09202019শুক্র
মঙ্গলবার, 03 মার্চ 2015 22:46

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ফেরানোর বিষয়ে আলোচনা


নিজস্ব প্রতিবেদক

বিএনপি চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা ব্লুম বার্নিকাটসহ ৮টি দেশের রাষ্ট্রদূতরা। প্রায় দুই প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক শেষে অষ্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার গ্রেগ ইউলকক জানিয়েছেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ফেরানোর বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এসময় তিনি একটি লিখিত বিবৃতি পড়ে শোনান।

এতে তিনি বলেন, বাংলাদেশের ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে আমাদের দেয়া পূর্বের বিবৃতি এবং জাতিসংঘ প্রদত্ত বিবৃতিগুলো উদ্বৃত করে আমরা চলমান সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছি। আমরা আস্থা স্থাপনের লক্ষ্যে পদেক্ষপ নিতে উৎসাহ দিয়েছি। একইসঙ্গে বাংলাদেশে নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা, প্রগতি, মানবাধিকার ও গণতন্ত্রের স্বার্থে দেশের রাজনৈতিক উত্তেজনা প্রশমনের আহ্বান জানিয়েছি। বাংলাদেশের বন্ধু এবং অংশীদার হিসেবে, আমরা বিএনপি চেয়ারপার্সনের সঙ্গে বৈঠকের সুযোগকে স্বাগত জানাই। আমরা সকল পক্ষের প্রতি আমাদের অভিন্ন প্রত্যাশা ব্যক্ত করা অব্যাহত রাখবো।

সন্ধ্যা পৌনে ৭টার সময় রাষ্ট্রদূতরা একটি মাইক্রোবাসে করে খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে যান। প্রতিনিধি দলে অন্যদের মধ্যে যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ইতালী, ফ্রান্স, জার্মান, নেদারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার ও রাষ্ট্রদূতরা ছিলেন।

রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ফেরানোর বিষয়ে আলোচনা
কালের কণ্ঠ অনলাইন
শেয়ার - মন্তব্য (1) - প্রিন্ট
অ-অ+

বিএনপি চেয়ারপারসন ও ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতা খালেদা জিয়ার সঙ্গে বৈঠক করেছেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা ব্লুম বার্নিকাটসহ ৮টি দেশের রাষ্ট্রদূতরা। প্রায় দুই প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক শেষে অষ্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার গ্রেগ ইউলকক জানিয়েছেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক স্থিতিশীলতা ফেরানোর বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এসময় তিনি একটি লিখিত বিবৃতি পড়ে শোনান। এতে তিনি বলেন, বাংলাদেশের ঘটনাপ্রবাহ নিয়ে আমাদের দেয়া পূর্বের বিবৃতি এবং জাতিসংঘ প্রদত্ত বিবৃতিগুলো উদ্বৃত করে আমরা চলমান সহিংসতা বন্ধের আহ্বান জানিয়েছি। আমরা আস্থা স্থাপনের লক্ষ্যে পদেক্ষপ নিতে উৎসাহ দিয়েছি। একইসঙ্গে বাংলাদেশে নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা, প্রগতি, মানবাধিকার ও গণতন্ত্রের স্বার্থে দেশের রাজনৈতিক উত্তেজনা প্রশমনের আহ্বান জানিয়েছি। বাংলাদেশের বন্ধু এবং অংশীদার হিসেবে, আমরা বিএনপি চেয়ারপার্সনের সঙ্গে বৈঠকের সুযোগকে স্বাগত জানাই। আমরা সকল পক্ষের প্রতি আমাদের অভিন্ন প্রত্যাশা ব্যক্ত করা অব্যাহত রাখবো।
সন্ধ্যা পৌনে ৭টার সময় রাষ্ট্রদূতরা একটি মাইক্রোবাসে করে খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক কার্যালয়ে যান। প্রতিনিধি দলে অন্যদের মধ্যে যুক্তরাজ্য, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, ইতালী, ফ্রান্স, জার্মান, নেদারল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার ও রাষ্ট্রদূতরা ছিলেন।

- See more at: http://www.kalerkantho.com/online/national/2015/03/03/194434#sthash.uOywiRyM.dpuf
পড়া হয়েছে 866 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: মঙ্গলবার, 03 মার্চ 2015 22:55