08232019শুক্র
নিউজফ্ল্যাশ ডেস্ক : করাচি বিমানবন্দরে জঙ্গি হামলার ঘটনার আজ তীব্র ভাষায় নিন্দা করল নয়াদিল্লি। বিদেশ মন্ত্রকের মতে, পাকিস্তানের সঙ্গে দীর্ঘদিনের থমকে যাওয়া শান্তি প্রক্রিয়া ফের শুরু করেছে নরেন্দ্র মোদী সরকার। তখনই নওয়াজ শরিফের সরকারকে অস্থির করার এই চেষ্টা যথেষ্ট উদ্বেগজনক। আনন্দবাজার পত্রিকা। কূটনীতিকদের মতে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে পাক নেতৃত্বের বৈঠকের প্রেক্ষিতেই এই হামলা হয়েছে এমনটা নাও হতে পারে। এর পিছনে পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ অস্থিরতা ও তালিবানি সন্ত্রাস দায়ী বলে অনুমান ভারতীয় গোয়েন্দাদের। আজ বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র সৈয়দ আকবরুদ্দিন হামলার নিন্দা করে জানান, “দশ জঙ্গির এই হামলার কঠোর নিন্দা করা উচিত।” কূটনৈতিক শিবিরের মতে, এই বক্তব্যের মাধ্যমে ইসলামাবাদকে একটি বার্তাও দিতে…
ড. সা'দত হুসাইনছাত্রজীবনের প্রায় শেষভাগে ঋত্বিক ঘটকের 'মেঘে ঢাকা তারা' ছবিটি দেখেছিলাম। ঢাকার শিক্ষিত সমাজে ছবিটি বড় রকমের সাড়া জাগিয়েছিল। ছবির নায়িকার (সুপ্রিয়া) করুণ আর্তি- 'দাদা, আমি বাঁচতে চাই' আজও কানে বাজে। মুহূর্তের জন্য হলেও উদাস হয়ে ভাবি, জীবন কী, জগৎ কী, জীবনের সঙ্গে জগতের কী সম্পর্ক। মৃত্যুএত করুণ কেন? এসব প্রশ্নের কোনো উত্তর পাইনি। তবে নির্দ্বিধায় মনে হয়েছে, একমাত্র জালেম, হত্যাকারী ও পাপিষ্ঠ ছাড়া সব মানুষের মৃত্যুই দুঃখজনক, বেদনাবহ; এমনকি বয়োবৃদ্ধের মৃত্যুও। আর কোনো হত্যাই আমি সহজে গ্রহণ করতে পারি না; যুদ্ধ ক্ষেত্রের হত্যাও নয়।প্রাণিজীবনের সবচেয়ে প্রিয়তম ও মূল্যবান সম্পদ হচ্ছে তার প্রাণ। প্রাণের অবসানে প্রাণী হয়ে যায় একটি…
ষোড়শ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফলে এ কথা স্পষ্ট হয়ে গেল যে, নানা ভাষা, নানা মতের, নানা বিভাজনরেখায় চিহ্নিত বিচিত্র ও বিশাল এই দেশকে নরেন্দ্র মোদী অন্তত কিছু দিনের জন্য হলেও একসূত্রে বেঁধে দিতে পেরেছেন তাঁর অতিপ্রত্যয়ী অভিব্যক্তিতে। শিবাজীপ্রতিম বসু।তাঁর ঘরে বসে তিনি যখন কোনও সাক্ষাত্কার দেন, তখন এক বাঙালি সন্ন্যাসীর মূর্তি টেলিভিশনের কল্যাণে আমরা সকলেই দেখতে পাই। শোনা যায়, সেই বাঙালি সন্ন্যাসীর আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে তিনি নিতান্ত বালক বয়সে বেলুড় মঠে এসেছিলেন সন্ন্যাসী হতে। এই সন্ন্যাসী, স্বামী বিবেকানন্দ নিতান্ত তরুণ বয়সে পরিব্রাজক হয়ে এক ‘ভারত ভাবনা’ গড়ে তুলেছিলেন: দরিদ্র, মূর্খ, ব্রাহ্মণ-চণ্ডাল, নানা জাতি-বর্ণ-ভাষার নানা মুখের এক উজ্জীবিত ঐক্যবদ্ধ ভারত ভাবনা।আজ যখন…
মোদী বিশ্বাস করাতে পেরেছেন, বিভাজনের ওপর নির্ভরশীল রাজনীতির বদলে তিনি একটা জাতীয় লক্ষ্য নির্মাণের কাজে নেতৃত্ব দিতে সমর্থ। বিদ্যুৎ চক্রবর্তী।২০১৪ লোকসভা নির্বাচনের ফলাফল নরেন্দ্র মোদীর উত্থানকে প্রশ্নাতীত স্বীকৃতি দিল। তাঁর নেতৃত্বে বিজেপি যে জয় লাভ করল, চাইলে কোনও শরিক ছাড়াই তাদের পক্ষে সরকার গঠন করা সম্ভব। ২০০২-এর গুজরাত দাঙ্গার দায় নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে প্রবল প্রচার সত্ত্বেও তিনি বডোদরা এবং বারাণসীতে জয়ী বডোদরায় বিপুল ভোটে। প্রশ্ন হল, ভারতীয় রাজনীতিতে মোদী কীসের প্রতীক?প্রথমত, নরেন্দ্র মোদী দুর্নীতিমুক্ত সুশাসনের ভিত্তিতে যে শক্তিশালী ভারত গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তাতে ভোটাররা বিপুল সাড়া দিয়েছেন। লক্ষণীয়, বিজেপি দীর্ঘ কাল যে সব বিতর্কিত বিষয় নিয়ে প্রচার করে এসেছে, নির্বাচনী…
‘প্রধানমন্ত্রী হলে মোদী নিশ্চয় ২০০২-এ যা হয়েছে, তা আর হতে দেবেন না, হিন্দুত্বের ধ্বজাধারী হবেন না।’ এটাই বিশ্বাস করতে চাইছেন বহু মানুষ। লিখছেন তাজুদ্দিন আহমেদ। আনন্দবাজার পত্রিকা।সাধারণ নির্বাচনের কয়েকটি দফা সম্পন্ন হয়েছে, কয়েকটি বাকি। নরেন্দ্র মোদী ভারতবর্ষের প্রধানমন্ত্রী হবেন কি না তা বোঝার জন্য ফল ঘোষণা পর্যন্ত অপেক্ষা করতেই হবে। তৎসত্ত্বেও মোদীর সদর্প ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা, মেঘের আড়ালে থাকা যোদ্ধার মতো আর এস এস-এর তৎপরতা, সংবাদমাধ্যমগুলিতে মোদীকে নিয়ে উদ্দীপনা লক্ষ করলে মনে হতেই পারে যে, নরেন্দ্র মোদীর প্রধানমন্ত্রিত্ব নিয়ে বুঝি সংশয় বা সন্দেহের অবকাশ নেই। ভারতীয় জাতীয় কংগ্রেস-সহ বর্তমানে দেশের ক্ষমতায় থাকা ইউপিএ জোটের অন্যান্য দলগুলি এই ধারণার বিরোধিতা করার যথাসাধ্য…
এইচ টি ইমাম মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র নতুন কিছু নয়। এই ষড়যন্ত্র যেমন দেশের অভ্যন্তর থেকে পাকিস্তানপন্থিরা করেছে, তেমনি পাকিস্তানও করেছে। পাকিস্তান সফল হয়নি, পাকিস্তানপন্থিরাও সফল হবে না। সারা বিশ্বের ইতিহাসে বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ অধিকার বঞ্চিত ও নিপীড়িত মানুষের এক ঐতিহাসিক ত্যাগের সংগ্রাম। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ সত্যিকার অর্থে একটি অনন্য জনযুদ্ধ ছিল। এই জনযুদ্ধের মহানায়ক জাতির পিতা, বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা, স্থপতি এবং প্রথম রাষ্ট্রপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যার সুদূরপ্রসারী ও দূরদৃষ্টিসম্পন্ন নেতৃত্বে সমগ্র জাতি একতাবদ্ধ হয়ে সশস্ত্র মুক্তি সংগ্রামের মধ্য দিয়ে অর্জন করে কাঙ্ক্ষিত স্বাধীনতা। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান তার ছাত্রাবস্থা থেকেই গণমানুষের দাবি আদায়ের বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামের সঙ্গে সম্পৃক্ত…
শুক্রবার, 18 এপ্রিল 2014 11:08

১৭ এপ্রিল ও ইতিহাসের ঘাতকরা

হারুন হাবীব 'মার্ডার অব হিস্ট্রি'। বইটির বাংলা নাম দাঁড়ায় এ রকম : 'ইতিহাস হত্যা'। পাকিস্তানের স্বনামখ্যাত ইতিহাসবিদ ও রাষ্ট্রবিজ্ঞানী কে কে আজিজের লেখা গুরুত্বপূর্ণ বইটি লাহোরের 'ভ্যানগার্ড' প্রকাশনা সংস্থা প্রকাশ করে অনেক আগে। এ বইতে তিনি দেখিয়েছেন কিভাবে পাকিস্তানের স্কুল টেস্ট বইয়ে পরিকল্পিতভাবে বছরের পর বছর ইতিহাস হত্যা হয়েছে। তিনি আরো দেখিয়েছেন কিভাবে ইতিহাসের এ ঘাতকরা নতুন প্রজন্মের মধ্যে বিভ্রান্তি ঢুকিয়ে পাকিস্তানের সমাজজীবনকে তছনছ করেছে। সত্য জানার অধিকার থেকে বঞ্চিত করেছে। বইটির কথা বিশেষভাবে মনে পড়ল, যখন মাত্র দুই সপ্তাহের ব্যবধানে বিএনপি নেতা তারেক রহমান একবার মেজর জেনারেল (অব.) জিয়াউর রহমানকে (তখনকার 'মেজর') বাংলাদেশের 'প্রথম রাষ্ট্রপতি' বলে দাবি করলেন, তাও…
মীর আবদুল আলীম 'সাংবাদিক পেটালেন এমপি আবদুল ওয়াদুদ'। সাংবাদিক সংক্রান্ত বিষয় হওয়ায় আমার সাংবাদিক মনে সংবাদটি বেশি গুরুত্ব পেয়েছে। দ্রুত সংবাদটি পড়ে নিলাম। চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনের সরকারদলীয় এমপি ৩ এপ্রিল সকালে সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসে প্রকাশ্যে বিটিভি ও দৈনিক যুগান্তরের চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধিকে মারধর করেছেন। এমপি সাহেবের আজ্ঞাবহ অভিযুক্ত একজন স্কুলশিক্ষকের পক্ষ নিয়ে তিনি সাংবাদিকের ওপর চড়াও হন। একজন আইন প্রণেতা কি করে করলেন এ কাজ? অভিযুক্তের পক্ষ নিয়ে একজন সংসদ সদস্য নিজ হাতে সাংবাদিক পিটিয়ে নির্লজ্জভাবে তার মনের জ্বালা নিবৃত্ত করার ঘটনা সত্যিই দুঃক্ষজনক। সাংবাদিক মাসুমকে পেটানোর কথা অকপটে স্বীকার করে ওই সংসদ সদস্য বলেছেন, ঘটনার সময় সাংবাদিক মাসুম অযথাই…
আবদুল গাফ্ফার চৌধুরী সম্প্রতি ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ন্যান্সি পাওয়েলের পদত্যাগ এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান মজীনার আবার বাংলাদেশবিরোধী উক্তি কি একটি কাকতালীয় ব্যাপার, না এর ভেতরে দক্ষিণ এশিয়ায় ওয়াশিংটনের কোনো নতুন স্নায়ুযুদ্ধ শুরু করার আভাস রয়েছে, তা নিয়ে কোনো কোনো মহলে জল্পনা-কল্পনা শুরু হয়ে গেছে। দিল্লির কোনো কোনো মহল ভাবছে, আমেরিকায় নিযুক্ত ভারতীয় কূটনীতিক দেবযানীকে সম্প্রতি যেভাবে সে দেশে হেনস্তা করা হয়েছে, তার জের ধরে দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্কে এমনিতেই ফাটল দেখা দিয়েছিল। তার ওপর বাংলাদেশ তথা গোটা দক্ষিণ এশিয়া সম্পর্কে মার্কিন নীতির সঙ্গে ভারতের বড় রকমের গরমিল সম্ভবত রাষ্ট্রদূত ন্যান্সি পাওয়েলের পদত্যাগের পেছনে কাজ করেছে। তিনি হয়তো…