08232019শুক্র
মঙ্গলবার, 04 জুলাই 2017 18:39

কিশোরীর শরীরে পুরুষাঙ্গ

চিকিৎসকদের সঙ্গে সেই কিশোরী। চিকিৎসকদের সঙ্গে সেই কিশোরী।
গত কয়েক বছরে চিকিৎসার জন্য যেখানেই গিয়েছে কিশোরীর পরিবার, সেখান থেকেই নিরাশ হয়ে ফিরতে হয়েছে। কিশোরীর শরীরে পুরুষাঙ্গ বদলে তৈরি করা হল স্ত্রীঅঙ্গ! কঠিন এই কাজটিই করে দেখালেন জেলার এক সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকরা। যার জন্য কার্যত নতুন জীবন পেল বছর এগারোর ওই কিশোরী। না ছেলে না মেয়ে। এমন শারীরিক সমস্যা নিয়ে দিন কাটছিল মালদহের বছর এগারোর এক কিশোরীর। ষষ্ঠ শ্রেণির ওই ছাত্রী যতই বড় হচ্ছিল, ততই দুশ্চিন্তা বাড়ছিল পরিবারের। কারণ শারীরিক গঠন, এমনকী অন্যান্য অঙ্গপ্রত্যঙ্গ মেয়েদের মতো হলেও জন্ম থেকেই অদ্ভুতভাবে তৈরি হয়েছিল পুরুষাঙ্গ। সমস্যা আরও বেড়ে গিয়েছিল কিশোরীর পরিবারের আর্থিক অনটনের কারণে। গত কয়েক বছরে চিকিৎসার জন্য যেখানেই গিয়েছে কিশোরীর পরিবার, সেখান থেকেই নিরাশ হয়ে ফিরতে হয়েছে। কারণ, অধিকাংশ চিকিৎসক দায়িত্ব নিতে চাননি। আবার যাঁরা চিকিৎসার কথা বলেছেন, তাঁরাও লক্ষাধিক টাকা খরচ করে ব্যয়বহুল অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দিয়েছিলেন। কিন্তু পেশায় শ্রমিক পরিবারের আর্থিক সামর্থ্যে তা কুলায়নি। শেষ পর্যন্ত সুরাহা হল মালদহ মেডিক্যালে। তাও আবার সম্পূর্ণ নিখরচায়। দিন কয়েক আগে বর্হিবিভাগে ওই কিশোরীকে নিয়ে আসেন আত্মীয়রা। এ দিন জটিল অস্ত্রোপচার করেন এখানকার চিকিৎসকেরা। সরকারি হাসপাতালে এমন পরিষেবা পেয়ে আপ্লুত অসহায় পরিবার। মালদহ মেডিক্যালে আজ প্রায় দু’ঘণ্টা ধরে অস্ত্রোপচার চলে কিশোরীর। এই জন্য বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক মলয় সরকারের নেতৃত্বে সাত সদস্যের চিকিৎসক দল তৈরি করা হয়। শুধু মালদহেই নয় গোটা উত্তরবঙ্গে এমন জটিল অস্ত্রোপচার এই প্রথম বলে জানিয়েছেন মালদহ মেডিক্যাল কলেজের সুপার অমিত দাঁ। এবেলা
পড়া হয়েছে 320 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: মঙ্গলবার, 04 জুলাই 2017 19:17