11192018সোম
মঙ্গলবার, 21 মার্চ 2017 07:31

ঐতিহাসিক রোজ গার্ডেনে পর্যটন নিয়ে সেমিনার

নিউজ ফ্ল্যাশ প্রতিবেদক পৃথিবীজুড়ে ছড়িয়ে থাকা জাতি, ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে সব ফরাসি ভাষাভাষীর এক অনন্য সাংস্কৃতিক উত্সব ‘ফ্রাঙ্কোফোনি’। এ উত্সবের অংশ হিসেবে বাংলাদেশের পর্যটনের ভবিষ্যত্ নিয়ে ঐতিহাসিক রোজ গার্ডেনে গতকাল অনুষ্ঠিত হলো সেমিনার। বাংলাদেশের ফরাসি দূতাবাস ও ভ্রমণ বিষয়ক ম্যাগাজিন ‘ভ্রমণ’ যৌথভাবে এ সেমিনারের আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন। আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশে ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত সোফি অবার্ট, কানাডার হাইকমিশনার পিয়ো লারামে, বাংলাদেশ টুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, রোজ গার্ডেনের অন্যতম স্বত্বাধিকারী লায়লা রকিব ও ভ্রমণ পত্রিকার সম্পাদক আবু সুফিয়ান। আরো উপস্থিত ছিলেন আলিয়ঁস ফ্রসেজের পরিচালক ব্রুনো প্লাস। রাশেদ খান মেনন বলেন, আওয়ামী লীগের জন্ম হয়েছিল এই রোজ গার্ডেনে। সেই ঐতিহাসিক স্থানে এই আয়োজন বিষয়টির গুরুত্ব বাড়িয়েছে। তিনি জানান, বাংলাদেশ সরকার পর্যটনের বিকাশে নানামুখী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দেশের অভ্যন্তরীণ পর্যটন খাত বিকশিত হচ্ছে। তবে বিদেশিদের বাংলাদেশে ভ্রমণের জন্য বিভিন্ন দিকের উন্নতির দিকে নজর দেওয়া হচ্ছে। ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত সোফি অবার্ট বলেন, ফ্রান্সে টুরিজম মানে ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি মানুষের কাছে তুলে ধরা। বাংলাদেশও সেই পথে এগুতে পারে। তারই অংশ হিসেবে রোজ গার্ডেনে এই আয়োজন করা হয়েছে। কানাডার হাইকমিশনার পিয়ো লারামে বলেন, ফ্রাঙ্কোফোনি হচ্ছে গণতন্ত্র, মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ। তারই অংশ হিসেব দেশে দেশে এ আয়োজন করা হয়। বিশ্বে এই মুহূর্তে ১১০টিরও বেশি দেশের প্রায় ২৮ কোটি মানুষ ফরাসি ভাষায় কথা বলেন। যেসব দেশের প্রধান ভাষা ফরাসি এবং যেসব দেশের কিছু সংখ্যক মানুষ ফরাসি ভাষায় কথা বলেন, ফরাসি সংস্কৃতি লালন করেন সেসব দেশ এই ‘ফ্রাঙ্কোফোনি’ সংগঠনের সদস্য। সংগঠনটির পুরো নাম ‘‘অর্গানাইজেশন ডে লা ফ্রাঙ্কোফোনি’। ফরাসি ভাষী দেশগুলো এবং যেসব দেশে ফরাসি ভাষা শিক্ষার ধারা তৈরি হয়েছে সেসব দেশে নিয়মিতভাবেই এই ফ্রাঙ্কোফোনি উত্সব আয়োজন করা হয়ে থাকে। বাংলাদেশেও কয়েক বছর ধরে আয়োজন করা হচ্ছে এ উত্সব।
পড়া হয়েছে 305 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: মঙ্গলবার, 21 মার্চ 2017 08:37