05232019বৃহঃ
বুধবার, 17 জানুয়ারী 2018 17:52

নবম ওয়েজ বোর্ডে সাংবাদিকদের স্বার্থ গুরুত্ব পাবে: তারানা হালিম

নিউজ ফ্ল্যাশ প্রতিবেদক বাংলাদেশের উন্নয়ন ও সম্ভবনা তুলে ধরে ‘ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ’ নামে নতুন প্রচারণার পরিকল্পনা জানিয়ে তথ্যপ্রতিমন্ত্রী এডভোকেট তারানা হালিম বলেছেন, নবম ওয়েজ বোর্ড গঠনে মালিকদের স্বার্থ দেখা হবে না। ওয়েজ বোর্ডে সাংবাদিকদের স্বার্থ গুরুত্ব পাবে। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এ সব কথা বলেন। মন্ত্রণালয়ের আগামী দিনের কর্মপরিকল্পনার কথা সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরতেই এই মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। তারানা হালিম বলেন, ওয়েজ বোর্ড গঠনের ফাইলটি বর্তমানে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে অনুমোদনের অপেক্ষায় রয়েছে। এটি বাস্তবায়নে ১৩ সদস্যের একটি কমিটি গঠনের প্রস্তাবসহ ফাইলটি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে আমরা পাঠিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী এ ফাইলে সই করলেই কমিটি অনুমোদন পাবে। তখন ওয়েজ বোর্ড ঘোষণায় আর সময় লাগবে না। আমরা আশা করছি খুব শিগগিরই নবম ওয়েজ বোর্ডের বিষয়টি নিষ্পত্তি হবে। টেলিভিশন সাংবাদিকদের বেতন বৈষম্য দূরীকরণে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, এজন্য আমরা মাঠে নিয়োজিত সাংবাদিকদের সঙ্গে বসতে চাই। তাদের কথা বিস্তাারিত শুনে তা নিয়ে মালিকদের সঙ্গে বসে সাংবাদিকদের বেতন বৈষম্য দূরীকরণে কার্যকর পদক্ষেপ নিতে চাই। ঊাংলাদেশ টেলিভিশনের অনুষ্ঠানের মানোন্নয়নে পদক্ষেপ নেয়ার কথা জানিয়ে তারানা হালিম বলেন, এজন্য একটি উপদেষ্ট কমিটি কাজ করবে। এই কমিটিতে বিটিভিতে কর্মরত সাবেক স্বন্যাম খ্যাতি ব্যক্তি ও বর্তমান কর্মরতদেও পরামর্শ নিয়ে বিটিভিকে ঢেলে সাজানো হবে। যাতে প্রতিযোগিতামূলক এই ক্ষেত্রে যে কোন বেসরকারি টেলিভিশনের অনুষ্ঠানের সঙ্গে এটি পাল্লা দিয়ে চলতে পারে। তিনি বলেন, বিটিভি নাটক নির্মাণ করবে, ধারাবাহিক নির্মাণ করবে। কোন টিভিতে চলে না এমন অনুষ্ঠান ও নাটক বিটিভিতে আর প্রচারিত হবে না। বিটিভিকে আর ডাম্পিং ষ্টেশন হিসেবে আর কেউ ব্যবহার করতে পারবে না। বিটিভিকে এইচডিতে রূপান্তরিত করার পরিকল্পনার কথা জানান নতুন যোগ দেয়া এই প্রতিমন্ত্রী। তিনি জানান, দেশের ৬৪টি জেলায় একটি কওে ডিজিটাল হল করার প্রকল্প নেয়া হয়েছে। বাংলাদেশের উন্নয়ন এবং সম্ভাবনা নিয়ে জেলা উপজেলা এবং বিদেশের বিভিন্ন মিশনে প্রচারের জন্য ‘ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ’ নামে একটি প্রচারণায় নামার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রথম শ্লোগানটি হবে ‘ব্র্যান্ডিং বাংলাদেশ’। এ শ্লোগান নিয়ে বিদেশে যে মিশনগুলো আছে, যেই দেশে শ্রমিক যাচ্ছে সেই দেশের অর্থনীতিতে বাংলাদেশের শ্রমিকদের অবদান কী, কোন কোন সেক্টরে কত শ্রমিক কাজ করছে। আমাদের অর্থনীতিতে সেই শ্রমিকদের অবদান কী এসব নিয়ে প্রচার করা হবে। প্রচারণার জন্য চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদফতরকে (ডিএফপি) ইতোমধ্যেই নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, বিভিন্ন জেলা, উপজেলায় আমাদের প্রজেক্টর আছে। তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে অনুদানে নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র, স্বল্প দৈর্ঘ চলচ্চিত্র এবং চলচ্চিত্র জেলা-উপজেলায় দেখানোর ব্যবস্থা করবো, যেখানে জনসমাগম হয় হাট-বাজার সেগুলোতে। এর পাশাপাশি বর্তমান সরকারের সাফল্য এবং বাংলাদেশের ব্র্যান্ডিং প্রচার করবো। এফডিসির বিষয়ে তারানা হালিম বলেন, চলতি বছরে বাকি সময়ের মধ্যে এফডিসিকে লাভজনক অবস্থায় আনতে না পারলেও ঘাটতির পরিমান অর্ধেকে আনা হবে।
পড়া হয়েছে 216 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: বৃহস্পতিবার, 18 জানুয়ারী 2018 10:39