বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

আমতলীর সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকার গ্রেফতার, জেলা হাজতে প্রেরণ

ডজন খানের মামলার আসামী আমতলী উপজেলার সন্ত্রাসী মোঃ সবুজ ম্যালকারকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। মঙ্গলবার রাতে পৌর শহরের সদর রোড থেকে নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

বুধবার পুলিশ তাকে আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরন করেছে। আদালতের বিচারক মোঃ আরিফুর রহমান তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

জানাগেছে, ২০১৮ সালে উপজেলার মহিষডাঙ্গা গ্রামের বেলাল ম্যালকারের ছেলে মোঃ সবুজ ম্যালাকার রাজনৈতিক ছত্রছায়ায় কিশোর গ্যাং লিডারে পরিনত হয়। সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, নারী নির্যাতন ও মাদকসহ একাধিক অপকর্মে জড়িয়ে পড়ে সবুজ। রাজনৈতিক নেতাদের ছত্রছায়ায় গত ৫ বছরে অন্তত শতাধিক নিরিহ মানুষ ও রাজনৈতিক নেতা তার হামলার শিকার হয়েছেন। তার নৈরাজ্যে দিশেহারা সাধারণ মানুষ, ব্যবসায়ী ও রাজনৈতিক নেতারা।

একের পর এক অপরাধ কর্মকান্ড ঘটালেও তার বিরুদ্ধে কেউ নিচ্ছে না এমন অভিযোগ ভুক্তভোগীদের। কেউ ভয়ে তার সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছে না। গত ৩ বছরে তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, নারী নির্যাতন, মাদক ও ছিনতাইসহ আমতলী থানায় ও আদালতে ডজন খানেক মামলা রয়েছে। গত ৩০ অক্টোবর আওয়ামীলীগ সম্মেলনে কেন্দ্রীয় নেতাদের সামলে সভা মঞ্চে প্রকাশ্যে দলীয় নেতাকর্মীদের পিটিয়ে গুরুতর জখম করে।

গত ১৬ আগষ্ট রাতে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খাঁনকে পৌর শহরের সাকিব প্লাজা প্রাঙ্গণে শত শত মানুষের সামনে প্রকাশ্যে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। প্রত্যক্ষদর্শীরা দাড়িয়ে প্রত্যক্ষ করলেও সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকারের ভয়ে কেউ মোয়াজ্জেম খাঁনকে রক্ষায় এগিয়ে আসার সাহস পায়নি।

এ ঘটনায় মামলা হলেও সন্ত্রাসীূ সবুজ রাজনৈতিক ছত্রছায়াল কৌশলে জামিনে বেরিয়ে আসে। তার ভয়ে এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ। বুধবার রাতে আমতলী পৌর শহরের সদর রোড থেকে পুলিশ একটি নারী ও শিশু নির্যাতন মামলায় তাকে গ্রেফতার করে। বুধবার তাকে আমতলী সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরন করেছে। আদালতের বিচারক মোঃ আরিফুর রহমান তাকে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন ভুক্তভোগী বলেন, সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকারের হামলার শিকার হয়ে শরীরে বেধম যন্ত্রনা বয়ে বেড়াচ্ছি কিন্তু মামলা করতে সাহস পাইনি। মামলা করলেও সে সুকৌশলে আদালতের ফাঁক ফোকর দিয়ে বেড়িয়ে আসে। সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকারের শাস্তি দাবী জানান তারা।

সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকারের হামলার শিকার উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ সভাপতি মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন খান বলেন, সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকার আমতলীতে এক আতঙ্কের নাম। সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজি, ছিনতাই, মাদক ও নারী নির্যাতনসহ এমন অপরাধ নেই যার সাথে সবুজ ম্যালাকার জড়িত নেই।

তিনি আরো বলেন, গত ১৬ আগষ্ট রাতে শত শত মানুষের সামনে আমাকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে। এ ঘটনায় মামলা করলেও পুলিশ তাকে গ্রেফতার করেনি। কৌশলে আদালত থেকে জামিনে মুক্তি পায়। আমি সন্ত্রাসী সবুজ ম্যালাকারের বিচার দাবী করছি।

আমতলী থানার ওসি একেএম মিজানুর রহমান বলেন, সবুজ ম্যালাকারকে একটি নারী নির্যাতন মামলায় গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ