09212019শনি
শুক্রবার, 30 আগস্ট 2019 08:35

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ‘গঠনমূলক ভূমিকা’র আশ্বাস চীনের

লিখেছেন 
আইটেম রেট করুন
(0 ভোটসমূহ)
কূটনৈতিক প্রতিবেদক মিয়ানমারের ওপর প্রভাব বিস্তারকারী চীন বাংলাদেশ থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে গঠনমূলক ভূমিকা রাখার আশ্বাস দিয়েছে। বাংলাদেশে আসা নতুন রাষ্ট্রদূত লি জিমিং জানিয়েছেন, তার দেশও চায় রোহিঙ্গারা নিজ দেশে ফিরে যাক। বাংলাদেশে দায়িত্ব পালনের জন্য আসার পর দিন বৃহস্পতিবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে মন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন রাষ্ট্রদূত জিমিং। এ সময় এক প্রশ্নে তিনি এ কথা বলেন। ২০১৭ সালের আগস্টে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে সেনা অভিযানের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে লাখ লাখ রোহিঙ্গা। ১৯৮০ দশক থেকেই দেশে অবস্থান করছিল আরো কয়েক লাখ। সব মিলিয়ে রোহিঙ্গার সংখ্যা ১১ লাখ ছাড়িয়ে গেছে। জনাধিক্যের দেশে এই এই জনসংখ্যাটি চাপ হয়ে দেখা দিয়েছে। আর মিয়ানমারের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তবে প্রত্যাবাসনে দুই দফা দিন তারিখ ঠিক হলেও একজন রোহিঙ্গাও ফিরে যেতে রাজি হননি নিরাপত্তাহীনতার কারণে। জাতিসংঘ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্যসহ বিভিন্ন পশ্চিমা দেশ রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারকে চাপ দিয়ে যাচ্ছে। তবে চীন স্পষ্টতই মিয়ানমারের পাশে আছে। তারা জানিয়েছে, মিয়ানমারের ওপর কোনো চাপ তারা সহ্য করবে না। যে রাজ্য থেকে রোহিঙ্গাদের বিতারণ করা হয়েছে, সেই রাখাইনে চীনের বিপুল বিনিয়োগের তথ্য এসেছে গণমাধ্যমে। আর দেশটির বর্তমান অবস্থানের কারণে প্রত্যাবাসন শুরু নিয়ে নানা সংশয় দেখা দিয়েছে, যদিও চীন বাংলাদেশকে একাধিকবার আশ্বাস দিয়েছে। দ্বিতীয় দফায় প্রত্যাবাসনের জন্য চীনও ভূমিকা রেখেছিল। এই প্রক্রিয়া শুরুর জন্য চীনের প্রতিনিধিও ২২ আগস্ট কক্সবাজারে উপস্থিত ছিলেন। লি জিমিং বলেন, ‘চীন চায় প্রত্যাবাসন শুরু হোক। প্রত্যাবাসন যেন শুরু হয় সেজন্য চীন গঠনমূলক ভূমিকা রাখবে।’ নোট ভারবালে দ্বিতীয় দফায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু না করতে পারায় চীন এটাকে ‘দুঃখজনক’ বলেও উল্লেখ করেছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার বিষয় জানতে চাইলে নতুন রাষ্ট্রদূত বলেন, ‘রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনসহ বেশ কয়েকটি বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।’ কূটনৈতিক সূত্র বলছে, গতকাল প্রত্যাবাসন শুরু করার জন্য নোট ভারবালের মাধ্যমে নতুন প্রস্তাব পাঠিয়েছে চীন। সেখানে চীন জানিয়েছে, বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ে বৈঠকের আয়োজন করবে তারা। যেখানে বাংলাদেশ বৈঠক করতে রাজি হবে সেখানেই হবে ত্রিপক্ষীয় এই বৈঠক। চীনের নতুন রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বৃহস্পিতবার রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের কাছেও তার পরিচয়পত্র পেশ করেছেন।
পড়া হয়েছে 16 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: শুক্রবার, 30 আগস্ট 2019 08:40

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা