11132019বুধ
মঙ্গলবার, 31 মে 2016 07:54

উৎসবেও মধ্যমণি মুস্তাফিজ

< > ক্রীড়া ডেস্ক বাংলাদেশ মুস্তাফিজে বুঁদ হয়ে আছে এক বছর আগে থেকেই। ওই সময়ই দ্বিপক্ষীয় ওয়ানডে সিরিজের মাধ্যমে ভারত তার পরিচয় পেয়েছে আতঙ্ক হিসেবে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লীগের মাধ্যমে মুস্তাফিজকে এবার নতুন করে চিনল ক্রিকেটবিশ্ব। মুস্তাফিজ এখন আর শুধু কাটার-মাস্টার নন, ইয়র্কার আর ডেথ বোলিংয়েরও মোক্ষম আদর্শ। টুর্নামেন্টের শেষটায় তাই দেখা মিলল চোখজুড়ানো এক অনিন্দ্য দৃশ্যের- মাঠের মধ্যে গোলাকার হয়ে নাচোৎসব করছেন সানরাইজার্সের সব খেলোয়াড়-কর্মকর্তা, সবার মাঝখানটায় মধ্যমণি হয়ে আছেন মুস্তাফিজ। জয়ের স্মারক দুটো স্টাম্প নিয়ে কখনও সতীর্থদের সঙ্গে তাল মেলাচ্ছেন, কখনও বা আবার নিজেই ওঠাচ্ছেন নতুন নাচ, যা দেখে হাসিতে মেতে উঠছেন সতীর্থরা। লাজুক চেহারার বাঙালি ছেলেটার নতুন এই প্রতিভায় হয়তো নতুন কিছুও আবিষ্কার করছিলেন অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড-ইংল্যান্ড-ভারতের ক্রিকেটাররা। মাঠের ওই উৎসবেই অবশ্য শেষ হয়ে যায়নি সানরাইজার্সের শিরোপা উৎসব। মাঠের উৎসব বহমান থাকল ড্রেসিংরুম-টিম বাস হয়ে হোটেলেও। এমনিতেই টুর্নামেন্টের দেড় মাসের পথচলায় প্রতিটি জয়ের পর রাতে পার্টি করেছে হায়দরাবাদ। রোববার রাতের উপলক্ষ তো আগের সবকিছুকে ছাড়িয়ে- চ্যাম্পিয়ন উৎসব! সব ক্রিকেটারের মুখে কেক মাখিয়ে-মুখে একে অপরকে খাইয়ে দিয়ে চলল জয়োৎসব। সেই উৎসবে বাড়তি উচ্ছ্বাস হলো চ্যাম্পিয়ন যাত্রার নায়ক মুস্তাফিজ-ভুবনেশ্বর-ওয়ার্নারদের নিয়ে। এসব আনন্দোৎসবের ফাঁকে কেউ তুললেন সেলফি, কেউ বা টুইটারে পোস্ট। ওয়ার্নারের সেলফিতে পাওয়া গেল মুস্তাফিজকে, টুইটে তো থাকলেনই। মুস্তাফিজে আমোদিত হওয়া দেড় মাসের এক সফলযাত্রা শেষ হয়ে যাওয়ার আক্ষেপও কি ছিল? আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ভারতকে কাঁপিয়ে দেওয়া মুস্তাফিজকে হায়দরাবাদ দল নিয়েছিল এক কোটি ৪০ লাখ ভারতীয় রুপিতে। তবে পুরো আসরে দলের দামি ক্রিকেটারদের তো বটেই, বাকি সবাইকে ছাপিয়ে হয়ে উঠলেন আইপিএলেরই বিজ্ঞাপন। ম্যাচের পর ম্যাচ প্রশংসাধ্বনি উঠেছে মুস্তাফিজের নামে, ধারাভাষ্যকার-মিডিয়া ছিল মুগ্ধতায় আচ্ছন্ন। সেই মুস্তাফিজ সেরা নবাগত হবেন না তো কে হবেন, সেই মুস্তাফিজকে নিয়ে উৎসব হবে না তো কাকে নিয়ে হবে? < >
পড়া হয়েছে 310 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: মঙ্গলবার, 31 মে 2016 08:00