বৃহস্পতিবার, ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

আড়াইহাজারে মা-ছেলেকে গলা কেটে হত্যা

আড়াইহাজারে নিজ ঘরে খুন হয়েছেন মা-ছেলে। দুর্বৃত্তরা তাদেরকে গলা কেটে নৃশংসভাবে হত্যা করে। নিহতরা হলেন ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের উজান গোপিন্দী পশ্চিমপাড়া এলাকার মৃত আউয়ালের স্ত্রী রাজিয়া সুলতানা (৪২) ও তার ছেলে তালহা (৮)। রবিবার (৩জুলাই) দিবাগত রাতের যেকোনো সময় এ খুনের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ নিহতদের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নারায়ণগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করেছে। পুলিশ হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে চেষ্টা করছে। এ ঘটনার সাথে পূর্ব পরিচিতরা জড়িত থাকতে পারে ধারানা করছে পুলিশ।

ঘটনার সংবাদ ছড়িয়ে পড়লে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। বাড়িতে শত শত নারী পুরুষ ভিড় জমায়। এলাকায় নেমে আসে শোকের ছায়া।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, স্বামী মারা যাওয়ার পর রাজিয়া পুত্রকে নিয়ে একাই ঘরে থাকতেন। প্রতিদিনের মতো শনিবার রাতে খাবার খেয়ে সন্তানকে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন রাজিয়া। সকালে ঘরের ভেতর লাশ পড়ে থাকতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ এসে লাশ উদ্ধার করে নারায়ণগঞ্জ মর্গে প্রেরণ করে।

নিহত রাজিয়ার বোন বোন শাহীনা সুলতানা বলেন, স্বামী মারা যাওয়ার পর ছেলে তালহাকে নিয়ে এখানেই বসবাস করতো। আমার বোন কেমন ছিল এলাকাবাসী সকলেই জানে। কারও সাথে তার কোনো শত্রুতা ছিল না। কারও সাথে কখনও কথা বলতো না। সবসময় পর্দা করে চলতেন। আমার ভগ্নিপতি মারা যাওয়ার পর আমিই সবসময় তাদের বাড়ি আসা যাওয়া করতাম।

আড়াইহাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আজিজুল হক হাওলাদার জানান, নিহত রাজিয়া সুলতানার স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে ঘরে মা-ছেলে একাই বসবাস করতো। রাতের কোনও এক সময়ে মা ও ছেলেকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারো সঙ্গে বিরোধ ছিল নাকি ডাকাতরা করেছে তা এখন বলা যাচ্ছে না। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। তদন্তের পর নিশ্চিত হওয়া যাবে। পুলিশ লাশের সুরাতহাল রিপোর্ট প্রস্তুত করছে। সিআইডি ক্রাইম সিনকে সংবাদ দেয়া হয়েছে।

সংবাদটি শেয়ার করুন

সর্বশেষ

ফেসবুকে যুক্ত থাকুন

এই সম্পর্কিত আরও সংবাদ

সর্বশেষঃ