শনিবার, ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ইধিকার মন্তব্যে যা বললেন কোর্টনি

ঈদুল ফিতরে বাংলাদেশ ও বিশ্বের একাধিক দেশের প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাচ্ছে ‘রাজকুমার’। এই ছবিতে শাকিব খানের বিপরীতে অভিনয় করেছেন মার্কিন অভিনেত্রী কোর্টনি কফি। তবে শাকিবের এই ছবিতে ইধিকা অভিনয় না করলেও শুভকামনা জানাতে ভোলেননি। বিষয়টি নজরে আসার পর ইধিকার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন কোর্টনিও।

‘রাজকুমার’ ছবির নায়িকা কোর্টনি কফি বর্তমানে আছেন যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে। শুটিং শুরুর আগে তিনি ঢাকায় এসেছিলেন। একই সময়ে কলকাতা ঢাকায় এসেছিলেন ইধিকা পালও। তখন শাকিব খান, কোর্টনি কফি ও ইধিকা পালের দেখা হয়। তারা আড্ডায় মেতে ওঠেন। ফটোসেশনে অংশ নেন। শাকিব খানের সঙ্গে কোর্টনির ছবি মুক্তির খবরে শুভকামনা জানানোর বিষয়টি ইধিকার মহানুভবতা বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

ইধিকার শুভকামনা বার্তার প্রত্যুত্তরে কোর্টনি কফি তার ফেসবুক লিখেছেন, ‘ইধিকা পালের মহানুভবতার জন্য তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই। “রাজকুমার” ও আমাদের প্রতি শুভকামনা জানিয়ে চমৎকার পোস্টটি দেখে ভীষণ মুগ্ধ হয়েছি। ইধিকার বিষয়টি আমাকে মনে করিয়ে দিয়েছে, প্রথম দিন তার সঙ্গে দেখা হওয়ার পর আমার প্রতি উদারতা ও অনুগ্রহের কথা। আমরা জানি, “প্রিয়তমা”র নায়িকা হিসেবে তিনি এরই মধ্যে বাংলাদেশে ভালোই প্রভাব বিস্তার করেছেন, যা আমি কেবল আশা করতে পারি। কারণ, অনুসারী হিসেবে তিনি একটা সুন্দর পথ তৈরি করে দিয়েছেন। “রাজকুমার” ছবিটি তৈরি হতে যা যা করণীয়, সবই “প্রিয়তমা” টিম আন্তরিকভাবে করেছে। আমি ইধিকা পাল এবং সব কলাকুশলীকে ধন্যবাদ জানাতে চাই। আমি জানি, আমি তোমার “প্রিয়তমা”র বিকল্প হতে পরব না, তবে আমি আশা করছি, আমার আগে করা সব কাজকে ভালোভাবেই ছাপিয়ে যেতে পারব।’

এর আগে ইধিকার তার ফেসবুকে লেখেন, ‘আমি আপনাদের সকলের প্রিয়তমা হিসেবে ছবি মুক্তির ঠিক আগে, রাজকুমার ছবির সমস্ত টিম, প্রযোজক আরশাদ আদনান, পরিচালক হিমেল আশরাফ ভাই ও অবশ্যই বাংলাদেশের সকলের হৃদয়ের রাজকুমার শাকিব খানকে জানাই অসংখ্য অভিনন্দন ও শুভ কামনা। তর্ক বিতর্ক, ভালো এবং আরো ভালোর মাঝের ব্যবধানটুকু সরিয়ে নিলে যা মানুষকে প্রতিদিন বাঁচিয়ে রাখে, সেটা প্রত্যাশা; প্রত্যাশা এক অমলিন অনুভূতি, সেই অনুভূতির ওপর ভিত্তি করেই এই ছবির জয়জয়কার চলুক; সকলের মনের কাছাকাছি থাক রাজকুমার।’

এদেশের মানুষের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে ইধিকা বলেন, ‘আপনাদের প্রিয়তমা হয়ে আমি এই প্রত্যাশাই রাখলাম। ভিনদেশি ইধিকাকে প্রিয়তমা করে তুলে যে ভালোবাসা আপামর বাংলাদেশ আমায় দিয়েছে তা আমার চিরকালের সম্পদ, তার পেছনে যে মানুষ গুলোর অবদান সব থেকে বেশি, সেই সুপারস্টার শাকিব খান, আরশাদ আদনান এবং হিমেল আশরাফ ভাই-এর প্রতি আমি চিরকৃতজ্ঞ। সকলকে বলছি, হলে গিয়ে রাজকুমার দেখুন। সকলকে পবিত্র ঈদের আগাম শুভেচ্ছা, শুভ হোক।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ