09202019শুক্র
শনিবার, 05 মার্চ 2016 13:12

আনন্দবাজার পিত্রকার বিরুদ্ধে পরীমনির ক্ষোভ

< > বিনোদন ডেস্ক ঢালিউডের আলোচিত অভিনেত্রী পরীমনি বলেছেন আনন্দ বাজার পত্রিকা তার সাক্ষাতকার ভুলভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে দেয়া এক পোস্টে দৈনিকটির বিরুদ্ধে নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেন। শুক্রবার আনন্দবাজার তাদের অনলাইন সংস্করণে পরীমনির সাক্ষাৎকার প্রকাশ করে। শিরোনাম ছিল,‘অনস্ক্রিন আমি চুমুও খাবো, বিকিনিও পরবো। এছাড়া সাক্ষাৎকারের ভেতরে বেশ কয়েকটি অংশে বাংলাদেশের দর্শক ও ভক্তদের কিছুটা খোঁচা দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন পরীমনি। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে দেয়া একটি দীর্ঘ স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, এতদিন শুনে এসেছি তারা নাকি ভারতের প্রভাবশালী বাংলা দৈনিক। তাদের কাছে প্রত্যাশাটাও অনেক বেশি থাকে পাঠকের। কিন্তু আমার সংবাদটি যেভাবে পরিবেশন করেছে তা মোটেও উচিত হয়নি। আনন্দবাজারের কাছে এটা আশা করিনি। অনস্ক্রিনে চুমু বা বিকিনির বিষয়ে তিনি বলেন, যে আমি অভিনয় শিল্পী। চরিত্রের প্রয়োজনে আমাকে খুনি , পুলিশ , ডাক্তার , গোয়েন্দা এবং যদি বিকিনি প্রয়োজন হয় আমি করতে পারবো। তার মানে এই দাঁড়ায় না যে আমি ওই বিকিনিই পরবো। এমন "যদি "প্রশ্নের উত্তর শিরোনাম হওয়া আসলেই দুঃখজনক। জানিনা, ভারতের পত্রিকা আমাদের বাংলাদেশের শিল্পীদের নিয়ে দুকলম হিজিবিজি লিখে এরকম অস্বস্তিকর অবস্থায় কেন ফেলে দেয়! আনন্দ বাজারে প্রকাশিত সংবাদে আরো উল্লেখ করা হয় সম্প্রতি ইসমাইল নামের এক যুবকের সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছে বলে তার ছবি ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছিল সেই বিষয়ে। এই প্রসঙ্গে পরীমনি স্বদেশীদের হিংসুটে হিসেবে উল্লেখ করেন পরীমনি। তার সাফল্যে ঈর্ষাপরায়ণ হয়ে কেউ এমনটি করছে বলে আনন্দবাজারকে বলেন, বাংলাদেশের কিছু মানুষ আসলে খুব হিংসুটে। এই বিষয়ে ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসে তিনি বলেন, আমি সেই বেজন্মাকে হিংসুটে বলেছি যে হিংসার বশে আমার নামে মিথ্যা নোংরা খবর রটেছিলো। তার মানে এটা দাঁড়ায় না যে আমি আমার বাংলাদেশের মানুষকে হিংসুটে বলেছি। আর যেটা শিরোনাম করেছেন সেটা ছিল যদির উপর ভিত্তি করে। ধরুন, যদি আমি এখন প্রধানমন্ত্রী হই তাহলে। < >
পড়া হয়েছে 435 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: শনিবার, 05 মার্চ 2016 13:23