সোমবার, ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কুয়াকাটা সৈকত থেকে বিরল প্রজাতির ইয়েলো-বেলিড সি স্নেক সাপ উদ্ধার 

পটুয়াখালীর কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত থেকে বিরল প্রজাতির একটি ইয়েলো-বেলিড সি স্নেক সাপ উদ্ধার করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকেলে এনিমেল লাভার্স অব পটুয়াখালী’র কলাপাড়া টিমের সদস্যরা কুয়াকাটার ঝাউবন সংলগ্ন সৈকত থেকে সাপটি উদ্ধার করে।  সাপটির পেটের রং হলুদ ও দেহের উপরিভাগ কালো। এছাড়া কালো দেহে অদ্ভুত হলুদের ছোঁয়া রয়েছে।

পরিবেশবাদী সংগঠন এনিমেল লাভার্স অব পটুয়াখালী’র কলাপাড়া টিমের সদস্য কেএম বাচ্চু বলেন, ‘দুপুরে ট্যুর গাইড এসোসিয়েশনের সদস্যদের মাধ্যমে সাপটির তথ্য জানতে পেরে উদ্ধার করতে ছুটে যাই। পরে ট্যুর গাইড ও স্থানীয়দের সহাতায় ঝাউবনের পাশ থেকে সাপটি জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করতে সক্ষম হই। সাপটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বনবিভাগের সহায়তায় বনে অবমুক্ত করা হয়েছে।

ট্যুর অপারেটর এসোসিয়েশন অব কুয়াকাটা (টোয়াক) এর সভাপতি রুমান ইমতিয়াজ তুষার বলেন, এই সাপগুলোর বসবাস বা বেড়ে ওঠা সমুদ্রে। গত দুবছর ধরে কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকতে এই সাপের দেখা মিলছে। তবে কুয়াকাটায় তেমন একটা দেখা যায়না এ সাপ।

ওয়ার্ল্ড ফিশের জীববৈচিত্র্য গবেষক সাগরিকা স্মৃতি বলেন, গোটা বিশ্বের স্থল ও সমুদ্র ভাগের সকল সাপের মধ্যে এটা চতুর্থতম। এটা তীব্র বিষধর। এ সাপ সচরাচর দেখা যায় না। গত বছরের জুন মাসে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত ও কুয়াকাটা সৈকতে এই সাপ দেখা গেছে। 

মহিপুর বন বিভাগের রেঞ্জ কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদ বলেন, এই প্রজাতির সাপ বাংলাদেশে সচরাচর দেখা যায় না। এর নাম ‘ইয়েলো-বেলাইড সি’। এরা হাইড্রোফিদা পরিবারভুক্ত। ভয়ঙ্কর বিষধর এই সাপের অ্যান্টিভেনম বাংলাদেশে নেই। সাপটি বনে অবমুক্তের জন্য বলা হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ