10162019বুধ
বুধবার, 27 এপ্রিল 2016 11:35

ব্যাটিং ব্যর্থতায় মুস্তাফিজদের হার

< > ক্রীড়া ডেস্ক টানা তিন ম্যাচ জিতে ফর্মের তুঙ্গে ছিল সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। অন্যদিকে টানা চার হারে কোণঠাসা ছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির রাইজিং পুনে সুপারজায়ান্ট। কিন্তু মঙ্গলবার ভিন্ন রূপ দেখলো দল দু’টি। জয়ের ধারায় ফিরলো পুনে আর হারের বৃত্তে ঢুকে গেলো হায়দরাবাদ। ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে এদিন মুস্তাফিজুর রহমানের দল হারলো ৩৪ রানে। আইপিএলের আগের পাঁচ ম্যাচেই উইকেট পান মুস্তাফিজ। নেন ৭ উইকেট। কিন্তু বাংলাদেশের এ পেসার এদিন থাকলেন উইকেটশূন্য। ২ ওভারে দিয়ে ফেলেন ২১ রান। সানরাইজাসর্রে এই হারের জন্য সম্পূর্ণ দায়ী তাদের ব্যাটিং ব্যর্থতা। হায়দরাবাদের রাজীব গান্ধী স্টেডিয়ামে ম্যাচ শুরুর আগেও বৃষ্টি হানা দেয়। বৃষ্টি থামার পর টস হেরে আগে ব্যাটে যাওয়া হায়দরাবাদ শুরুতেইবি পদে পড়ে। অশোক দিন্দা ও মিচেল মার্শের বোলিং তোপে পড়ে মাত্র ৩২ রানে হারায় ৫ উইকেট। এক পাশ আগলে রাখেন শুধু শিখর ধাওয়ান। তিনি শেষ পর্যন্ত এক ছক্কা ও ২ চারে ৫৩ বলে ৫৬ রানে অপরাজিত থাকলেও অন্য পাশ থেকে ব্যাটসম্যানরা যাওয়া-আসা করেন। শেষের দিকে ভুবনেশ্বর কুমার এক ছক্কা ও ৩ চারে মাত্র ৮ বলে ২১ রান করলে কিছুটা সম্মান বাঁচে হায়দরাবাদের। কিন্তু এই রান সামনে নিয়ে ব্যাটে ঝড় তোলেন ফ্যাফ ডু প্লেসি ও স্টিভেন স্মিথ। স্কোর বোর্ডে রান যোগ হওয়ার আগেই আজিঙ্কা রাহানেতে ফেরত পাঠান ভুবনেশ্বর কুমার। কিন্তু দ্বিতীয় উইকেটে পুনেকে জয়ের দ্বারপ্রান্তে নিয়ে যান ডু প্লেসি ও স্মিথ। দ্বিতীয় উইকেটে ৮.২ ওভারে যোগ করেন ৮০ রান। মুস্তাফিজ ও আশিষ নেহরাদের দারুণভাবে সামলান তারা দু’জন। বিশেষকের স্মিথ মুস্তাফিজের বিপক্ষে দারুণ খেলেন। শুরুতেই মুস্তাফিজের বলে বেঁচে গেলেও পরে খেলেন দারুণভাবে। মুস্তাফিজের ২ ওভারে হাঁকান চারটি চার। ডু প্লেসি ২১ বলে ৩০ রানে ফিরলেও স্মিথ ৩৬ বলে ৪৬ রানে অপরাজিত থাকেন। পুনে ১১ ওভারে ৩ উইকেটে ৯৪ রান তোলার পর ফের বৃষ্টি হাঁনা দেয়। এতে বৃষ্টি আইনে ৩৪ রানে জেতে পুনে সুপারজায়ান্ট। < >
পড়া হয়েছে 461 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: বুধবার, 27 এপ্রিল 2016 11:42