02192020বুধ
শিরোনাম:
সংবাদ সংস্থা সাঁতার কাটার খুব ইচ্ছে আপনার। কিন্তু সংক্রমের ভয়ে এগোতে সাহস পাচ্ছেন না। আর চিন্তা নেই। বিকিনি পরে নামুন। গায়ে একটুও ময়লা লাগবে না। স্রেফ বিকিনিতেই পরিষ্কার হবে জলের নোংরা! কী ভাবে? ইউনিভার্সিটি অফ ক্যালিফোর্নিয়ার এক দল গবেষকের সাম্প্রতিক গবেষণায় উঠে এসেছে এমন তথ্য। এক বিশেষ ধরনের থ্রি-ডি প্রিন্টেড বিকিনি পরে জলে সাঁতার কাটতে নামলে নাকি জলের সব ময়লা গায়ে লাগবে না। বোর্নস কলেজ অফ ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের ইলেকট্রিকাল ইঞ্জিনিয়ার মিহরি ওজকান জানিয়েছেন, ‘‘খুব ভাল মেটিরিয়ালে তৈরি এই বিকিনি পরিবেশের জন্য একেবারেই ক্ষতিকর নয়। তবে তৈরি করাটা বেশ খরচসাপেক্ষ।’’ চার বছর আগে এই বিশেষ ধরনের বিকিনি তৈরির প্রস্তুতি শুরু হয়। অবশেষে সাফল্য এল বলেই দাবি গবেষকদের। এই সুইম স্যুট পরে সাঁতার কাটলে জলে মিশে থাকা যে কোনও ধরনের ময়লা ও তেল পিউরিফাই হয়ে যায়৷ এটি যেমন জল শুষে নিতে পারে, ঠিক তেমনই যে কোনও ধরনের সংক্রমণ আটকাতে পারে৷ আবার কয়েকবার ব্যবহারের পর প্যাডও বদলে ফেলতে পারেন
নিজস্ব প্রতিবেদক চলতি হজ্জ মৌসুমে পবিত্রভূমি মক্কায় হজ্জ পালন শেষে ফিরতি হজ্জ-ফ্লাইট কার্যক্রমের আওতায় আজ পর্যন্ত ৬৮হাজার ৯শ’ ৫১ জন হাজী দেশে ফিরেছেন। এরমধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ৯০টি হজ্জ-ফ্লাইটে ৩৫ হাজার ৮শ’ ৪৮ জন হাজী, ৭৭টি ডেডিকেটেড ও ১৩টি শিডিউল ফ্লাইটের মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে আনে। অবশিষ্ট ৩৩ হাজার ১০৩ জন হাজী সৌদি এয়ারলাইন্সের মাধ্যমে দেশে ফিরেছেন। আজ বিমানের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি জানায়, আজ আরও ২টি বিমানের হজ্জ-ফ্লাইটে হাজীরা দেশে ফিরবেন। ২৮ সেপ্টেম্বর থেকে শুরু হওয়া মাসব্যাপী এই পোষ্ট হজ্জ-ফ্লাইট কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স ৫৪,৮৪৫ জন হাজীকে জেদ্দা-ঢাকা রুটে বাংলাদেশে নিয়ে আসবে। তন্মধ্যে ২৭৪২ জন ব্যালটি হাজী অবশিষ্ট ৫২,১০৩ জন নন-ব্যালটি হাজী। ডেডিকেটেড ও শিডিউল ফ্লাইট মিলিয়ে বর্ণিত সময়ে বিমান মোট ১৪০টি হজ্জ-ফ্লাইট পরিচালনা করবে। অবশিষ্ট হাজীগণা আগামী ২৮ অক্টোবরের মাধ্যে দেশে ফিরবেন বলে আশা করা হচ্ছে। বাংলাদেশ থেকে এ বছর সরকারী ব্যবস্থাপনায় ২৭৪২ জন হজ্জ-যাত্রীসহ মোট ১০৭,২৯০ হজ্জ-যাত্রী হজ্জব্রত পালনে সৌদি আরব গেছেন। বিমান ১১৯টি ডেডিকেটেড ও ৩৩টি শেড্যুল ফ্লাইটসহ ১৫২টি ফ্লাইটের মাধ্যমে মোট ৫৪,৮৪৫ জন হজ্জ-যাত্রী পরিবহন করে। আগামী ২৮ অক্টোবর সর্বশেষ ফিরতি হজ্জ-ফ্লাইট পরিচালিত হবে। উল্লেখ্য, গত ১৬ আগষ্ট বিমান বাংলদেশ এয়ারলাইন্সের ‘হজ্জ-ফ্লাইট কার্যক্রম-২০১৫’-এর শুভারম্ভ হয়।
শুক্রবার, 16 অক্টোবার 2015 20:33

বেড়িয়ে আসুন বগালেক

বান্দরবানের রুমা উপজেলায় কেওক্রাডাং-এর পাশ ঘেঁষে শহর থেকে প্রায় ৭০ কিলোমিটার দূরে বগালেকের অবস্থান। বগালেক ড্রাগন লেক নামেও পরিচিত। রুমা বাজার থেকে হেঁটে অথবা চান্দের গাড়ি করে যেতে পারেন। হাঁটা পথে ঝিরিপথ ধরে গেলে ৫ ঘন্টার মত সময় লাগতে পারে। আর চান্দের গাড়িতে গেলে সময় লাগবে ২ ঘন্টা ৩০ মিনিটের মত। লেকের নিচ থেকে ট্রাকিং করে উপরে উঠতে সময় লাগবে ৪৫ মিনিটের মত।এই হ্রদের মজার বিষয় হল হ্রদটি তিনদিক থেকে পর্বতশৃঙ্গ দ্বারা বেষ্টিত। এটি প্রাকৃতিক ভাবে পাহাড়ের চূড়ায় তৈরি। অদ্ভুত সুন্দর ও মনোরম এই লেকের গভীরতা এখনো সঠিকভাবে মাপা যায়নি। তবে জানা যায় এর গভীরতা আড়াইশ' মিটারের মত।বেড়িয়ে আসুন বগালেক এই লেকের আরেক অদ্ভুত বিষয় হল লেকের পানি প্রতি বছর এপ্রিল থেকে মে মাসের দিকে ঘোলাটে হয়ে যায়। আর সেই সাথে লেকের আশপাশের নদীর পানিও ঘোলাটে রং ধারণ করে।লেকের ভেতর প্রচুর বড় বড় মাছ দেখা যায়। প্রচুর পরিমাণে জলজ লতাপাতা আর খাড়া পাথরের পাড়ের কারণে সাঁতার কাটার সময় সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।বগালেকের প্রধান দর্শনীয় স্থানগুলো হল আর্মি ক্যাম্প, সিয়াম দি'র কটেজ, বম ও মুরংদের গ্রাম।রাতের বেলায় বগালেক অদ্ভুত সুন্দর রূপ ধারণ করে। পূর্ণিমার সময় যেতে পারলে পুরো রূপ উপভোগ করতে পারবেন। বগালেক থেকে কেওক্রাডাং কাছেই। ইচ্ছা করলে সেখান থেকেও ঘুরে আসতে পারেন।
শনিবার, 03 অক্টোবার 2015 12:35

বিমানের টয়লেটে যৌন ব্যবসা

ডেস্ক ঝাঁ চকচকে জীবন। পাঁচতারা হোটেলে থাকা। কাজই যখন আকাশে উড়ে বেড়ানো, তখন এ সব তো চলেই আসে। কিন্তু না চাইতেই আরও কয়েকটি ব্যাপারও সঙ্গে আসে। পরিবার-পরিজন, স্বামী-সন্তান থেকে দূরে থাকা। আজ নিউ ইয়র্ক তো কাল নিউ সাউথ ওয়েল্স। এ সবের মাঝেই ব্যক্তিগত চাহিদা, ইচ্ছে-অনিচ্ছে ধীরে ধীরে পেছনের সারিতে চলে যায়। কিন্তু সব চাহিদা তো স্থান-কাল-পাত্র দেখে না। তাই কর্মক্ষেত্রেই চাহিদা পূরণের দিকটা দেখছেন অনেক এয়ার হোস্টেস। সম্প্রতি এমন একটি ঘটনা সামনে এসেছে যা শুনলে এমনটাই মনে হবে। মধ্যপ্রাচ্যের একটি বিমান সংস্থায় কর্মরত বিমানসেবিকা এক যাত্রীর সঙ্গে সঙ্গমরত অবস্থায় বিমানের মধ্যেই ধরা পড়েন। তার স্বীকারোক্তি শুনে অনেকেরই চোখ ছানাবড়া হওয়ার জোগাড়। তিনি দাবি করেছেন, এ ভাবে যাত্রীদের সঙ্গে সেক্স করার বিনিময়ে চড়া দাম নিতেন তিনি। রোজগার করেছেন প্রায় ৭ লক্ষ পাউন্ড। বেতন তো ছিলই তবে এ ভাবে উপরি আয়ের হাতছানি সহজে ছাড়তে পারেননি তিনি। তাই লং ডিসট্যান্স ফ্লাইটেই বেশি কাজ করতে পছন্দ করতেন। দুবাইয়ের একটি সংবাদপত্রে প্রকাশ পেয়েছে, ওই এয়ার হেস্টেস সেক্সের বিনিময়ে দেড় হাজার পাউন্ড দাবি করতেন যাত্রীদের কাছে। এটাই শেষ নয়। জাপানের এয়ার হোস্টেসরাও এই কাজে নাকি সিদ্ধহস্ত। মাঝ আকাশে বিমান চালক এবং অন্যান্য ক্রু মেম্বারদের সঙ্গে সেক্সের বিনিময়ে তারাও এ ভাবে রোজগারের অন্য পন্থা বার করেছেন। কিন্তু এত জাঁকজমকের জীবনে, ভালো বেতনের সঙ্গে এর সম্পর্ক রয়েছে কি? উত্তরটা এয়ার হোস্টেসরাই দিয়েছেন। অনেকেই জানিয়েছেন, শুধুমাত্র রোজগারই একমাত্র কারণ নয়। দীর্ঘ দিন নিকট জনের কাছ থেকে দূরে থাকায় শারীরিক চাহিদাও এর পেছনে অন্যতম কারণ।
ডেস্ক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের শিল্পের উন্নয়ন ও প্রসারের লক্ষ্যে ‘ভিজিট বাংলাদেশ ২০১৬’ সফল করতে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি উদ্যোক্তাদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন। বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে গত ২৩ সেপ্টেম্বর দেয়া এক বাণীতে প্রধানমন্ত্রী এ আহবান জানান। আগামীকাল ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস। বিশ্বের অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও দিবসটি পালিত হচ্ছে। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘১ বিলিয়ন পর্যটক : ১ বিলিয়ন সম্ভাবনা’। বাণীতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পর্যটন শিল্পের বিকাশের মাধ্যমে বিপুল সংখ্যক কর্মসংস্থান সৃষ্টি, বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনসহ অর্থনৈতিক উন্নয়নের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। পাশাপাশি স্থানীয় ও বিদেশি পর্যটকদের সামনে আমরা স্থানীয় সংস্কৃতি, কৃষ্টি, ঐতিহ্য তুলে ধরতে পারি। এ জন্য বর্তমান সরকার পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন ও বিকাশে বিভিন্নমুখী কার্যক্রম গ্রহণ করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, বাংলাদেশকে বিশ্বদরবারে আকর্ষণীয় পর্যটন গন্তব্য হিসেবে তুলে ধরতে ২০১৬ সালকে ‘পর্যটন বর্ষ’ ঘোষণা করা হয়েছে। ‘ভিজিট বাংলাদেশ ২০১৬’ শীর্ষক প্রচারণামূলক কর্মসূচির আওতায় বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণ করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশে পর্যটন শিল্পের বিকাশের লক্ষ্যে ১৯৭২ সালে পর্যটন কর্পোরেশন গঠন করেন। তিনি ‘বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০১৫’ এর সর্বাঙ্গীণ সফলতা কামনা করেন।
মঙ্গলবার, 22 সেপ্টেম্বর 2015 23:45

করমেলায় ২০৩৫ কোটি টাকার রাজস্ব আদায়

নিজস্ব প্রতিবেদক এবার দেশব্যাপী আয়কর মেলায় ২০৩৫ কোটি ৩২ লাখ টাকার রাজস্ব আয় হয়েছে। যা গত অর্থবছরের মেলায় আদায় হওয়া রাজস্ব আয়ের চেয়ে ২১ শতাংশ বেশি। গতবছর মেলায় রাজস্ব আয়ের পরিমাণ ছিলো ১৬৭৫ কোটি ২৮ লাখ টাকা। মঙ্গলবার ছিলো আয়কর মেলার শেষ দিন। এনবিআরের দেওয়া তথ্যমতে, এবছর করমেলায় ১ লাখ ৬১ হাজার ৬০ জন আয়কর বিবরণী দাখিল করেছেন। গত অর্থবছর এর পরিমাণ ছিলো ১ লাখ ৪৯ হাজার ৩০০। একইসঙ্গে এবার মেলায় ৭ লাখ ৫৭ হাজার ৭৫৪ জন করদাতাকে সেবা প্রদান করেছে এনবিআর। সপ্তাহব্যাপী মেলা ১৬ সেপ্টেম্বর শুরু হয়। সব বিভাগীয় ও জেলা শহরের বাইরে এবার ৮৬টি উপজেলায় করমেলা অনুষ্ঠিত হয়।
ডেস্ক ভারতে তাজমহলের সিঁড়িতে সেলফি তোলার সময় পা পিছলে পড়ে জাপানি এক পর্যটকের মৃত্যু হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে খবরটি জানিয়েছে বিবিসি। প্রত্যক্ষদর্শী সাগর সিং বিবিসি’কে বলেন, 'তাজমহলের রাজকীয় ফটকের উপর ‘সেলফি’ তোলার সময় ওই পর্যটক সিঁড়ি থেকে পড়ে যান।' পুলিশ জানায়, পড়ে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তিনি জ্ঞান হারান। মাথায় গুরুতর আঘাত পেয়েছিলেন তিনি। হাসপাতালে নেয়ার পর তার মৃত্যু হয়। আগ্রার পর্যটক পুলিশ কর্মকর্তা সুশান্ত গৌড় বলেন, দুর্ঘটনার সময় জাপানের ওই পর্যটকের সঙ্গে আরো তিনজন ছিলেন, যাদের একজন পড়ে গিয়ে পায়ে ব্যাথা পান। তার পায়ের হাড়ে চিড় ধরেছে। ওই পর্যটকের মৃত্যুর খবর জাপানের দূতাবাসে জানানো হয়েছে। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্ত শুরু হয়েছে বলেও জানান তিনি। সাম্প্রতিক সময়ে সেলফি তুলতে গিয়ে হরহামেশাই এ ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে দেখা যাচ্ছে। ভারতেও 'দুঃসাহসিক' সেলফি তুলতে গিয়ে মারা যাওয়ার ঘটনা বিরল নয়। দেশটিতে চলন্ত ট্রেনের সামনে সেলফি তুলতে গিয়ে এক তরুণ কাটা পড়েছিল। মে মাসে মস্কোয় ২১ বছর বয়সী এক তরুণী বন্দুক মাথায় ধরে সেলফি তোলার সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা গিয়েছিল। অগাস্টে স্পেনে দেশটির ঐতিহ্যবাহী ‘বুল রানিং’ উৎসবে দৌড়ানোর সময় সেলফি তুলতে গেলে ষাঁড়ের শিংয়ের আঘাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়।
নিজস্ব প্রতিবেদক বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন বলেছেন, দেশের সম্ভাবনাময় পর্যটন শিল্পের উন্নয়ন এবং বাংলাদেশের ট্যুরিস্ট এরিয়াগুলোকে পর্যটক আকর্ষণীয় করে তুলতে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশে ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতির নানা সংস্কৃতি রয়েছে। এগুলোকে পর্যটকদের জন্য আকর্ষণীয়ভাবে উপস্থাপন করতে পারলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। তাই পর্যটন কেন্দ্রগুলোকে পর্যটক আকর্ষণীয় করে তুলতে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়, বিভাগ, দপ্তর ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোর সমন্বয়ে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। এ লক্ষ্যে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করছে।’ মঙ্গলবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে আয়োজিত এক কর্মশালায় এসব কথা বলেন তিনি। আগামী ২৭-২৮ অক্টোবর ঢাকায় অনুষ্ঠিতব্য ‘বুদ্ধিষ্ট হেরিটেজ সার্কিট ট্যুরিজম’ শীর্ষক আন্তর্জাতিক সম্মেলনের প্রস্তুতিমূলক এ কর্মশালায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, বেসামরিক বিমান ও পর্যটন বিষয়ক সচিব খোরশেদ আলম চৌধুরী, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশনের চেয়ারম্যান ড. অপরূপ চৌধুরী এবং বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার আখতারুজ্জামান খান কবির। বাংলাদেশের সম্ভাবনাময় বৌদ্ধ পূরাকীর্তি, স্থাপত্য, ঐতিহাসিক নিদর্শন, সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যসমূহ এবং দেশের দক্ষিণ পূর্বাঞ্চলের লিভিং বুদ্ধিষ্ট হেরিটেজসমূহ বিশ্বের কাছে তুলে ধরার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড এ কর্মশালা আয়োজন করে। এ কর্মশালা থেকে প্রাপ্ত তথ্যসমূহের ভিত্তিতে উন্নয়ন পরিকল্পনা গ্রহণের লক্ষ্যে একটি সুপারিশ প্রণয়ন করা হবে। আগামী ২৭-২৮ অক্টোবর ঢাকায় অনুষ্ঠেয় আন্তর্জাতিক সম্মেলনে এ সুপারিশমালা উপস্থাপন করা হবে। এ লক্ষ্যে কর্মশালায় চারটি প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয়। প্রবন্ধসমূহে বৌদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য, পুরাকীর্তি ও লিভিং হেরিটেজসমূহের বর্তমান অবস্থা, চ্যালেঞ্জ, প্রতিকার, সম্ভাবনা ও পর্যটন সম্পর্কিত গুরুত্ব উপস্থাপন করা হয়। রাশেদ খান মেনন বলেন, দেশে অনেক স্থাপত্য কীর্তি রয়েছে, যা সহজেই পর্যটক আকর্ষনীয় হয়ে উঠতে পারে। কিন্তু আমাদের দেশে পর্যটন সংস্কৃতি গড়ে না ওঠায় আমাদের এই অমূল্য সম্পদ আমরা কাজে লাগাতে পারছিনা। উপরন্তু স্থানীয় জনসাধারণের মধ্যে এ সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারনা থাকায় পর্যটকদের নিরাপত্তার অভাব ঘটছে। তিনি ট্যুরিজম সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে সচেতন করে তুলতে সরকারের পাশাপাশি প্রাইভেট অপারেটর ও গণমাধ্যমকে সম্মিলিতভাবে কাজ করার আহ্বান জানান। সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় গণমাধ্যমসহ সব স্টেকহোল্ডরদের নিয়ে একটি ‘টাস্কফোর্স’ গঠনের সুপারিশ করেন। তিনি বলেন, একটি সমন্বিত উদ্যোগ হিসেবে এই টাস্কফোর্স পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে বাধাসমূহ চিহ্নিত করবে এবং সমাধানের উপায় খুঁজে বের করবে। তিনি এ ব্যাপারে প্রাইভেট সেক্টরকে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানান।
ডেস্ক যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক শহরের ব্যস্ত এলাকা টাইম স্কয়ারসহ অন্যান্য বেশ কিছু এলাকায় মেয়েদের 'খুললাম খুল্লা' নামের পোশাক নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। এ ধরনের পোশাক পরিহিত নারীদের ওপর ক্ষুব্ধ হয়েছেন মেয়র ডি ব্লাজিও। নানা মহলের আপত্তির মুখে ওই নারীদের তৎপরতা বন্ধে উপায় খোঁজার কথা জানিয়েছেন মেয়র ব্লাজিও। এ ক্ষেত্রে আইন প্রয়োগ করার কথা বলেছেন তিনি। জানা যায়, টাইম স্কয়ারে প্রায়ই জেগে থাকা একদল প্রায় বিবস্ত্র নারী তাঁদের শরীরে নানা আঁকিবুঁকি নিয়ে নানা রংঢঙে পর্যটকদের মনোযোগ আকর্ষণে ব্যস্ত থাকেন। লোকজনের সঙ্গে ছবি তোলার বিনিময়ে তাঁরা বকশিশ নেন। এভাবে তাঁদের ভালো রোজগার হয়। নিউ ইয়র্কে অর্ধনগ্ন হয়ে শরীরে চিত্র আঁকা এবং তা প্রদর্শন বেআইনি নয়। এ ব্যাপারে নানা মহল আপত্তি জানিয়ে আসছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কের মেয়র ডি ব্লাজিও বলেন, টাইম স্কয়ারে এসব নারী তাঁদের নাগরিক অধিকারের চেয়ে বেশি কিছু করছেন। শরীরে আঁকা ছবি দেখিয়ে তাঁরা উপার্জনে নেমেছেন। তাঁদের তৎপরতা বন্ধের উপায় খোঁজা হচ্ছে। যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানে প্রথম সংশোধনীতে নাগরিকদের মত ও অভিব্যক্তি প্রকাশ করার অধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে। অধিকার প্রকাশ করে অর্থ উপার্জন নিয়ন্ত্রণ করা যায় কিনা- তা এখন খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এটি নিয়ন্ত্রণে ব্যবসা-সংক্রান্ত আইন প্রয়োগ করার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। নাগরিক অধিকারকর্মীদের ভাষ্য, আইন অনুযায়ী টাইম স্কয়ারের ওই নারীদের নিয়ন্ত্রণ করার তেমন সুযোগ নেই।
বিশেষ প্রতিনিধি বিদেশী এয়ারলাইন্সের কাছ থেকে লিজে আনার এক সপ্তাহের মধ্যেই বিকল হয়ে পড়েছে বোয়িং ৭৬৭-৩০০ ইআর উড়োজাহাজ। বৃহস্পতিবার এই উড়োজাহাজটি আবুধাবি থেকে চট্টগ্রাম হয়ে ঢাকায় হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণকালে অল্পের জন্য দুর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা পায়। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স চলতি হজ মৌসুমে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চলাচলে সম্ভাব্য বিপর্যয় এড়াতে মেগা মালদ্বিপ এয়ারলাইন্সের কাছ থেকে ৩০০ আসন বিশিষ্ট উক্ত বোয়িং উড়োজাহাজটি তিন মাসের জন্য লীজ নিয়েছে। গত ১৫ আগস্ট এটি ঢাকায় পৌঁছে। বুধবার এই উড়োজাহাজটি ঢাকা থেকে যাত্রী নিয়ে আবুধাবি যায় এবং বৃহস্পতিবার সকালে আবুধাবি থেকে চট্টগ্রাম আসে। সেখানে কিছু যাত্রী নামিয়ে সকাল ১০টা ৫ মিনিটে চট্টগ্রাম শাহ আমানাত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশে উড্ডয়ন করে। কিন্তু শাহজালাল বিমানবন্দরে অবতরণের আগেই আকাশে এই উড়োজাহাজের ল্যান্ডিং গিয়ারে মারাত্মক কারিগরি ত্রুটি দেখা দেয়। পাইলট ঝুঁকি নিয়েই উড়োজাহাজটি অবতরণ করান। সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীরা বিমানবন্দরে হ্যাঙ্গারে নিয়ে এর কারিগরি ত্রুটি নির্ণয় এবং তা দূর করার চেষ্টা করছেন। তবে আপাতত এই উড়োজাহাজ দিয়ে ফ্লাইট পরিচালনা সম্ভব নয় বলে বিমানের একজন পদস্থ কর্মকর্তা জানিয়েছেন। এদিকে লীজে আনা উড়োজাহাজটি অকেজো হয়ে পড়ায় আবুধাবি, মাস্কাট, কুয়ালালামপুরসহ বিভিন্ন রুটে বিমানের ফ্লাইট চলাচল বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বিমানের কোন কর্মকর্তাই মুখ খুলতে রাজি হননি।

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা