09202019শুক্র
বৃহস্পতিবার, 18 ফেব্রুয়ারী 2016 08:28

বাংলাদেশি সিরামিকের জয়-জয়কার

< > নিউজফ্ল্যাশ ডেস্ক জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টে হস্তশিল্প ও গৃহস্থালি পণ্যের মেলায় ভালো সাড়া পেয়েছে বাংলাদেশের সিরামিক সামগ্রী। দৃষ্টিনন্দন ডিজাইন এবং রঙের সুবাদে মেসে ফ্রাঙ্কফুর্টের 'ট্রেন্ডস' গ্যালারিতে ঠাঁই পেয়েছে বেক্সিমকোর শাইনপুকুর সিরামিকসের বিভিন্ন সামগ্রী। ডিজাইন এবং রঙে এগিয়ে থাকা আগামী দিনের পণ্য নিয়ে সাজানো হয়েছে এ গ্যালারি। জার্মানির প্রভাবশালী ম্যাগাজিন 'টপ ফেয়ার' চলতি সংখ্যার প্রচ্ছদ করেছে শাইনপুকুরের মোমদানি দিয়ে। ইউরোপের ঐতিহ্য বিবেচনায় তৈরি মোমদানি প্রদর্শন করছে শাইনপুকুর। অ্যামবিয়ান্ট নামে চার দিনের প্রদর্শনী আজ মঙ্গলবার শেষ হচ্ছে। গতকাল বাংলাদেশের সিরামিকের সব প্যাভিলিয়নে ক্রেতার ব্যাপক উপস্থিতি দেখা গেছে। দেশের ৭টি শীর্ষ সিরামিক প্রতিষ্ঠান এবারের প্রদর্শনীতে অংশ নিয়েছে। এ বছর বাংলাদেশের স্টল ৩৬টি। প্রদর্শনীর আয়োজক মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট। শাইনপুকুর সিরামিকসের হেড অব মার্কেটিং তানভিরুল ইসলাম সমকালকে বলেন, বেশ ভালোই রফতানি আদেশ পাচ্ছেন তারা। ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকার অনেক দেশের ক্রেতারা আগ্রহ দেখিয়েছেন। ফার সিরামিকসের পরিচালক ইমতিয়াজ উদ্দিন জানান, বছরের মোট রফতানির ৮০ শতাংশই আসে অ্যামবিয়ান্ট প্রদর্শনীর মাধ্যমে। এ বছর অন্যবারের তুলনায় দ্বিগুণ রফতানি আদেশ আশা করছেন তারা। সাত বছর ধরে তারা এ মেলায় অংশ নিচ্ছেন। রাউল নামে মিসরের এক ক্রেতা জানালেন, বাংলাদেশের সিরামিক সামগ্রী অনেক সুন্দর। অন্য দেশের তুলনায় দামেও কম। বিশেষ করে কিছু ডিনার সেট তার পছন্দ হয়েছে। জার্মানিতে বাংলাদেশ দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর ড. মাসুম চৌধুরী সমকালকে বলেন, তৈরি পোশাকের পাশাপাশি জার্মানিতে বাংলাদেশের অন্যান্য রফতানি পণ্যের বাজার বাড়াতে চেষ্টা করছে দূতাবাস। মেসে ফ্রাঙ্কফুর্ট বাংলাদেশের পরিচালক (যোগাযোগ) নাজনীন সালাহউদ্দীন সমকালকে বলেন, গুণগত মানের অনেক পণ্য তৈরি করে বাংলাদেশ। আন্তর্জাতিক পরিসরে তুলে ধরতে প্রদর্শনীতে অংশ নেওয়ার ব্যবস্থা করেছেন তারা। < >
পড়া হয়েছে 483 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: বৃহস্পতিবার, 18 ফেব্রুয়ারী 2016 08:39