06252019মঙ্গল
সোমবার, 18 মার্চ 2019 18:08

বাতিঘরের মাশুল না দিলে আটকে যাবে জাহাজ

লিখেছেন 
আইটেম রেট করুন
(0 ভোটসমূহ)
বিশেষ প্রতিনিধি সাগরে চলাচলকারী জাহাজকে দিক নির্দেশনা দেওয়া বাতিঘর মাশুল বিষয়ে কড়াকড়ি করে বাংলাদেশ বাতিঘর আইনের অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। এছাড়াও আরও দুটি আইনের অনুমোদন দেওয়া হয়। সোমবার তেজগাঁও কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেয়া হয়। এরমধ্যে রয়েছে- বাংলাদেশ সুগার ক্রপ গবেষণা ইনস্টিটিউট আইন-২০১৯, মৎস্য ও মৎস্য পণ্য (পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৯ ও বাংলাদেশ বাতিঘর আইন-২০১৯ এর খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন। মন্ত্রিসভায় ক্রাইস্টচার্চে হতাহতের ঘটনায় শোক ও নিন্দা, প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন ও ‘বাংলা ভাষার বঙ্গবন্ধু’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়েছে। বৈঠক শেষে সচিবালয়ের সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, অমাদের একটা পুরনো আইন আছে, দ্য লাইট হাউজ অ্যাক্ট, ১৯২৭। এর মধ্যে অনেক পরিবর্তন হয়ে গেছে এর প্রেক্ষাপটে পরিবর্তন আনা হয়েছে। নতুন নতুন সংযোজন জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বন্দর বাতিঘর কর্তৃপক্ষ যুক্ত করা হয়েছে। দেশের বিভিন্ন বন্দর কর্তৃপক্ষের তত্ত্বাবধানে বাতিঘর পরিচালিত হয়। বাতিঘরের উপর মাশুল আরোপ করার বিধান আগে থেকেই ছিল জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, এটি একটু সহজীকরণ করা হয়েছে। আইনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের বন্দরে আগত এবং প্রত্যাগত ও এক বন্দর হতে অন্য বন্দরে যাতায়াতের জন্য জাহাজগুলোকে দিক নির্দেশনা দেওয়ার সুবিধার্থে বাতিঘরের সেবা সুবিধার জন্য সরকার এ আইনের অধীন প্রত্যেক আগমন ও প্রত্যাগমনকারী জাহাজের জন্য সময়ে সময়ে বাতিঘরের মাশুল নির্ধারণ এবং বাতিঘর মাশুল সংগ্রহ করতে পারবে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বাংলাদেশের যে কোনো আগমন ও প্রত্যাগমনের সময় জাহাজের মালিক অথবা এজেন্ট অথবা মাস্টারকে বাতিঘর মাশুল পরিশোধ করতে হবে। তবে শর্ত আছে যে, সরকার কর্তৃপক্ষ সরকারি গেজেটে প্রজ্ঞাপনের দ্বারা বাতিঘরের মাশুল নির্ধারণের ৩০ কার্যদিবেসের মধ্যে পুনরায় বাতিঘর মাশুল আরোপ বাতিল অথবা বা তারতম্য করার ক্ষেত্রে রেয়াত দেওয়া হয়েছে। মাশুল কালেকশনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সংশ্লিষ্ট কাস্টমস কমিশনকে। যে জাহাজ মাশুল দেবে না সে জাহাজকে আটক করা যাবে। যতক্ষণ টাকা না দেবে ততক্ষণ পর্যন্ত তাকে সিজ করে রাখা যাবে। টাকা দিলে ছুটে যাবে। মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, ১৯৯৬ সালের ইক্ষু গবেষণা আইনের মাধ্যমে এই সেক্টরটি এতদিন চলেছে। আগে শুধু ইক্ষু দিয়ে চিনি উৎপাদন করা হয়েছে। এখন ইক্ষু ছাড়াও তাল, গোলপাতা ইত্যাদি দিয়েও চিনি উৎপাদিত হচ্ছে। যদি শুধু ইক্ষু আইন রাখা হয়, তাহলে অন্য উপাদানগুলো নিয়ে গবেষণা করা হবে না। সুগার ক্রপ আইনের মাধ্যমে যেসব শস্য দিয়ে চিনি তৈরি হয়, তার সবকিছু নিয়ে গবেষণা করা হবে। এ কারণে এর নাম পরিবর্তন করা হয়েছে। এই আইনে বিদ্যমান কমিটিতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের একজন প্রতিনিধিকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া, মৎস্য ও মৎস্য পণ্য (পরিদর্শন ও মান নিয়ন্ত্রণ) আইন-২০১৯ এর খসড়ার নীতিগত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। মন্ত্রিপরিষদ সচিব জানান, ১৯৮৩ সালের অধ্যাদেশের মাধ্যমে এই সেক্টরটি এতদিন পরিচালিত হয়েছে। এটি সামরিক সরকারের সময় করা। অধ্যাদেশটি ছিল ইংরেজিতে। উচ্চ আদালতের অনুশাসন অনুযায়ী, সব অধ্যাদেশকে আইনে পরিণত করার বাধ্যবাধকতা থাকায় এটিকে আইনে পরিণত করা হয়েছে। একই সঙ্গে এটিকে বাংলা থেকে ইংরেজিতে করা হয়েছে। তিনি জানান, এ আইনে মৎস্য খাতের বিস্তারিত সংজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। মৎস্য পণ্যে কোনও কিছুর মিশ্রণ ও ভেজাল নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এটি অমান্য করলে দুই বছরের কারাদন্ড এবং পাঁচ লাখ টাকর জরিমানার বিধান রাখা হয়েছে। এর আগে ছিল তিন মাসের দন্ড এবং পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা। শফিউল আলম জানান, মাছ আমদানির ক্ষেত্রে লাইসেন্সের প্রয়োজন হবে। এই আইনে লাইসেন্স ব্যতিরেকে মৎস্য জাতীয় প্রাণি আমদানি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ক্রাইস্টচার্চে হতাহতের ঘটনায় মন্ত্রিসভার শোক ও নিন্দা নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুইটি মসজিদে উগ্র এক যুবকের গুলিতে হতাহতের ঘটনায় শোক ও নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশের মন্ত্রিসভা। বৈঠকের শুরুতেই এই শোক ও নিন্দা প্রস্তাব গ্রহণ করা হয় বলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম জানিয়েছেন। গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ক্রাইস্টচার্চের আল নূর ও লিনউড মসজিদে ঢুকে গুলি চালিয়ে ৫০ জনকে হত্যা করে বর্ণবাদী এক অস্ট্রেলীয় যুবক। নিউ জিল্যান্ড প্রবাসী অন্তত পাঁচজন বাংলাদেশি ওই ঘটনায় নিহত হয়েছেন বলে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। হামলার ঘটনার সময় আল নূর মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে যাচ্ছিলেন নিউ জিল্যান্ড সফরে থাকা বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের কয়েকজন সদস্য। অল্পের জন্য তারা প্রাণে বেঁচে যান। ঘটনার পর সফর শেষ না করেই দেশে ফেরে বাংলাদেশ দল। সচিব শফিউল বলেন, “নিউ জিল্যান্ডে দুষ্কৃতিকারীদের হামলায় বাংলাদেশের পাঁচজনসহ ৫০ জন মুসল্লি নিহত হয়েছেন। তাদের নৃসংশভাবে হত্যা করা হয়েছে, এটা নিয়ে মন্ত্রিসভায় শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়। “একই সঙ্গে এই হামলার ঘটনায় মন্ত্রিসভা নিন্দা প্রস্তাবও গ্রহণ করেছে এবং যারা নিহত হয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করা হয়েছে। যারা আহত হয়েছেন তাদের সুস্থতা কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনাও জানিয়েছে মন্ত্রিসভা।” ‘বাংলা ভাষার বঙ্গবন্ধু’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচন ভাষা আেন্দোলন এবং বাংলা ভাষার প্রচারে শেখ মুজিবুর রহমানের অবদান নিয়ে লেখা ‘বাংলা ভাষার বঙ্গবন্ধু’ নামের একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ তথ্য জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম। তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে জার্নি পাবলিকেশন্স বইটি প্রকাশ করেছে। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী এবং সচিব বইটি প্রধানমন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন। ‘বাংলা ভাষায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে যত ইমপর্টেন্ট ব্যক্তিদের লেখা আছে সেগুলোর সংকলন এই বই।’ প্রধানমন্ত্রীকে মন্ত্রিসভার অভিনন্দন আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষে লাইফ টাইম কন্ট্রিবিউশন ফর উইমেন এমপাওয়ারমেন্ট অ্যাওয়ার্ড পাওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মন্ত্রিসভার সদস্যরা মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, আন্তর্জাতিক স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটউট অব সাউথ এশিয়ান উইমেন (আইএসডব্লিউ) শেখ হাসিনাকে মর্যাদপূর্ণ ওই অ্যাওয়ার্ডে ভূষিত করে। গত ৭ মার্চ জার্মানিতে রাষ্ট্রদূত ইমতিয়াজ আহমেদ প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে এই পুরস্কার গ্রহণ করে করেছেন। ‘ওই পুরস্কার পাওয়ায় মন্ত্রিসভা প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিকভাবে অভিনন্দন জ্ঞাপন করে।’
পড়া হয়েছে 52 বার। সর্বশেষ সম্পাদন করা হয়েছে: সোমবার, 18 মার্চ 2019 18:22

এ বিভাগের সর্বশেষ সংবাদ

ফেসবুক-এ আমরা