09172019মঙ্গল
সোমবার, 11 মার্চ 2019 10:44

মৈত্রী হলের ভোট স্থগিত

বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) নির্বাচনে বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী আবাসিক হলে ভোটগ্রহণ স্থগিত রাখা হয়েছে। সোমবার সকালে শিক্ষার্থীরা আগেই সিল মারা ব্যালট উদ্ধারের পর ভোটগ্রহণ বন্ধ করে দেন। পরে তারা হল গেটে দাঁড়িয়ে জাল ব্যালট মাটিতে বিছিয়ে প্রতিবাদ জানান। শিক্ষার্থীরা জানায়, হলের অডিটোরিয়ামে একটি কক্ষ আগে থেকেই বন্ধ রাখা হয়েছিল। পরে সকালে সেই কক্ষ থেকে প্রার্থী ও ভোটাররা এক বস্তা ব্যালট উদ্ধার করেন। তাতে ছাত্রলীগের প্রার্থীদের নামে সিল মারা ছিল। পরে প্রার্থী ও শিক্ষার্থীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচনী কর্মকর্তারা ভোট বন্ধ করে দেন। অন্যদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হন প্রক্টর, সহকারী প্রক্টর ও চিফ রিটার্নিং কর্মকর্তা। চিফ রিটার্নিং কর্মকর্তা এসএম মাসুদুর রহমান বলেন, উদ্ভুত পরিস্থিতির কারণে আমরা ভোটগ্রহণ স্থগিত করেছি। প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী বলেন, একটি অভিযোগ পেয়ে আমরা এখানে এসেছি। এ ধরনের ঘটনা প্রত্যাশিত নয়। তিনি জানান, এ ঘটনায় হলের প্রভোস্টের দায়িত্ব থেকে মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক মুবিনা খোন্দকারকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। নতুন প্রভোস্ট হিসাবে দায়িত্ব পেয়েছেন ইনস্টিটিউট অব ডিজাস্টার ম্যানেজমেন্ট অ্যান্ড ভালনারেবিলিটি স্টাডিজের পরিচালক অধ্যাপক মাহবুবা নাসরীন। উল্লেখ্য, সকাল ৮টায় দেশের 'দ্বিতীয় পার্লামেন্ট' হিসেবে খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। একটানা বেলা দুইটা পর্যন্ত চলবে ভোট গ্রহণ। একই সঙ্গে অনুষ্ঠিত হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৮টি আবাসিক হল সংসদের নির্বাচন। নানা চড়াই-উতরাই পেরিয়ে ২৮ বছর পর হচ্ছে বহু প্রতীক্ষার এ নির্বাচন। ইতিহাসের সাক্ষী প্রাচ্যের অক্সফোর্ড খ্যাত এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ৪৩ হাজার ১৭৩ জন ভোটার শিক্ষার্থী।
পড়া হয়েছে 103 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: সোমবার, 11 মার্চ 2019 10:52