মঙ্গলবার, ৭ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

ছাত্রলীগকে অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নিতে হবে:ওবায়দুল কাদের

ছাত্রলীগকে অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ছাত্রলীগের ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে এক শোভাযাত্রার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ আহ্বান জানান।

শোভাযাত্রাটি অপরাজেয় বাংলার পাদদেশ থেকে শুরু হয়ে শাহবাগ, মত্স্য ভবন, প্রেস ক্লাব, পুরানা পল্টন, নূর হোসেন চত্বর ঘুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এসে শেষ হয়।

উদ্বোধনী বক্তব্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, দুজন মানুষের মৃত্যু নেই। তাঁদের একজন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, যিনি স্বাধীনতা দিয়েছেন। মৃত্যু নেই শেখ হাসিনার, যিনি বাঙালি জাতিকে মুক্তি দিয়েছেন, বাঙালি জাতিকে বীরদর্পে অনেক দূর এগিয়ে নিয়ে গেছেন। লিগ্যাসি অব বঙ্গবন্ধু উইল নেভার ডাই, লিগ্যাসি অব শেখ হাসিনা উইল নেভার ডাই।

নতুন নেতৃত্বের উদ্দেশে তিনি বলেন, বর্তমান ছাত্রলীগের নেতৃত্বের পতাকা যাঁদের হাতে, তাঁদের অতীতের ভুল থেকে শিক্ষা নিয়ে নবতর যাত্রার সূচনা করতে হবে। ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি করতে যেন দেরি না হয়, সে নির্দেশনাও দেন তিনি।

ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সময় বিকেল ৪টা ১০ মিনিটের দিকে পুরো মঞ্চ ভেঙে পড়ে। এ সময় বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী আহত হন।

মঞ্চ ভেঙে পড়ার কিছুক্ষণ পর আবারও বক্তব্য দিতে শুরু করেন ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘আজ স্টেজ ভেঙে পড়েছে, এটা স্বাভাবিক একটা ব্যাপার। এত নেতা আমাদের দরকার নেই। আমাদের দরকার কর্মী। স্মার্ট বাংলাদেশের জন্য স্মার্ট কর্মী দরকার। যেকোনো অনুষ্ঠানে গেলে সামনের লোকের চেয়ে মঞ্চে লোক বেশি। এত নেতা কেন? নেতা উৎপাদনের এত বড় কারখানা আমাদের দরকার নেই। ছাত্রলীগ হোক কর্মী উৎপাদনের কারখানা।’,

ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালি আসিফ ইনান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি মাজহারুল কবির শয়ন, সাধারণ সম্পাদক তানবীর হাসান সৈকত প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আক্রমণ করব না, তবে পাহারায় থাকব : আগামী ১১ জানুয়ারি সারা দেশে বিএনপির গণ-অবস্থান কর্মসূচি প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘ভবিষ্যতে কী হবে জানি না। তবে আমরা সতর্ক পাহারায় থাকব। আমরা কাউকে আক্রমণ করব না। আক্রান্ত হলে উদ্ভূত পরিস্থিতি কী জবাব দেবে, প্রশাসন জবাব দেবে, নাকি পার্টি দেবে, সেটা সময় বলে দেবে।’,

ওবায়দুল কাদের শুক্রবার সন্ধ্যায় ধানমণ্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সঙ্গে ভ্রাতৃপ্রতিম ও সহযোগী সংগঠনের যৌথ সভায় এসব কথা বলেন।

বিএনপির কর্মসূচিতে সহিংসতার প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আপনি আমাকে বারবার মারবেন, আমি চুপ করে থাকব, দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ললিপপ খাব, তা কি হয়! এটা হয় না। আমরা সারা দেশেই আগে যেমন ছিলাম, তেমনই সতর্ক অবস্থায় থাকব।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ