11192018সোম
বৃহস্পতিবার, 07 জুন 2018 10:42

ট্রাম্পের লক্ষ্য উ. কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের সময়সীমা বাঁধা

লিখেছেন 
আইটেম রেট করুন
(0 ভোটসমূহ)
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও উত্তর কোরিয়ার সর্বোচ্চ নেতা কিম জং উনের মধ্যকার বৈঠকের ভেন্যু সিঙ্গাপুরের সেন্টোসা দ্বীপে ক্যাপেলা হোটেল। গত মঙ্গলবার এ তথ্য জানায় হোয়াইট হাউস। বৈঠকে ট্রাম্পের অন্যতম লক্ষ্য থাকবে উনের কাছ থেকে উত্তর কোরিয়াকে পরমাণু অস্ত্রমুক্তকরণের নির্দিষ্ট সময়সীমা আদায় করে নেওয়া। ট্রাম্প-উনের মধ্যকার বৈঠকটি হতে যাচ্ছে আগামী ১২ জুন। যুক্তরাষ্ট্রের কোনো ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্টের সঙ্গে উত্তর কোরীয় নেতার সাক্ষাৎ এটাই প্রথম। এদিন স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় এ দুই নেতা মুখোমুখি হতে যাচ্ছেন—এ খবর গত সোমবারই নিশ্চিত করে হোয়াইট হাউস। পরদিন মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স এক টুইট বার্তায় ক্যাপেলা হোটেলে বৈঠক হওয়ার খবর নিশ্চিত করেন। আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, উনের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতে তাঁকে ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় পাম বিচে মার-এ-লাগো রিসোর্টে পরবর্তী সাক্ষাতের জন্য আমন্ত্রণ জানানোর পরিকল্পনা করছেন। তবে হোয়াইট হাউস থেকে এ ধরনের কোনো তথ্য জানানো হয়নি। এদিকে পর্যবেক্ষকদের ধারণা, ১২ জুনের বৈঠক ইতিবাচক হলে এ দুই নেতার আলোচনা পরদিন ১৩ জুন পর্যন্ত বর্ধিত হতে পারে। সিঙ্গাপুরের বৈঠককালে উনকে সহজে কোনো ছাড় না দিতে ট্রাম্পকে পরামর্শ দেওয়া হয়েছে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো। কেননা হোয়াইট হাউসের প্রধান লক্ষ্য হলো উনের ওপর সর্বোচ্চ চাপ বজায় রেখে বৈঠককে যুক্তরাষ্ট্রের উদ্দেশ্য অনুযায়ী সফল করা। বলা দরকার, ট্রাম্প-উন বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা সৃষ্টির শুরু থেকেই যুক্তরাষ্ট্র দাবি করে আসছে, উত্তর কোরিয়াকে ‘সম্পূর্ণ, যাচাইযোগ্য ও অপরিবর্তনীয়’ উপায়ে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত করতে হবে। আসন্ন বৈঠকে এটাই মূল ইস্যু হিসেবে থাকছে, যদিও এ ইস্যুতে দুই পক্ষ কেমন সমঝোতায় পৌঁছবে, তা খুবই অনিশ্চিত। বৈঠকে ট্রাম্পের সঙ্গে থাকছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও, চিফ অব স্টাফ জন কেলি ও জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন। যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা, নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন দপ্তরের কোরিয়া বিষয়ক বিশেষজ্ঞসহ অন্য কর্মকর্তাদের বৈঠকে অংশগ্রহণের চূড়ান্ত তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি। বৈঠকের সাফল্য-ব্যর্থতা নিয়ে চরম অনিশ্চয়তা রয়েছে বটে, তবে একে ঘিরে নিরাপত্তা ব্যবস্থায় কোনো ত্রুটি রাখা হচ্ছে না। আগামী ১১, ১২ ও ১৩ জুন সিঙ্গাপুরে বিমান চলাচলের সংখ্যা ও ওঠানামার ক্ষেত্রে গতিসীমা উভয়ের ওপর সীমাবদ্ধতা আরোপ করা হয়েছে। সিঙ্গাপুরে অবস্থানকালে ট্রাম্প ও উন উভয়ই দেশটির মূল ভূখণ্ডে থাকবেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সম্ভবত ট্রাম্প থাকবেন সাংগ্রি-লা হোটেলে এবং উন সেন্ট রেজিস সিঙ্গাপুরে। সূত্র : ব্লুমবার্গ, বিবিসি, স্ট্রেইট টাইমস।
পড়া হয়েছে 52 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: বৃহস্পতিবার, 07 জুন 2018 10:54

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা