10242019বৃহঃ
শিরোনাম:
শুক্রবার, 03 জুন 2016 00:14

বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্ক প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেয়েছে :মাহমুদ আলী

< > নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক বাংলাদেশে যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তন থেকে সহিংস উগ্রবাদসহ একুশ শতকের নানা হুমকি মোকাবিলায় বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে। যৌথভাবে কাজের মাধ্যমেই এসব চ্যালেঞ্জ সফলভাবে মোকাবিলা করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন তিনি। বুধবার রাতে ঢাকায় মার্কিন দূতাবাসে যুক্তরাষ্ট্রের ২৪০তম স্বাধীনতা দিবস উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী। তিনি বলেন, গত সাড়ে চার দশকে যুক্তরাষ্ট্র ও বাংলাদেশের সম্পর্ক গভীর ও বিস্তৃত হয়েছে। বর্তমান সরকারের সময়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সংলাপের প্লাটফর্ম প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক প্রাতিষ্ঠানিক রূপ পেয়েছে। গণতন্ত্র, ন্যায় বিচার, নারীর ক্ষমতায়ন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে শান্তি প্রতিষ্ঠা, নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দুই দেশের সম্পর্ক বিস্তৃত হয়েছে। জঙ্গিবাদ ও সহিংস উগ্রবাদের মূলোত্পাটনে আমাদের অংশীদারিত্ব নতুন মাত্রা পেয়েছে। অনুষ্ঠানে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, সরকারি কর্মকর্তা, ব্যবসায়ী ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধি, বিভিন্ন কূটনৈতিক মিশনের প্রধানসহ প্রায় সাতশো অতিথি যোগ দেন। রাষ্ট্রদূত বার্নিকাট বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের স্বাধীনতা দিবসের এবারের মূল প্রতিপাদ্য হচ্ছে ‘মহা নদ-নদী’। এই প্রাকৃতিক সম্পদ বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রকে সমৃদ্ধ করেছে। নদ-নদী ও বৃষ্টিপাত হলো বাংলাদেশের জীবনী শক্তি। আমাদের দুই দেশের বেশ কিছু বড় বড় নদী রয়েছে। এই নদীগুলো বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের প্রজন্মের পর প্রজন্মকে টিকিয়ে রেখেছে এবং অনুপ্রেরণা জুগিয়েছে। দুই দেশের জোরালো অংশীদারিত্ব সম্পর্কের উপর গুরুত্বারোপ করে তিনি বলেন, একুশ শতকে আমরা জলবায়ু পরিবর্তন থেকে সহিংস উগ্রবাদসহ অনেক ধরনের হুমকির মুখোমুখি এবং আমাদেরকে অবশ্যই জয়ী হতে হবে। আমরা একসঙ্গে এসব চ্যালেঞ্জ সফলভাবে মোকাবিলা করতে পারব বলে আমি বিশ্বাস করি। তিনি আরো বলেন, বাংলাদেশ এবং যুক্তরাষ্ট্র একে অপরকে অনেক সাহায্য করছে এবং করে যাবে, আমাদের নিজেদের জনগণ ও বিশ্বের সাধারণ কল্যাণের জন্য উপায় খুঁজে বের করতে একসাথে কাজ করতে হবে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীও বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের মানুষ তথা সমগ্র মানবতার কল্যাণে দুই দেশকে যৌথভাবে কাজ করে যাওয়ার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার বক্তব্যে বলেন, বাংলার সাহিত্য, সঙ্গীত, সংস্কৃতি নদ-নদী, বৃষ্টি আর পানির ওপর ভিত্তি করেই বিকশিত হয়েছে। এদেশে সকল ধর্ম-বর্ণের মানুষের সমান সুযোগ ও অধিকার রয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে ইউএসএআইডি’র মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের অবদান ও চলমান সহযোগিতার প্রশংসা করে তিনি বলেন, বাণিজ্যিক সম্পর্ক দৃঢ় করতে আমরা ইতোমধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষর করেছি। দুই দেশের বার্ষিক দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ৬ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে। ওষুধসহ আরো কিছু পণ্য খুব শিগগিরই যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে প্রবেশ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। < >
পড়া হয়েছে 775 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: শুক্রবার, 03 জুন 2016 00:22

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা