09162019সোম
শিরোনাম:
বুধবার, 17 ফেব্রুয়ারী 2016 08:42

বাংলাদেশের অগ্রগতিতে সব ধরনের সহযোগিতা প্রদানে যুক্তরাজ্য বদ্ধপরিকর: বৃটিশ হাই কমিশনার

< > সিলেট সংবাদদাতা বাংলাদেশে নবনিযুক্ত বৃটিশ হাই কমিশনার এলিসন ব্লেইক বলেছেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে সব ধরনের সহযোগিতা প্রদানে যুক্তরাজ্য বদ্ধপরিকর। তিনি বলেন বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের দ্বি-পাক্ষিক সুসম্পর্ক ঐতিহাসিক ও তাৎপর্যপূর্ণ। বাংলাদেশের সঙ্গে বিরাজমান সুসম্পর্ক আরো নিবিড় করতে আগ্রহী যুক্তরাজ্য সরকার। বৃটিশ হাই কমিশনার মঙ্গলবার রাতে সিলেট নগরীর একটি হোটেলে সিলেটের বিশিষ্ট জনদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন। প্রথমবারের মত সিলেট সফরে আসা বৃটিশ হাই কমিশনার বরার্ট ব্লেইক সিলেটের সঙ্গে যুক্তরাজ্যের ঐতিহাসিক সম্পর্কের কথা উল্লেখ করে বলেন, বর্তমানে যুক্তরাজ্যে প্রায় ৫ লাখ বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত বৃটিশ নাগরিক রয়েছেন। এর মধ্যে ৯৭ শতাংশই সিলেটের অধিবাসী। শুধুমাত্র সিলেট শহরেই ৪০ হাজার বাড়ি রয়েছে যেগুলোর মালিক বৃটিশ বাংলাদেশীরা। বৃটিশ নাগরিকরা তাদের এদেশে অবস্থানরত আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখেন ও বাংলাদেশ সফরে আসেন। এজন্য বৃটিশ বাংলাদেশীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে স্থানীয় প্রশাসনের সঙ্গেও সুসম্পর্ক গড়ে তুলতে চায় ঢাকাস্থ বৃটিশ হাই কমিশন। মতবিনিময় সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ঢাকাস্থ বৃটিশ হাই কমিশনের কনস্যুলেট হেড হাসিনা রহমান, মিডিয়া এন্ড কমিউনিকেশন সেকশনের প্রধান ফাওজিয়া ইউনিস, সিলেট অফিসের ইনচার্জ রাহিন মঈন চৌধুরী, বৃটিশ কাউন্সিলের সিলেট অফিস প্রধান কফিল হোসাইন চৌধুরীসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। কনস্যুলেট ওয়ার্ডেনদের সাথে বৈঠক : এর আগে বৃটিশ হাই কমিশনার এলিসন ব্লেইক সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থানে কর্মরত বৃটিশ হাই কমিশনের কনস্যুলেট শাখার ওয়ার্ডেনদের সাথে এক সংক্ষিপ্ত বৈঠকে মিলিত হন। ঐ বৈঠকে তিনি সিলেটে অবস্থানত বৃটিশ নাগরিকদের যে কোন সমস্যায় সার্বিক সহযোগিতা প্রদানের জন্য কনস্যুলেট সেকশনের ওয়ার্ডেনদের প্রতি অনুরোধ জানান। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বৃটিশ হাই কমিশনের হাই কমিশনের কনস্যুলেট ওয়ার্ডেন নাট্যকর্মী আমিরুল ইসলাম চৌধুরী বাবু (সিলেট), সাংবাদিক মুহাম্মদ তাজ উদ্দিন (সিলেট), এডভোকেট ইব্রাহিম আলী (সিলেট), প্রভাষক শামীম জামান হেনা (সিলেট), এডভোকেট কামরেল আহমেদ চৌধুরী (মৌলভীবাজার), প্রভাষক এনামুল কবির (জগন্নাথপুর), আনোয়ারুর রহমান (নবীগঞ্জ) ও আহসান ফিরোজ (সুনামগঞ্জ)। < >
পড়া হয়েছে 804 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: বুধবার, 17 ফেব্রুয়ারী 2016 23:07

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা