সোমবার, ৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

কলাপাড়ায় ১২ বছর পর কাল অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিএনপি’র ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

পটুয়াখালীর কলাপাড়া উপজেলা বিএনপি’র ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন কাল রোববার অনুষ্ঠিত হচ্ছে। দীর্ঘ ১২ বছর পর বছর পর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ সম্মেলনকে ঘিরে তৃনমূলের দলীয় নেতা-কর্মীরা সরব হয়ে উঠছে রাজনীতিতে।

দলের তৃনমূল কমিটি গঠন শেষে প্রতীক্ষার এ উপজেলা সম্মেলন নিয়ে নেতা-কর্মীদের মধ্যে দেখা গেছে প্রানের উচ্ছ্বাস। স্থানীয় রাজনীতিতে বিভক্তি থাকলেও কেন্দ্রের নির্দেশে দলীয় নেতা-কর্মীরা এখন একাট্রা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রাক্কালে এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে দলের ১০১ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা কমিটির নেতৃত্বে কারা আসছেন?

এ নিয়ে চলছে দলীয় নেতা-কর্মীদের মধ্যে আলোচনা। তবে এবারের সম্মেলনে ’নো ক্যান্ডিডেট ডিকলারেশন, কাউন্সিলরস্ উইল সিলেক্ট লিডারশিপ’ পদ্ধতিতে গোপন ভোটে দলের নেতৃত্ব নির্বাচিত হবে। দলীয় অফিসে সম্মেলনের অনুমতি মেলায় সীমিত পরিসরে শব্দ যন্ত্র ব্যবহার করে প্রস্তুত করা হয়েছে সবকিছু।

বর্নাঢ্য সাজে সাজানো হয়েছে দলীয় কার্যালয়। কেন্দ্রীয় দু’জন হেবিওয়েট নেতা প্রধান অতিথি ও প্রধান বক্তা হিসেবে থাকছেন এ সম্মেলনে। এতে চলমান আন্দোলন সংগ্রামে নতুন মাত্রা যুক্ত হবে এ সম্মেলন থেকে, এমনটাই বলছেন স্থানীয় বিএনপি’র নেতা-কর্মীরা।

২০০২ সালের ২৬ মার্চ সাবেক ডিডিসি আলহাজ্জ্ব মোয়োজ্জেম হোসেন’র মৃত্যুর পর তাঁর মেজ ছেলে মো: মনিরুজ্জামানকে আহবায়ক করে গঠন করা হয় ৭১ সদস্য বিশিষ্ট উপজেলা বিএনপি’র আহবায়ক কমিটি। পরে কেন্দ্রের নির্দেশে ২০০৩ সালে কাউন্সিল ভোট ছাড়াই ছাত্রদল ঢাবি’র সাবেক সভাপতি ও কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন বিএনপি’র উপজেলা কমিটির সভাপতি ও সম্পাদক উপাধ্যক্ষ নুর বাহাদুর তালুকদারকে নিয়ে গঠন করা হয় ১৫১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি। এরপর ২০০৯ সালের ১৪ ডিসেম্বর কাউন্সিল ভোটের মাধ্যমে ১৭১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির সভাপতি হন এবিএম মোশাররফ হোসেন ও
সম্পাদক নির্বাচিত হন হাজী হুমায়ুন সিকদার।

পরবর্তীতে ২০২১ সালে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির আহবায়ক হাজী হুমায়ুন সিকদার ও সদস্য সচিব হন অ্যাডভোকেট মো: হাফিজুর রহমান চুন্নু। এর দুই বছর পর কাল ২৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে উপজেলা বিএনপি’র ত্রি বার্ষিক সম্মেলন। দীর্ঘ বছর পর অনুষ্ঠিত হতে
যাওয়া এ সম্মেলন নিয়ে তাই নেতা-কর্মীদের মধ্যে বিরাজ করছে এখন বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনা।

দলীয় সূত্র জানায়, ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির প্রশিক্ষন বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্জ্ব এবিএম মোশাররফ হোসেন, প্রধান বক্তা হিসেবে থাকছেন বরিশাল বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আকন কুদ্দুসুর রহমান, উদ্বোধক হিসেবে থাকছেন জেলা বিএনপি’র আহবায়ক আ: রশিদ চুন্নু মিয়া, বিশেষ বক্তা থাকবেন সদস্য সচিব স্নেহাংশু সরকার কুট্রি। এবারের সম্মেলনে উপজেলা আ’লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদককে পত্র দিয়ে আমন্ত্রন করা হয়েছে।

বিএনপি’র জাতীয় নির্বাহী কমিটির প্রশিক্ষন বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্জ্ব এবিএম মোশাররফ হোসেন বলেন, ’তৃনমূলের এ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে স্থানীয় দক্ষ নেতৃত্ব সৃষ্টি ও গনতান্ত্রিক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার আন্দোলন গতিশীল হবে। এছাড়া বর্তমানে হারিয়ে যাওয়া ভোটের অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিএনপি’র চলমান আন্দোলনে স্থানীয় নেতৃত্ব গতিশীল হবে।’

উপজেলা আওয়ামীলীগের সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল মোতালেব তালুকদার বলেন, ’আ’লীগের সম্মেলনেও বিএনপিকে আমন্ত্রন জানানো হয়। এটি রাজনৈতিক সংস্কৃতি। বিএনপি শান্তিপূর্ন পরিবেশে সম্মেলন অনুষ্ঠান করলে আমাদের পক্ষ থেকে সহযোগীতা থাকবে।’

কলাপাড়া থানার ওসি মো: জসিম বলেন, ’শর্ত সাপেক্ষে দলীয় অফিসে কাউন্সিল
অনুষ্ঠানের অনুমতি দেয়া হয়েছে। কোন ধরনের অরাজকতা, উচ্ছৃংখলতা যাতে না হয়
সেজন্য পুলিশ প্রশাসন সতর্ক অবস্থায় থাকবে।’

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ