্রি করলে কি বেশি বেটার হবে? এখন যে আইন আছে তারা (বেসরকারি আমদানিকারকেরা) ক্রুড অয়েল আনবে, এনে তারা যদি রিফাইন করে। এখন তো আমাদের বিপিসি (বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন) ছাড়া কেউ জ্বালানি বাজারজাত করতে পারে না। সাধারণত ক্রুড অয়েল রিফাইন করে ৪১ থেকে ৪২ শতাংশ রিফাইনড অয়েল হয়। রিফাইনড অয়েলটা তারা বিপিসির কাছে দিয়ে দিলো অথবা তারা সরাসরিভাবে বাজারজাত করতে পারে কি না সেটাও দেখতে হবে।

বাংলাদেশ-লুক্সেমবার্গ সরাসরি বিমান চলবে : বাংলাদেশ-লুক্সেমবার্গ রুটে সরাসরি বিমান চলাচল করবে। এজন্য বাংলাদেশ ও লুক্সেমবার্গের মধ্যে সইয়ের লক্ষ্যে দ্বিপাক্ষিক বিমান চলাচল সংক্রান্ত চুক্তির খসড়া অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এ চুক্তির ফলে উভয় দেশেই বিমান চলাচল করতে পারবে। ইউরোপের অন্যান্য দেশের সঙ্গে যোগাযোগ আরও ভালো হবে। এখন চুক্তি হবে। এরপর তারা বাজার সম্প্রসারণ করার চিন্তা-ভাবনা করবে। তারপর তারা বাস্তবায়নে যাবে। এছাড়া বৈঠকে ‘বাংলাদেশ বিমান (রহিত বাংলাদেশ বিমান অর্ডার. ১৯৭২ পুনর্বহাল এবং সংশোধন) আইন ২০২২’ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। একই সঙ্গে ‘বাংলাদেশ চিকিৎসা শিক্ষা অ্যাক্রেডিটেশন আইন, ২০২২’ এর খসড়া চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

ভিসা অব্যাহতি চুক্তি হচ্ছে কসোভোর সঙ্গে : বাংলাদেশ ও কসোভো সরকারের মধ্যে কূটনৈতিক ও অফিসিয়াল পাসপোর্টধারীদের ভিসা অব্যাহতি সংক্রান্ত চুক্তি অনুসমর্থনের প্রস্তাব মন্ত্রিসভা অনুমোদন দিয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এর ফলে এখন থেকে কসোভোতে যেসব কূটনৈতিক বা অফিসিয়াল পাসপোর্ট নিয়ে যাবে তাদের আর ভিসা লাগবে না। এছাড়া বাংলাদেশ ও ব্রুনাই দারুসসালামের মধ্যে বাংলাদেশি কর্মী পাঠানোর বিষয়ে সমঝোতা স্মারক মন্ত্রিসভার ভূতাপেক্ষ অনুমোদন দেওয়া হয়েছে বলেও জানান খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি বলেন, এতে ব্রুনাই দারুসসালাম এখন থেকে বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেবে। এতে কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে। দেশটি প্রবাসী শ্রমিকের ওপর নির্ভরশীল। এ বিষয়ে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় কাজ করছে। তারা দেখছে কোন কোন খাত থেকে লোক পাঠানো যাবে।

ব্যাংকিং খাত নিয়ে ভিডিও, ব্যাখ্যা চেয়েছে সরকার : ব্যাংকিং খাতের বর্তমান অবস্থা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ ও গণমাধ্যম বিভিন্ন আলোচনা, ভিডিও দেখা যাচ্ছে। এসব ভিডিওর বিষয়ে যথার্থতা যাচাইয়ে সংশ্লিষ্টদের কাছে ব্যাখ্যা চাওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে আমরা ব্যাংকের ওদেরকে বলে দিয়েছি তারা এটার সিনারিও…(জানানোর জন্য)। আপনারাও বলছেন, আমার কাছে বেশ কয়েকটা ভিডিও আসছে, এগুলোর যথার্থতা যাচাই করে যদি হয়ে থাকে, কেন হয়েছে, কীভাবে হলো- এটা ওনারা জানাবেন।

আইসিওয়াইএফের পদক প্রধানমন্ত্রীর নিকট হস্তান্তর : বিশ্বের ৫৭ টি মুসলিম রাষ্ট্রের সমন্বয়ে গঠিত ওআইসি অধিভুক্ত ইসলামিক কোঅপারেশন ইযুথ ফোরাম (আইসিওয়াইএফ) প্রতিবছর ওআইসি ভুক্ত রাষ্ট্রের মধ্যে থেকে একটি শহরকে ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ঘোষণা করে। সে পরিপ্রেক্ষিতে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় কর্তৃক ২০২০ সালে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অধিকতর অর্থবহ এবং মুসলিম বিশ্বে বঙ্গবন্ধুর জীবন আদর্শ তুলে ধরা ও ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে দিতে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকাকে ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ঘোষণার আবেদন করা হয়। বিশ্বের অন্যান্য দেশের সাথে প্রতিযোগিতা করে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ২০২০ হিসেবে নির্বাচিত হয়। আইসিওয়াইএফ এর সভাপতি তাহা আইয়ানের নিকট থেকে যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো: জাহিদ আহসান রাসেল এমপি উক্ত বিশেষ সম্মাননা গ্রহণ করেন। গতকাল মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে উক্ত বিশেষ সম্মাননা স্মারকটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী মো: জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ