12152019রবি
শিরোনাম:
সোমবার, 07 ডিসেম্বর 2015 07:33

দরবৃদ্ধিতে এগিয়ে বীমা

< > নিউজফ্ল্যাশ প্রতিবেদক অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারের দরবৃদ্ধি দিয়ে শুরু হয়েছে চলতি সপ্তাহের শেয়ারবাজারের লেনদেন। গতকাল রোববার প্রধান শেয়ারবাজার ডিএসইতে ৫৫ শতাংশ কোম্পানির শেয়ারের দরবৃদ্ধির বিপরীতে প্রায় ৩৩ শতাংশের দর কমেছে। অপর শেয়ারবাজার সিএসইতে দরবৃদ্ধি ও হ্রাস পাওয়া কোম্পানির হার ছিল যথাক্রমে প্রায় ৫৭ ও ২৮ শতাংশ। গত সোমবার থেকে বুধবার পর্যন্ত মিশ্রাবস্থায় কাটার পর গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে বেশিরভাগ কোম্পানির শেয়ারদর বেড়েছিল। গতকালের লেনদেন পর্যালোচনায় দেখা গেছে, বেশিরভাগ শেয়ারের দর বাড়লেও অন্য যে কোনো খাতের তুলনায় দরবৃদ্ধিতে এগিয়ে ছিল বীমা খাত। খাতটির ৪৬ কোম্পানির মধ্যে বাজারদর বেড়েছে ৪৩টির, কমেছে মাত্র ২টির এবং একটির দর অপরিবর্তিত থেকেছে। ডিএসইতে দরবৃদ্ধির শীর্ষে ২০ কোম্পানির মধ্যে ১২টিই ছিল বীমা খাতের। এর মধ্যে সর্বাধিক প্রায় ১০ শতাংশ দর বেড়েছে গ্গ্নোবাল ইন্স্যুরেন্সের। দরবৃদ্ধিতে এর পরের অবস্থানে ছিল ফেডারেল, প্যারামাউন্ট, জনতা, রিপাবলিক, বাংলাদেশ জেনারেল, সিটি জেনারেল, মেঘনা লাইফ, নর্দান, মার্কেন্টাইল, প্রভাতি এবং তাকাফুল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি। এসব বীমা কোম্পানির শেয়ারদর সাড়ে ৬ থেকে পৌনে ১০ শতাংশ পর্যন্ত বেড়েছে। বীমা খাতের হঠাৎ দরবৃদ্ধির কারণ জানা যায়নি। প্রায় সব শেয়ারের দরবৃদ্ধি পাওয়ায় খাতটির সার্বিক শেয়ারদর বেড়েছে পৌনে ৪ শতাংশ। জানতে চাইলে সন্ধানী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির এমডি ও ডিএসইর সাবেক সভাপতি এহসানুল ইসলাম টিটু সমকালকে বলেন, বীমা খাতের কোম্পানিগুলোর একযোগে দরবৃদ্ধি অবশ্যই গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এ খাতের কোম্পানিগুলোর শেয়ারদর অনেকদিন ধরেই যৌক্তিক দরের তুলনায় অনেকটাই কমে অবস্থান করছে। ডিসেম্বরে এসব কোম্পানির আর্থিক বছর শেষ হচ্ছে। এ অবস্থায় কৌশলী বিনিয়োগকারীরা হয়তো লভ্যাংশের বিষয়টি বিবেচনায় রেখে এখনই শেয়ার কিনে রাখার চেষ্টা করছেন বলে তিনি উল্লেখ করেন। এদিকে বীমা খাতের মতো গতকাল তথ্য ও প্রযুক্তি খাতের ৬ কোম্পানির মধ্যে ৫টির দর বেড়েছে, চামড়া খাতের ৫ কোম্পানির মধ্যে ৪টির, সেবা ও নির্মাণ খাতের ৪ কোম্পানির মধ্যে ৩টির এবং ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের ৩ কোম্পানির সবগুলোর দর বেড়েছে। বিপরীতে ব্যাংক এবং প্রকৌশল খাতের অধিকাংশ কোম্পানির শেয়ারদর কমেছে। ডিএসইর লেনদেন পর্যালোচনায় দেখা গেছে, শেয়ারদরের পাশাপাশি গতকাল বীমা খাতের লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে। ডিএসইতে গতকাল খাতওয়ারি লেনদেন বৃদ্ধির শীর্ষেও ছিল এ খাত। বৃহস্পতিবারের তুলনায় ৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকার লেনদেন বেড়ে ৩০ কোটি ৯৭ লাখ টাকায় উন্নীত হয়েছে। এ ছাড়া ভ্রমণ ও অবকাশ খাতের লেনদেন বেড়েছে পৌনে ৭ শতাংশ, তথ্য ও প্রযুক্তি খাতে ৫ কোটি, সেবা ও নির্মাণ খাতে সোয়া ৩ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন বেড়েছে। বিপরীতে সর্বাধিক ২২ কোটি টাকারও বেশি শেয়ার কেনাবেচা কমেছে জ্বালানি ও বিদ্যুৎ খাতে। এ খাতের ১৮ কোম্পানির গতকাল ৮০ কোটি ১৫ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। ব্যাংক খাতের ৩০ কোম্পানির লেনদেন পৌনে ১৮ কোটি টাকা কমে ২৬ কোটি ৬৯ লাখ টাকায় নেমেছে। একইভাবে প্রকৌশল খাতের সার্বিক লেনদেন ৭ কোটি ৮২ লাখ টাকা কমার পরও খাতটির ৩১ কোম্পানির ১৩০ কোটি ৫৫ লাখ টাকার লেনদেন ছিল ডিএসইর খাতওয়ারি লেনদেনের সর্বোচ্চ। একক কোম্পানি হিসেবে গতকাল ডিএসইতে কাশেম ড্রাইসেল কোম্পানির সর্বাধিক ২৫ কোটি ৪৯ লাখ টাকার শেয়ার কেনাবেচা হয়েছে। লেনদেনে এর পরের অবস্থানে ছিল বিএসআরএম স্টিল, স্কয়ার ফার্মা, এমআই সিমেন্ট, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স। < >
পড়া হয়েছে 748 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: সোমবার, 07 ডিসেম্বর 2015 07:45