11212019বৃহঃ
মঙ্গলবার, 08 আগস্ট 2017 22:59

ঘরে মা-ছেলের লাশ, রক্ষা পেল এক মাসের শিশু

বেঁচে যাওয়া শিশু বেঁচে যাওয়া শিশু
শরণখোলা (বাগেরহাট) সংবাদদাতা ভেতর থেকে দরজা-জানালা আটকা। ঘরের মধ্যে শম্পা রাণীর (২৫) ঝুলন্ত মৃতদেহ ঘরের আড়ার সঙ্গে এবং তার ছেলে অরণ্য’র (৪) মৃতদেহ খাটের ওপর। আর একই খাটে ভাইয়ের নিথর দেহের পাশে গলায় গামছা দিয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় ভাগ্যক্রমে বেঁচে যাওয়া এক মাসের অর্ণব ছটফট করছিল। শিশুটির কান্নার শব্দ আর পোষা ময়না পাখির শম্পা শম্পা বলে ডাকাডাকি শুনে আশে পাশের লোকজন ছুটে গিয়ে জানালার কপাট ভেঙে কাউকে দেখতে না পেয়ে পুলিশে খবর জানায়। পরে পুলিশ মঙ্গলবার বিকেল ৫টার দিকে ঘর থেকে মা ও ছেলের মৃতদেহ এবং নবাজতককে জীবিত উদ্ধার করে। এমন মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের তাফালবাড়ী বাজারে। তবে মাদকাসক্ত স্বামী অপূর্ব কর্মকার (৩৫) সকাল থেকে পলাতক থাকায় এলাকাবাসী ধারণা করছে স্ত্রী-সন্তানদের হত্যা করে সে পালিয়েছে। অপরদিকে, কেউ কেউ বলছেন নেশাখোর স্বামীর পরকিয়ার যন্ত্রণা সইতে না পেরে দুই সন্তানকে হত্যা করে শম্পা নিজেও আত্মহত্যা করেছে। খবর পেয়ে এদিন সন্ধ্যা ৬টার দিকে বাগেরহাটের পুলিশ সুপার পংকজ কুমার রায় সহকারী পুলিশ সুপার মনিরুজ্জামান ও শরণখোলা থানার ওসি আব্দুল জলিল ঘটনাস্থল পরিদর্শ করেছেন। জানা গেছে, উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের দক্ষিণ তাফালবাড়ী গ্রামের লালমোহন কর্মকারের ছেলে অপূর্ব কর্মকারের সাথে ২০১০ সালে যশোরের মনিরামপুর এলাকার অশোক কুমার সিংহ’র মেয়ে শম্পারাণীর বিয়ে হয়। তাদের সংসারে অরণ্য (৪) ও অর্ণব (১ মাস) নামের দুটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়। স্বামী অপূর্ব কর্মকার একজন মাদক সেবনকারী। এনিয়ে ভিবিন্ন সময় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝড়ঝাটি হতো। প্রতিবেশী বিউটি বেগম, ছাত্রলীগ নেতা স্বজল শেখ, মুক্তিযোদ্ধা আবু রাজ্জাক আকন, যুবলীগ নেতা ইমরান হোসেন রাজীব জানান, মঙ্গলবার বিকলে ৪টার দিকে অপূর্ব’র ঘরের মধ্য থেকে শিশুর কান্না ও পোষা ময়না পাখির ডাকাডাকি শুনে তারা সেখানে যান। ভেতর থেকে দরজা-জানালা বন্ধ থাকায় তারা ডাকাডাকি করে ভেতর থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে স্থানীয় ফাঁড়ির পুলিশকে খবর দেন। পরে পুলিশ জানালা ভেঙে ভেতরে ঢুকে ঘরের দোতলায় আঁড়ার সঙ্গে শম্পা রাণীকে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় এবং শিশু অরণ্যকে খাটে ওপর ছোটো টুকরো কাপড় দিয়ে গলায় ফাঁস লাগানো মৃত দেহ উদ্ধার করে। এসময় একই খাটে এক মাসের অর্ণবকেও গলায় গামছা দিয়ে ফাঁস লাগানো জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। শরণখোলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল জলিল জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য বাগেরহাট সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। মৃত্যুর রহস্য উদঘাটনে তদন্ত চলছে। প্রাথমিকভাকে একটি অপমৃত্যুর মামলা করা হয়েছে।
পড়া হয়েছে 282 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: মঙ্গলবার, 08 আগস্ট 2017 23:04