11172019রবি
শুক্রবার, 11 অক্টোবার 2019 17:21

ভারতে এলেন চিনা প্রেসিডেন্ট, সন্ধ্যায় মোদীর সঙ্গে বৈঠকে জিংপিং

নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক চেন্নাই: বেলা ঠিক ১ টা বেজে ৫০ মিনিটে তামিলনাডুর চেন্নাই বিমানবন্দরে আসলেন চিনা রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং। সেখানে চিনা রাষ্ট্রপতিকে আমন্ত্রণ জানাতে হাজির হয়েছিলেন চিনা কমিউনিটির সদস্যরা, স্কুলের বাচ্চারা এবং অসংখ্য সাধারণ মানুষ। বেলা ১২ টার পর থেকেই তাঁরা ভিড় জমিয়েছিল চেন্নাইয়ের আইটিসি গ্রান্ড হোটেল চত্বরে। বিমান বন্দরে চিনা রাষ্ট্রপতিকে আমন্ত্রণ জানান তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রী পালানিস্বামী। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও এই মুহুর্তে উপস্থিত রয়েছেন চেন্নাইতে । বিমান বন্দরে নামামাত্রই বর্নাঢ্য শোভাযাত্রায় স্বাগত জানানো হয় চিনা রাষ্ট্রপতিকে। এর আগে চিনের উহানে জিং পিং ও মোদী প্রথম এই ধরণের আনুষ্ঠানিক বৈঠকে বসেছিলেন। বিমান থেকে নামার পরেই, এবার চিনা রাষ্ট্রপতিকে নিয়ে যাওয়া হবে মহাবলীপুরমে। নরেন্দ্র মোদী তাঁকে প্রাচীন স্মৃতিসৌধ দেখাবেন বলে জানা গিয়েছেন। সূত্রের খবর, অর্জুনের তপস্যা, পঞ্চ রথ এবং শোর মন্দির এই তিনটি সৌধ দেখবেন চিনা রাষ্ট্রপতি। এরপর তাঁরা দুজনে সন্ধ্যের সময়ে শোর মন্দিরে একটি অনুষ্ঠান দেখবেন বলে জানা গিয়েছে। চিনা রাষ্ট্রপতির নিরাপত্তার উদ্দেশ্য এবং মোদীর উপস্থিতির কারণে সাত স্তরীয় নিরাপত্তা রয়েছে। গোটা শহর ঘিরে ফেলেছে পুলিশ। মোতায়েন রয়েছে প্রায় ৮০০০ পুলিশ। সেখানে রয়েছে বম্ব স্কোয়াড। রয়েছে কমান্ডো, অ্যান্টি টেরর কুইক আ্যাকশন টিম। এসপিজি ও চিনের বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী সব ব্যবস্থা খতিয়ে দেখছে। শনিবার সকালে মোদী-জিং পিংয়ের মধ্যে একটি গুরুত্বপূর্ন বৈঠক হবার কথা। সূত্র মারফৎ খবর, দুই দেশের মধ্যেকার সম্পর্ককে আরও দৃঢ় করে তোলার জন্য কী কী পদক্ষেপ নেওয়া হবে, সে নিয়েই আলোচনা হতে পারে। উল্লেখ্য, এই মহাবলীপুরম নিয়ে ভারতের সঙ্গে চিনের যোগসূত্র রয়েছে প্রাচীন কাল থেকেই। চিনা পর্যটক হিউয়েন সাঙ যখন ভারতে এসেছিলেন, তখন কাঞ্চিপুরমে নামার সময় মহাবলীপুরমের বন্দরেই নেমেছিলেন তিনি। তাঁর গ্রন্থে তিনি লিখে গেছেন সে সময়ে ভারতে রাজত্বকারী পল্লব রাজাদের কথা। অর্থাৎ প্রাচীনকাল থেকেই ভারতের এ শহরের সঙ্গে যোগ ছিল চিনের। সূত্র : কােলকাতা২৪।
পড়া হয়েছে 27 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: শুক্রবার, 11 অক্টোবার 2019 17:26

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা