08232019শুক্র
রবিবার, 30 এপ্রিল 2017 23:05

স্মৃতিতে অমলিন থাকবেন সাংবাদিক ওমর ফারুক

সাংবাদিক ওমর ফারুক সাংবাদিক ওমর ফারুক
নিউজ ফ্ল্যাশ ডেস্ক বাংলা ট্রিবিউনের বিশেষ প্রতিনিধি এবং নগর উন্নয়ন সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি ওমর ফারুকের মৃত্যুতে শোকহত সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ। রবিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) বেলা ১টার সময় প্রথম এবং দুইটার দিকে বাংলা ট্রিবিউনে তার দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় অংশ নিতে এসে শোকে ভেঙে পড়েন ওমর ফারুকের সুহৃদরা। ওমর ফারুক স্মৃতিতে অমলিন থাকবেন বলেও অনুভুতি প্রকাশ করেন তারা। রবিবার রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) প্রথম জানাজায় অংশ নেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন। ওমর ফারুকের স্মৃতিচারণ করতে গিয়ে মেয়র বলেন, ‘ভিন্ন রকমের মানুষ ছিলেন ওমর ফারুক। এভাবে চলে যাবেন ভাবতে পারছি না। নগর উন্নয়নের বিভিন্ন বিষয়ে তার কাজ সিটি করপোরেশনকে সহায়তা করেছে। আমি তার পরিবারের পাশে থাকবো সব সময়।’ ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন বাদশা বলেন, ‘সাংবাদিক বা সহকর্মী নয়, তিনি ভাইয়ের মতো সব সময় খোঁজ খবর নিতেন। আমাদের স্মৃতিতে ওমর ফারুক বেঁচে থাকবেন সব সময়। নগর উন্নয়ন বিষয়ে ডিআরইউ রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড তার নামে নামকরণ করা হবে। এছাড়াও ফারুকের দুই কন্যা সন্তানকে ডিআরইউ শিক্ষা বৃত্তি-২০১৭ প্রদান করা হবে। ডিআরইউ এর পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মুরসালিন নোমানীসহ অন্যান্য সদস্যরা।’ ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ স্মৃতিচারণ করে বলেন, ‘ওমর ফারুকের সঙ্গে পরিচয় দীর্ঘ সময়ের। এত বিনয়ী মানুষ আমি কম দেখেছি। সব সময় হাসি মুখে কথা বলতেন, খোঁজ খবর নিতেন।’ সাংবাদিক ওমর ফারুক ওমর ফারুকের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী। তিনি বলেন, ‘ওমর ফারুকের মৃত্যু হলেও তার সঙ্গে সম্পর্ক শেষ হয়ে যায়নি। আমরা তার পরিবারের পাশে সব সময় থাকবো।’ জাতীয় প্রেসক্লাবের যুগ্ম-সম্পাদক শাহেদ চৌধুরীও ওমর ফারুকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘আমরা একজন সৎ ও নির্ভীক সাংবাদিক হারালাম।’ ওমর ফারুকের মৃত্যুতে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম (বিএসআরএফ)-এর সভাপতি শ্যামল সরকার ও সাধারণ সম্পাদক মহসীন আশরাফ শোক গভীর প্রকাশ করেছেন। বিএসআরএফ-এর সদস্য ওমর ফারুকের পরিবারের সদস্যদের প্রতি সমবেদনাও জানান তারা। ওমর ফারুকের মৃত্যুতে জয় বাংলা সাংবাদিক মঞ্চ গভীর শোক প্রকাশ করেছে। সংগঠনের সভাপতি জয়ন্ত আচার্য্য ও সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর খান বাবু তার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ঢাকা দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম প্রয়াত ওমর ফারুকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন এবং তার পরিবারকে সমবেদনা জানান। ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পরিষদ ওমর ফারুকের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছে। সংগঠনটির কেন্দ্রীয় যুগ্ম আহবায়ক শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘ওমর ফারুক ভাই একজন সাদা মনের মানুষ ছিলেন। তিনি ছিলেন অমায়িক ব্যবহারের অধিকারী। তার ইন্তেকালে আমরা শোকাহত, মহান আল্লাহ্ তাঁকে জান্নাতবাসী করুন।’ সাংবাদিক ওমর ফারুক আজ রবিবার (৩০ এপ্রিল) ভোররাত সাড়ে তিনটার দিকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ওমর ফারুক (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন)। আগামী ২ মে ওমর ফারুকের বয়স ৫২ বছর পূর্ণ হতো। ওমর ফারুক কর্মজীবনে দৈনিক সমাচার, দৈনিক রুপালি, দৈনিক আজকের কাগজ, দৈনিক যুগান্তর ও বাংলা ট্রিবিউনে কাজ করেছেন। তিনি ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি ও বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের সদস্য। মৃত্যুকালে স্ত্রী ও দুই কন্যা রেখে গেছেন তিনি। পাঁচ ভাই ও চার বোনের মধ্যে তিনি সবার ছোট। তার প্রথম মেয়ে ফারিহা ওমর ইরা দশম শ্রেণিতে পড়ে এবং দ্বিতীয় মেয়ে দীপিকা ওমর দিয়া ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ে। তার স্ত্রী সানজিদা ওমর সৈকত। শনিবার (২৯ এপ্রিল) দুপুরে অফিসে প্রবেশের সময় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে ওমর ফারুককে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়।
পড়া হয়েছে 379 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: রবিবার, 30 এপ্রিল 2017 23:15